Today: 29 Jun 2017 - 03:08:11 pm

তুচ্ছ ঘটনায় চিলাহাটিতে যুবলীগ ও ছাত্রলীগ সহ আহত ৩

Published on Friday, May 19, 2017 at 1:07 pm

বিশেষ প্রতিনিধি ১৯ মে॥ তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নীলফামারীর ডোমার উপজেলার চিলাহাটিতে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সংঘর্ষে যুবলীগের সভাপতি ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও ছাত্রদলের ওয়ার্ড সভাপতি সহ তিন জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় দুইজনকে ও একজনকে ডোমার হাসপাতালে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৮ মে) সন্ধ্যায় ও রাতে দুই দফায় এই ঘটনাটি ঘটে। আহতের মধ্যে চিলাহাটি এলাকার ভোগডাবুড়ি ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি এ,কে,এম জাহাঙ্গীর বসুনিয়া রাসেল(৪০) ছাত্রলীগের ইউনিয়ন সাধারন সম্পাদক তানজিরুল আহসান রিয়েল(২৪) ও ভোগডাবুড়ি ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ছাত্রদল সভাপতি রেজওয়ানুল হক রাজন(৩৫)।
অভিযোগে জানা যায় রেজওয়ানুল হক রাজনের সঙ্গে একটি সানগ্লাস(চশমা) নিয়ে ভোগডাবুড়ি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক তানজিরুল হাসান রিয়েলের মধ্যে ঘটনার দিন সন্ধ্যায় কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রদলের ওয়ার্ড সভাপতি রাজেনের আঘাতে ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক তানজিরুল আহসান রিয়েলের মাথা আঘাত প্রাপ্ত হয়ে রক্তাত্ব জখম হয়। ওই ঘটনাটি এলাকার অন্যান্য নেতাকর্মীরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায় ওই ঘটনার রেশ ধরে রাত সাড়ে ৯টার দিকে চিলাহাটি রেলষ্টেশন সড়কে যুবলীগের অফিসে বসেছিল ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সহ সাধারন সম্পাদক লুৎফর রহমান লিঠু , ও উক্ত ছাত্রদলের ওয়ার্ড সভাপতি রেজওয়ানুল হক রাজন সহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা।
এ সময় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক তানজিরুল হাসান রিয়েলকে আহত করার জেরে ১০/১৫ জনছাত্রলীগের কর্মী যুবলীগের অফিসে হামলা চালায়। তারা ছাত্রদলের রেজওয়ানুল হক রাজনের উপর চড়াও এর চেস্টা ভোগডাবুড়ি ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি এ,কে,এম জাহাঙ্গীর বসুনিয়া রাসেল বাধা দিতে যায়। এ সময় তার মাথায় লাঠির আঘাতে তিনি আহত হন। এরপর ছাত্রলীগের কতিপয় কর্মী ছাত্রদলের রেজওয়ানুল হক রাজনকে আঘাত করলে তার শরীরের পেছনে পিঠে রক্তাত্ব জখম হয়। এরপর স্থানীয় নেতাকর্মীরা যুবলীগ অফিসে আহত উক্ত দুইজন সহ পূর্বের ঘটনার আহত ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদককে একটি মাইক্রোতে প্রথমে ডোমার উপজেলা হাসপাতালে নেয়। সেখানে ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদককে ভর্তি করে অপর দুইজনকে ডোমারে চিকিৎসার পর রাতেই রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।
এ ব্যাপারে ভোগডাবুড়ি ইউনিয়নের আহত যুবলীগের সভাপতি বলেন ঘটনাটির সুষ্ঠু বিচারের জন্য উপজেলা ও ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ এবং যুবলীগ নেতৃবৃন্দের নিকট আবেদন জানিয়েছি।
এদিকে উক্ত ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক বলেন ছাত্রদলের রেজওয়ানুল হক রাজন তাকে চাকু মেরে হত্যার চেস্টা করেছিল। এ ছাড়া সে আমার মাথায় আঘাত করে রক্তাত্ব জখম করে। তখন আমি বাসায় ছিলাম। তারই রেশ ধরে এলাকার কিছু ছাত্রলীগের নেতাকমীরা তার উপর চড়াও হয়েছিল। বাধা দিতে এসে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি অযাচিতভাবে আহত হন। আমরা আহত হওয়ায় তিনজনকে ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক লুৎফর রহমান লিঠু সহ অন্যান্যরা একটি মাইক্রোতে হাসপাতালে নেয়।
এ ব্যাপারে ভোগডাবুড়ি ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ছাত্রদল সভাপতি রেজওয়ানুল হক রাজনের সঙ্গে কথা বলার চেস্টা করলে তাকে মোবাইলে পাওয়া না যাওয়ায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
তবে এলাকার অনেকে অভিযোগ করে জানায় ভোগডাবুড়ি ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ছাত্রদল সভাপতি রেজওয়ানুল হক রাজন একজন মাদক ব্যবসায়ী। গত তিন মাস আগেও সে মাদকের মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেল খেটে এসেছে। সে তার মাদকের ব্যবসা চালাতে যুবলীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঘুরে বেড়ায়।
এদিকে নবগঠিত জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মনিরুল হাসান শাহ্ আপেল জানান ঘটনাটি জানার পর কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছিল। ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

মতামত