Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ২৬ মে, ২০১৮ :: ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ :: সময়- ৩ : ৫৮ অপরাহ্ন
Home / ক্যাম্পাস / রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আবারও আগুন: এক বছরে ৭ বার অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতি প্রায় কোটি টাকা

রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আবারও আগুন: এক বছরে ৭ বার অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতি প্রায় কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিনিধি: বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) আবারও আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন- ৪ এর পিছনে ও শহীদ মুখতার ইলাহী হলের সামনের অংশের ইউক্যালিপটাস বাগানের অনেকাংশ পুড়ে যায়। এমতাবস্থায় পর পর দুইবার ফায়ার সার্ভিসের টিম এসে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। এ ঘটনায় সিদ্দিক মেমোরিয়াল স্কুলের তিন এস এস সি পরীক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন, জয় কিসপট্টা, আরিফুল ইসলাম ও ফজলে রাব্বি।

এদিকে এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে গত এক বছরে সাতবার বার অগ্নি সংযোগের ঘটনায় আগুনে পুড়ে যায় মূল্যবান কয়েক হাজার গাছপালা। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় এক কোটি টাকার মত সম্পদের ক্ষতি হয়েছে । বছরে সাতবার আগুন লাগার পরেও তেমন কোন পদক্ষেপ নেয়নি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দাবি বহিরাগতদের কারণে এসব ঘটনা ঘটছে। ক্যাম্পাসে বহিরাগত প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হলেও কেন বারবার এমন ঘটনা ঘটছে তার কোন সদুত্তর নেই প্রশাসনের কাছে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১২ ডিসেম্বর পরপর ওষধি গাছের বাগানে দুই দফা অগ্নি সংযোগ ঘটে। সকালে একবার ও সন্ধ্যায় আবার অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় অর্ধকোটি টাকার ওষুধি গাছপালা ক্ষতি হয়। আগুন দেওয়ার কারণ খতিয়ে দেখতে ও দোষিদের চিহ্নিত করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কিন্তু আজ পর্যন্ত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন আলোর মুখ দেখেনি। যেন অর্ধকোটি টাকার ক্ষতির বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কোন মাথা ব্যাথাই নেই। এদিকে ঠিক ৪দিন পর ২০১৬ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ওষুধি গাছের বাগানে দুপুর সোয়া ১টার দিকে আবারও আগুন দেওয়ার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জনিয়ারিং বিভাগের সপ্তম ব্যাচের ছাত্র রুমন, রতন, ফুয়াদ ও পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সপ্তম ব্যাচের ছাত্র শফিককে আটক করে পুলিশ। আগুন লাগার ফলে বাগানের অনেক ওষুধী গাছ পুড়ে যায়।

এদিকে ২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর আবারও আগুনের ঘটনা ঘটে। বিকাল পৌনে চারটায় কেন্দ্রীয় মসজিদের দক্ষিণ কোণে এই ঘটনা ঘটে। ৪টায় ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম এসে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। সেদিনও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দাবি ছিলো বহিরাগতদের কারণে এসব ঘটনা ঘটছে। আবার গত ২৪ ডিসেম্বর সন্ধায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের খেলার মাঠে অগ্নি সংযোগ ঘটে। পরে হলের শিক্ষার্থীরাই নিজের উদ্যোগেই আগুন নেভায়।

এছাড়াও গত ১৮ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে তিনটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের পেছনে প্রায় ঘন্টাখানেক ধরে অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে। ঘন্টাব্যাপি আগুন জ্বলতে থাকলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফায়ার সার্ভিসকে কোন খবর দেওয়া হয় নাই। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মরত কয়েকজন সাংবাদিক ও কয়েকজন কর্মচারীদের সহযোগীতায় আগুন নেভানো হয়।।

অন্যদিকে গত ৩০ জানুয়ারি বহিরাগতদের সিগারেটের আগুনে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ সংলগ্ন ওষুধি বাগানে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। এতে বাগানের মূল্যবান বনজ, ফলদ ও ওষুধি গাছ পুড়ে যায়। এ ঘটনায় রংপুরের চারটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির পাঁচ শিক্ষার্থী কারমাইকেল কলেজের ছাত্র নাইমুর রহমান, রংপুর লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র রাকিবুল হাসান, রংপুর ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র আসাদুজ্জামান ও তাহসিন আহমেদ, রংপুর পুলিশ লাইন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র আশিকুর রহমানকে আটক করে পুলিশ। পরে তাদের মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয় পুলিশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের প্রবেশ বন্ধে প্রশাসনের কার্যকরী কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় ইভটিজিং, অসামাজিক কার্যকলাপসহ মাদক সেবনের অন্যতম আড্ডাস্থলে পরিণত হয়েছে বেরোবি। তারই অংশ হিসেবে বারবার এমন ঘটনা ঘটছে। জীববৈচিত্রে আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংসের পাঁয়তারায় নেমেছে এসব বহিরাগতরা। ফলে ক্যাম্পাসের সুষ্ঠু, সুন্দর, প্রাকৃতিক পরিবেশ ধ্বংসের মুখে পড়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এস আই) মুহিব্বুল ইসলাম মুন বলেন, আটক তিনজন কে কোতোয়ালি থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর (চলতি দায়িত্ব) ড. মোঃ আবু কালাম ফরিদ-উল ইসলামকে মোবাইলে বেশ কয়েকবার ফোন করা হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ বলেন, এই বিষয়ে আমি অবগত। এখন থেকে ক্যাম্পাসে বহিরাগত প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপ করা হবে। সাতবার আগুন লাগার ঘটনায় প্রায় কোটি টাকা ক্ষতির বিষয়ে তিনি বলেন, আমি প্রত্যেকটি ঘটনা খতিয়ে দেখব।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful