Today: 24 Mar 2017 - 09:47:44 pm

ইউপি সদস্যের অভিনব প্রতারনা

Published on Tuesday, January 10, 2017 at 6:21 pm

বিশেষ প্রতিনিধি ১০ জানুয়ারী ॥ জেলার জলঢাকা উপজেলা বালাগ্রাম ইউনিয়নের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য গোলাম রব্বানী (৩৫) এক গৃহবধুর নিকট হতে অভিনব প্রতারনার মাধ্যমে ৩০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এ ঘটনায় আজ মঙ্গলবার সকালে ওই গৃহবধু উক্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে জলঢাকা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
ঘটনার বিবরনে জানা যায়, সপ্তম শ্রেনীর এক ছাত্রীর বাল্য বিয়ের কাবিন নামা করার অপরাধে বালাগ্রাম ইউনিয়নের নিকাহ রেজিষ্টার(কাজী) বেলাল হোসেন কে গত ৬ জানুয়ারী জলঢাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক মুহাঃ রাশেদুল হক প্রধান ৭ দিনের বিনাসশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। ফলে নিকাহ রেজিষ্টার নীলফামারী জেলা কারাগারে বন্দী রয়েছে। আর এই সুযোগ করে কাজে লাগিয়ে আশরাফ আলীর ছেলে বালাগ্রাম ইউনিয়নের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য গোলাম রব্বানী (৩৫) কারাগারে বন্দী থাকা নিকাহ রেজিষ্টারের স্ত্রী পারভিন আক্তারকে রবিবার (৮ জানুয়ারী) দুপুরে মোবাইল ফোনে জানায় তার স্বামী জেলখানায় হার্ট এ্যাটাক করেছে। তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। চিকিৎসার জন্য একলাখ টাকা লাগবে। তবে জরুরী ভাবে এখনি ৩০ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে পাঠাতে হবে।
এ কথা শুনে তাৎক্ষনিকভাবে নিকাহ রেজিষ্টারের স্ত্রী পারভিন আক্তার উক্ত ইউপি সদস্যের দেয়া দুইটি বিকাশ নম্বরে ১৫ হাজার করে ৩০ হাজার টাকা প্রেরন করেন। পাশাপাশি আরো ১৫ হাজার টাকা নিয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রওনা দেন। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে স্বামীকে খুঁজে না পেয়ে জেলা কারাগারে খবর নিয়ে জানতে পারে তার স্বামী নীলফামারী কারাগারেই রয়েছে। তার কোন অসুখ হয়নি বা হার্ট এ্যাটাক করেনি। বিষয়টি তখনি ফাস হয়ে পড়ে ইউপি সদস্য প্রতারনা করেছে। তিনি জেলা কারাগারে এসে স্বামীর সঙ্গে দেখা করে বিস্তারিত জানিয়ে জলঢাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবগত করে। এরপর আজ মঙ্গলবার সকালে জলঢাকা থানায় উক্ত ইউপি সদস্যকে আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
এ ব্যাপারে উক্ত ইউপি সদস্যের সঙ্গে সাংবাদিকরা মোবাইলে কথা বললে তিনি বলেন আমি কি করেছি সেটা আমার ব্যাপার এতে সাংবাদিকদের কি।
অপর দিকে জলঢাকা  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহঃ রাশেদুল হক প্রধান সাংবাদিকদের বলেন বিষয়টি জানানর পর আমি ওই ইউপি সদস্যকে টাকা ফেরৎ দিতে বলেছি।
জলঢাকা থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। উক্ত ইউপি সদস্যকে দুই দিনের মধ্যে টাকা ফেরতের জন্য বলেছি। টাকা ফেরত না দিলে তার বিরুদ্ধে মামলা নথিভুক্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মতামত