Templates by BIGtheme NET
আজ- বুধবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০১৮ :: ৪ মাঘ ১৪২৪ :: সময়- ৯ : ০৬ অপরাহ্ন
Home / বিনোদন / মিডিয়া জগতে যত ভাঙা-গড়ার খেলা

মিডিয়া জগতে যত ভাঙা-গড়ার খেলা

ভাঙা-গড়ার খেলা হরহামেশাই দেখা যায় পর্দায়। অভিনয়ের খাতিরে অনেকের সঙ্গেই পর্দায় ঘর বাঁধতে হয় নায়ক-নায়িকাদের। আবার অভিনয় বা পর্দার বাইরেও সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন অনেক তারকা। এ সম্পর্কগুলো কখনও কখনও পরিণয়ে রূপ পায়। আবার কখনও সবার অজান্তেই বিচ্ছেদ ঘটে। তারকাদের বিয়ের সঙ্গে ডিভোর্স শব্দটি যেন ব্যাকরণগতভাবেই জড়িয়ে আছে। প্রায় তারকাই বিয়ের পর ডিভোর্সের পথে হেঁটে থাকেন। চলতি বছরের শুরু থেকে এ পর্যন্ত মিডিয়াঙ্গনে বিয়ে এবং বিচ্ছেদ নিয়ে আজকের আয়োজন।

shimol nadiyaনাদিয়া ও নাঈম

২০১৬ সালের প্রথম মাসেই পারিবারিক সম্মতিতে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন টিভি পর্দার দুই অভিনয়শিল্পী নাঈম ও নাদিয়া। বয়সে নাদিয়ার চেয়ে নাঈম ছোট হওয়াতে বেশ আলোচনা পায় তাদের বিয়েটি। এছাড়াও নাঈমের এটি প্রথম বিয়ে হলেও নাদিয়ার ছিল দ্বিতীয় বিয়ে। এর আগে দীর্ঘদিন প্রেম করে ২০০৮ সালে অভিনেতা শিমুলকে বিয়ে করেছিলেন নাদিয়া। দীর্ঘ সাত বছর সংসার করার পর ২০১৫ সালে এসে আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছেদ হয় তাদের মধ্যে। তবে বিচ্ছেদ হলেও নাদিয়ার সঙ্গে নাঈমের এ পরিণয়ে আশীর্বাদ জানিয়েছেন শিমুল।

নিলয় ও শখ

niloy sokhপ্রেম-বিচ্ছেদের সব গল্পের অবসান ঘটিয়ে অবশেষে চলতি বছরের প্রথম দিনই সত্যি সত্যি বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন শখ-নিলয় জুটি। কাউকে না জানিয়ে এক প্রকার গোপনেই চার দেওয়ালের মধ্যে দশ লাখ টাকা দেনমোহরে সম্পন্ন হয় তাদের বিয়ে। বিয়ের আগে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল তাদের মধ্যে। তবে একসময় অভিনেতা নিরবের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে গুঞ্জন উঠেছিল মিডিয়া পাড়ায়। সেই গুঞ্জনের কিছুটা সত্যতাও মিলেছে অনেকের কাছে। নিলয়সহ গুঞ্জন ওঠা ওইসব প্রেমের বিষয়কে বরাবরের মতো অস্বীকার করে গেছেন শখ। নিলয়ের সঙ্গে প্রেম থাকলেও ২০১২ সালে এসে তাদের প্রেমে কিছুটা ভাটা পড়ে। তখনই নাকি অন্য প্রেমে ডুব দিয়েছিলেন শখ। কিন্তু প্রেম যার সঙ্গেই করুক অবশেষে মালা নিলয়ের গলাতেই পরিয়েছেন তিনি। বিয়ের পর প্রায় নাটকেই এ দম্পতি একসঙ্গে জুটি হয়ে অভিনয় করে যাচ্ছেন। ইদানীং শোনা যাচ্ছে তাদের মধ্যে নাকি ঝামেলা সৃষ্টি হয়েছে। তবে বিষয়টি পুরোই অস্বীকার করেছেন এ দুই তারকা।

আরেফিন রুমী

arfin-rumiপ্রেম করে অনন্যাকে বিয়ে করেছিলেন আরেফিন রুমী। বিয়ের পর এই দম্পতির ঘরে এক পুত্রসন্তান এলেও তাদের সংসার বেশিদিন স্থায়ী হয়নি। আমেরিকান প্রবাসী কামরুন্নেসার সঙ্গে পরকীয়া অতঃপর বিয়ের জের ধরে অনন্যার সঙ্গে বিয়ে ভেঙে যায় রুমির। কামরুন্নেসাকে ঘরে তুললে তার কোলজুড়েও আসে এক পুত্রসন্তান। কিন্তু নানা অভিযোগ আর নাটকীয়তার পর চলতি বছরের শুরুতে ৩১ জানুয়ারি কামরুন্নেসার যুক্তরাষ্ট্রের ঠিকানায় ডিভোর্স লেটার পাঠিয়ে দেন আরেফিন রুমী। রুমীর আইনজীবী আবদুর রহিম কামরুন্নেসার বাবাকে ফোন করে ডিভোর্স লেটার পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। গণমাধ্যমের কাছে ডিভোর্সের কারণ হিসেবে গত আড়াই বছর ধরে কামরুননেসা তাকে ও তার মাকে মানসিক নির্যাতন করে আসছিল বলে জানান। কিন্তু এ ডিভোর্সও বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। পরে উভয়ের সমঝোতায় তারা আবার এক ছাদের নিচে থাকা শুরু করেন। আরেফিন রুমী সুফিবাদে বিশ্বাসী হলেও তারা এখন কোন প্রক্রিয়ায় স্বামী-স্ত্রী হিসেবে একসঙ্গে থাকছেন- এ বিষয়ে শ্রোতা-সাধারণ এখনও অন্ধকারের মধ্যেই রয়েছেন।

সোহানা সাবা ও মুরাদ পারভেজ

murad sabaমাত্র তিন মাস প্রেম করেই বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন টিভি অভিনেত্রী সোহানা সাবা ও নির্মাতা মুরাদ পারভেজ। কিন্তু তাদের সেই সংসার এখন কেবলই অতীত। এ দম্পতির ঘরে এক পুত্রসন্তান থাকলেও বিচ্ছেদের আগে তিন মাস একসঙ্গে থাকা হয়নি তাদের। গত বছরের ২৭ এপ্রিল থেকেই আলাদা থেকেছেন তারা। এরপর চলতি বছরের মার্চে এসে আইনি প্রক্রিয়ায় একে অপরকে ডিভোর্স দেন তারা। তবে তাদের মধ্যে ডিভোর্স হলেও কেউ কারও বিষয়ে নেতিবাচক কিছু বলেনি। গণমাধ্যমের কাছে উভয়ে একে অপরের আড়ালে প্রশংসামূলক বাক্যই আউড়িয়েছেন। বিয়ের পর সাবা অবশ্য নিজেকে মুক্তবিহঙ্গ পাখি হিসেবেই বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের একাউন্টে লিখেছেন। বিয়ে বিচ্ছেদের পরপরই ব্যাংককে গিয়ে আমোদ ফুর্তিতে মেতে উঠে সে বিষয়ে প্রমানও দিয়েছেন তিনি।

সাগর ও শম্পা

sagor-sampaসুপার হিরো সুপার হিরোইন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শোবিজে পা রাখেন সাগর ও শম্পা। এর পর থেকেই একে অপরে প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ হন। ২০১৫ সালের ১৫ আগস্ট দীর্ঘদিনের এই মন নেয়া-দেয়াকে পারিবারিকভাবেই বিয়েতে রূপ দেন তারা। বিয়ের পর মাত্র পাঁচ মাস সংসার করার পর নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি শুরু হয়। ফলে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে শম্পা সাগরকে তালাকনামা পাঠান। এরপর তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে আলাদা থাকেন দুজন। কিন্তু বেশিদিন আলাদা থাকতে পারেননি তারা। সব মান-অভিমান ভুলে নতুন করে সংসার করার সিদ্ধান্তে আসেন দুজনে। তাই তালাকনামা পাঠালেও নিজেদের মধ্যে সমঝোতায় আসার যে সুযোগ রাখা ছিল সেটিই কাজে লাগিয়েছেন সাগর ও শম্পা। ভালোবাসার টানে এক ছাদের নিচে আবারও ফিরেছেন এ দম্পতি।

নিরব

শোবিজের অনেকের সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জন থাকলেও সব গুঞ্জনকে উড়িয়ে ২০১৪ সালের ২৬ ডিসেম্বরে পালিয়ে বিয়ে  করেন অভিনেতা নিরব। পাত্রী নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটির ছাত্রী তাশফিয়া তাহের ঋদ্ধি। কিন্তু দুই বছর পর গত মার্চ মাসে দ্বিতীয়বারের মতো বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন নিরব। দ্বিতীয়বারের মতো বিয়ে হলেও পাত্রী ছিল ঋদ্ধিই। অর্থাৎ পালিয়ে বিয়ে করার কারণে বিয়ের অনুষ্ঠান করা হয়নি। যা দুই বছর পর এসে বেশ ঘটা করেই সেরে নিলেন। একেবারে নতুন জামাইয়ের সাজে সাজলেন নিরব। নতুন বিয়ের মতোই গায়ে হলুদ হল নিরব ও ঋদ্ধির। সেনাকুঞ্জের বিশাল অডিটরিয়ামে বেশ জাকজমক আয়োজনেই হল দুই বছর পর তাদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠান।

ঈশিকা খান

শোবিজে ক্যারিয়ার এখনও গুছিয়ে নিতে পারেনি মডেল ঈশিকা খান। এর মধ্যেই চলতি বছরের পহেলা এপ্রিল লন্ডন প্রবাসী এবং সাকুরা গ্রুপের সিইও কামাল খানের বড় ছেলে কায়সার খানের সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন। তবে বিয়ের এক মাসের মধ্যেই ঈশিকার সংসার ভাঙনের গুঞ্জন উঠে। কিন্তু গুঞ্জনকে ভিত্তিহীন দাবি করেন ঈশিকা। স্বামী সংসার নিয়ে বেশ ভালো সময়ই কাটাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

mahiমাহিয়া মাহি

অনেকটা গোপনেই বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। কিন্তু গণমাধ্যম তার সেই বিয়ে আর গোপন থাকতে দেয়নি। তাই বাধ্য হয়েই বিয়ের দিন সংবাদ সম্মেলন করে সবাইকে জানিয়ে দেন পাত্র অপুর সঙ্গে তার সংসার পাতার খবর। কিন্তু তাতেও পার পেলেন না এ নায়িকা। বিয়ের একদিনের মাথায়ই যেন থলের বিড়াল বের হয়ে এল। শাওন নামের আরেকটি ছেলের সঙ্গে তার আগে বিয়ে হয়েছিল বলে দাবি করে ফেসবুকে সেই বিয়ের ছবি প্রকাশ হয়। ফলাফল যা হওয়ার তাই। মাহি ওই ছেলের নামে মামলা করার পরই ছেলের পরিবার থেকে তাদের আগের বিয়ের সব প্রমাণাদি হাজির করা হয় আদালতের কাছে। বিষয়টি এখনও অমীমাংসিত অবস্থায় রয়েছে। তবে শাওনের পক্ষ থেকে মাহির বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে। কিন্তু শেষাবদি সেটাও হয়নি। কোনো এক অদৃশ্য হাতের ইশারায় মাহি ও শাওনের পরিবার আপোষ করে নিয়েছেন। ভবিষ্যতে দুজন দুজনের কোনো ক্ষতি করবেন না- এমন শর্তই জুড়ে দেয়া হয়েছে আপোষনামায়। যদিও অনেকে বলছেন, আপোষনামার মাধ্যমে প্রকারান্তরে মাহি শাওনের সঙ্গে বিয়ের বিষয়টি স্বীকার করে নিয়েছেন। যেহেতু এখনও শাওনের সঙ্গে ডিভোর্স হয়নি তাহলে মুসলিম পারিবারিক আইন অনুযায়ী মাহি-অপুর বিয়েও অবৈধ বলে জানিয়েছেন অনেকে। বিষয়টি নিশ্চয়ই সবার সামনে পরিস্কার করবেন মাহি কিংবা শাওন। সেই অপেক্ষাতেই রয়েছেন ভক্তরা।

আশুতোষ সুজন ও মৃত্তিকা গুণ

নির্মাতা আশুতোষ সুজন ও মৃত্তিকা গুণ এক বছর ধরে প্রেম করেছেন। দু’জনে বিয়ের কাজটি সেরে নিয়েছেন গত মাসে। এবার হয়ে গেল তাদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। সম্প্রতি রাজধানীর ধানমন্ডির একটি রেস্তোরায় সুজন-মৃত্তিকা দম্পতিকে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়েছিলেন কবি নির্মলেন্দু গুণ, কথাশিল্পী আনিসুল হক, কবি অসীম সাহা প্রমুখ। সুজন জানান, নির্মলেন্দু গুণের কন্যা মৃত্তিকা লেখালেখিসহ বিভিন্ন সৃজনশীল কাজের সঙ্গে যুক্ত। অনেক আগে থেকে পরিচয় থাকলেও দু’জনের মধ্যে মন বিনিময় হয় এক বছর আগে। গত ৭ এপ্রিল পারিবারিকভাবে মালাবদল করেন তারা। আর আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে ৫ জুন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful