Today: 01 May 2017 - 04:24:11 am

মৌসুমের প্রথম শিলাবৃষ্টিতে লালমনিরহাটের ৫ উপজেলার কৃষক কাবু

Published on Saturday, March 18, 2017 at 8:31 pm

নিয়াজ আহমেদ সিপন, লালমনিরহাট প্রতিনিধি॥ মৌসুমের প্রথম শিলাবৃষ্টিতে লালমনিরহাটের ৫টি উপজেলায় বিভিন্ন জাতের উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এতে গ্রাম অঞ্চলের কৃষকেরা কাবু হয়ে পড়েছেন।

শনিবার(১৮ মার্চ) বেলা সাড়ে ৩টার দিকে এ শিলাবৃষ্টিসহ কিছু কিছু জায়গায় দমকা হাওয়া শুর” হয়। এতে চরঅঞ্চলে বেশ কিছু পরিবারের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানাগেছে।

হঠাৎ শিলাবৃষ্টিতে জেলা শহরসহ আশেপাশের ৪টি উপজেলার এলাকায় উঠতি ফসল গম, রসুন, পেঁয়াজ ও ভুট্টার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বোরো ধান, তামাক, আম ও লিচুর ফলন। এদিকে দমকা হওয়াতে চরঅঞ্চলের ক্ষতিগ্রস্ত্র পরিবাররা অন্য স্থানের আশ্রয় নিয়েছেন।

তবে কৃষি অফিস বলছে, মাঠ পর্যায়ে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা হচ্ছে।
এলাকাবাসী জানান, বেলা সাড়ে ৩টার পরে আবারও সন্ধ্যা ৭টার দিকে লালমনিরহাট সদরসহ আদিতমারী, কালীগঞ্জ, হাতীবান্ধা, পাটগ্রাম উপজেলা হঠাৎ করে ব্যাপক শিলাবৃষ্টি হয়।  হঠাৎ বেলা সাড়ে ৩টার শিলা বৃষ্টিতে ছোট ছোট শিলার পাশাপাশি বড় আকারের শিলাও পড়ে, যেগুলোর ওজন ছিল ১০০/২০০ গ্রাম পর্যন্ত। ২৫ মিনিট ধরে চলা শিলাবৃষ্টিতে স্থানীয় শিশু-কিশোরদের বাটি নিয়ে শিলাখন্ড কুড়াতে দেখা গেছে।

কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান নুর ইসলাম জানান, এলাকায় ব্যাপক শিলাবৃষ্টি দেখা গেছে। এই ইউনিয়নের শৌলমারী গ্রামে চর-অঞ্চলের মানুষরা মুঠোফোনে জানিয়েছেন, ব্যাপক শিলাবৃষ্টির কারণে মাঠ সাদা হয়ে যায়। এতে করে তামাক ও পেঁয়াজের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

চন্দ্রপুর গ্রামের কৃষক আকবর আলী বলেন,গতবারের চেয়ে এবার আলুর আবাদ একটু ভালো হয়েছে । কিন্তু হঠাৎ শিলা বৃষ্টি’র কারণে অনেক আলু তুলতে পারেনি। ওই আলুতে পচন ধরে নষ্ট যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

লালমনিরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক বিধু ভষন রায় বলেন, শিলাবৃষ্টিতে লাগানো চারা পেঁয়াজ, পেঁয়াজের ফুললের ক্ষতি হতে পারে। তবে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা তাৎক্ষণিক জানা সম্ভব হয়নি। এবং শিলাবৃষ্টিতে কী পরিমাণ ফসলের ক্ষতি হয়েছে তা মাঠ পর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তা জানার চেষ্টা করছেন।”

মতামত