Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ২৬ মে, ২০১৮ :: ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ :: সময়- ৩ : ৫৪ অপরাহ্ন
Home / চাকরীর খবর / তিন ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করে রুল

তিন ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করে রুল

 ডেস্ক: সোনালী, রূপালী ও জনতা ব্যাংকের বিভিন্ন পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তা, কর্মকর্তা (সাধারণ) ও কর্মকর্তা (ক্যাশ) পদে নিয়োগ পরীক্ষাসহ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির সকল ধরনের কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন উচ্চ আদালত।

একই সঙ্গে নিয়োগ পরীক্ষা কেন বাতিল করা হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। রোববার এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাই কোর্ট এ আদেশ দেন।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রাশেদুল হক খোকন। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী তানজিম আল ইসলাম ও মির্জা সুলতান আল রাজা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটরিন জেনারেল মোহাতার হোসেন সাজু।

২০১৬ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি সোনালী ব্যাংক ৭০১টি শূন্য পদে কর্মকর্তা ও কর্মকর্তা (ক্যাশ) নিয়োগে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়। ওই বছরের ২৬ জুলাই রূপালী ব্যাংক ৪২৩টি শূন্য পদে সিনয়র অফিসার ও ৩ আগস্ট জনতা ব্যাংক ৭৩৬টি শূন্য পদে অ্যাসিসট্যান্ট এক্সিকিউটিভ অফিসার পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়।

কিন্তু এসব নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির নিয়োগ পরীক্ষা না নিয়ে গত বছরের ২৩ আগস্ট বাংলাদেশ ব্যাংক ৮টি রাষ্ট্রয়ত্ব ব্যাংকের এক হাজার ৬৬৩ টি উর্ধ্বতন কর্মকর্তা (সাধারণ) শূন্য পদের জন্য সমন্বিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়। এরপর ২৯ আগস্ট আবার তিন হাজার ৪৬৩ টি কর্মকর্তা (সাধারণ) শূন্য পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়। সর্বশেষ গত বছরের ৭ সেপ্টেম্বর দুই হাজার ২৪৬টি কর্মকর্তা (ক্যাশ) শূন্য পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এসব নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির ভিত্তিতে আগামী ১২ জানুয়ারি নিয়োগ পরীক্ষা হওয়ার কথা।

রিটকারীদের আইনজীবী রাশেদুল হক খোকন সাংবাদিকদের বলেন, ২০১৬ সালের ৩টি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা না নিয়ে গত বছরের যে ৩টি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে সেগুলোর নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে ১২ জানুয়ারি।

ফলে ২০১৬ সালে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী যারা আবেদন করেছিল, তাদের ২৮ আবেদনকারী গত বছর বাংলাদেশ ব্যাংকের ৩টি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি চ্যালেঞ্জ করে রিট আদেন করেন। সেই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত নিয়োগ পরীক্ষাসহ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির সকল কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে।

আইনজীবী খোকন বলেন, গত বছরের বিভিন্ন সময়ে দেয়া এ তিনটি ব্যাংকের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি কেন অবৈধ হবে না এবং ২০১৭ সালে দেয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী নিয়োগ পরীক্ষা নেয়ার আগে ২০১৬ সালের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী নিয়োগ পরীক্ষা নেয়ার নির্দেশ কেন দেয়া হবে না, জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

বাংলাদেশ ব্যাংক, অর্থসচিব, ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির চেয়ারম্যান ও সদস্য সচিবকে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

নিয়োগ পরীক্ষার প্রার্থী বগুড়ার আসাদুজ্জামান, কুমিল্লার আবু বকরসহ ২৮ জন ২০১৭ সালের নিয়োগ পরীক্ষার সার্কুলার বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন।

পরে আইনজীবী রাশেদুল হক খোকন বলেন, রাষ্ট্রয়াত্ব তিনটি ব্যাংকে ২০১৬ সালের প্রার্থীদের পরীক্ষা না নিয়ে ২০১৭ সালে আবার সার্কুলার জারি করায় আমরা রিট আবেদন করি। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত ২০১৬ সালের সার্কুলারে যারা আবেদন করেছেন তাদের পরীক্ষা কেন ২০১৭ সালের সার্কুলারের আগে নেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন। একই সঙ্গে এ রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ২০১৭ সালের সার্কুলারের সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন আদালত। আগামী ৪ সপ্তাহের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক, অর্থ সচিবসহ চারজনকে জবাব দিতে বলা হয়েছে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful