Today: 26 Jun 2017 - 04:25:23 am

এমপি লিটন হত্যা: গ্রেফতার ১২, ৬ জনের রিমান্ড আবেদন

Published on Saturday, January 7, 2017 at 7:54 pm

 খায়রুল ইসলাম গাইবান্ধা থেকে: সুন্দরগঞ্জের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা ঘটনার ৮দিন অতিক্রান্ত হলেও হত্যার কারণ উদঘাটিত হয়নি বা মূল আসামি এখনও গ্রেফতার হয়নি। এ নিয়ে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনসহ প্রগতিশীল রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী এবং সাধারণ মানুষদের চাপা ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। তদুপরি দিন যতই অতিবাহিত হচ্ছে খুনিরা ধরা না পড়ায় অনেকের মধ্যেই নিরাপত্তা হীনতা ও আতংক বিরাজ করছে বলে সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে।

ব্যবসায়িরা বলছেন একটা সার্বক্ষনিক আতংক বিরাজ করায় ব্যবসা-বাণিজ্যও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তাদের কথা লিটনের মত একজন প্রভাবশালী এমপিকে নিজ বাড়িতে খুন করার পরেও যদি খুনিরা ধরা না পড়ে তাহলে সাধারণ মানুষের অবস্থা কি। তবে পুলিশ সুত্র থেকে চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকান্ড সম্পর্কে প্রকৃত কোন তথ্যই পাওয়া যাচ্ছে না। তারা তদন্তের অজুহাতে এখনও বিষয়টি চাপা রাখছেন। এমনকি গ্রেফতারকৃতদের আদালতে প্রেরণ করা সত্ত্বেও তাদের সংখ্যা এবং গ্রেফতারকৃতদের সম্পর্কেও কোন তথ্য প্রদান বা তাদের নাম জানাতেও তারা গড়িমসি করছেন। তাদের এহেন রহস্যজনক আচরণে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এদিকে যদিও শনিবার পর্যন্ত এই ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ৩৯ জন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ। তবে এর মধ্যে ইতোপূর্বে ২১ জন জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীকে গ্রেফতার দেখানো হয়। শনিবার আরও ১২ জনকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হলেও তারমধ্যে ৬ জনকে লিটন হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এরা হল্যো জামায়াতের অর্থ যোগান দাতা সোনারায় ইউনিয়নের রামভদ্র গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে হাজী ফরিদ উদ্দিন, নিজপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে সামিউল হক, খামার পাঁচগাছি গ্রামের একরামুল হকের ছেলে হাদিসুর রহমান, বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের উত্তর হাতিবান্ধা গ্রামের রোস্তম আলীর ছেলে জিয়াউল হক, পূর্ব শিবরাম গ্রামের মো. সাবু খন্দকারের ছেলে নবীনুর রহমান ও রামভদ্র গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে হযরত আলী। উলে¬খিত ওই ৬ জনের বিরুদ্ধে ৩০২/৩৪ ধারায় মামলা দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশ গ্রেফতারকৃত ওই ৬ জনের জন্য ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন আদালতে জমা দিয়েছে। তবে শুনানী না হওয়ায় তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে রোববার এই রিমান্ডের শুনানী অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া বাকি ৬ জনকে নাশকতা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। তারা হলো- রামভদ্র কদমতলা গ্রামের মৃত মঙ্গল দেওয়ানের ছেলে ইউসুফ আলী, শান্তিরাম ইউনিয়নের খামার পাঁচগাছি মৃত রিয়াজুল ইসলামের ছেলে মাজেদুল হক প্রামানিক, শুকুর মাহমুদের ছেলে খায়রুজ্জামান, রামভদ্র কদমতলা গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে হুমায়ুন কবির লিটন, বেলকা ইউনিয়নের তালুক বেলকা গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে আতিকুর রহমান আতিক ও হরিপুর ইউনিয়নের ভেলারায় গ্রামের মৃত মজিবর রহমানের ছেলে আতাউর রহমান।

লিটন হত্যা মামলার অন্যতম আসামি রতনের গ্রেফতার অভিযান ব্যর্থ: সাদুল্যাপুর উপজেলার নলডাঙ্গা ইউনিয়নের প্রতাপ গ্রামের বিভিন্ন নাশকতা মামলাসহ এমপি লিটন হত্যা মামলার অন্যতম সন্দেহভাজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী মৃত মফিজুল ইসলামের ছেলে রতনকে গ্রেফতার করতে শুক্রবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আকস্মিক অভিযান চালায় র‌্যাবের একটি দল। তারা বাড়ি ঘেরাও করে রাখে কিন্তু র‌্যাব রতনকে গ্রেফতার করতে ব্যর্থ হয়। রতন বাড়ি থেকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গেছে, লিটন হত্যার সাথে ওই রতনের সংশি¬ষ্টতা রয়েছে।

সুন্দরগঞ্জ ও বামনডাঙ্গায় শোকসভা র‌্যালী: এমপি লিটন হত্যার প্রতিবাদে সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গা এলাকায় শনিবার বিশাল এক শোক র‌্যালী ও শোক সমাবেশের আয়োজন করা হয়। বামনডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এই শোক র‌্যালীটি বামনডাঙ্গার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে রেল স্টেশন সংলগ্ন বামনডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ অফিস সম্মুখস্থ মাঠে এক শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি সমেস উদ্দিন বাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোকসভায় আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শহিদুল ইসলাম শহীদ, মিজানুর রহমান মিজান, খালেদ গাফলাদার, মুশফিকুল হাসান, ফয়সাল শাকিদার আরিফ, জসিম উদ্দিন ডলার, আশিকুর রহমান শাওন প্রমুখ। এ উপলক্ষে বামনডাঙ্গা এলাকার সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বন্ধ রেখে সকল প্রতিষ্ঠানের মালিক কর্মচারি, দলীয় নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ এই কর্মসূচীতে অংশ নেয়।
অপরদিকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিল পূর্ব ডি ডাবি¬উ ডিগ্রী কলেজ চত্বরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, পৌর মেয়র আব্দুল্যাহ আল মামুন, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম, পৌর সেক্রেটারী মো. জাহাঙ্গীর আলম, আহসানুল করিম চাঁদ, যুবলীগ নেতা রেজাউল আলম রেজা প্রমুখ।

ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল ও কোরআনখানি: সুন্দরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ ও পৌর ছাত্রলীগের উদ্যোগে শনিবার বিকেলে এমপি লিটনের রুহের মাগফেরাত কামনা করে কোরআন খানি ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্রলীগের পৌরসভা কার্যালয়ে আয়োজিত এই দোয়া মাহফিলে ছাত্রলীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা অংশ গ্রহণ করে।

মতামত