Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২৫ জুন, ২০১৮ :: ১১ আষাঢ় ১৪২৫ :: সময়- ৪ : ২০ পুর্বাহ্ন
Home / টপ নিউজ / টেক্সট মেসেজে কী লিখবেন, কী লিখবেন না…

টেক্সট মেসেজে কী লিখবেন, কী লিখবেন না…

ডেস্ক: মনের গোপন কথা প্রিয়জনকে মুখে বলার চেয়ে টেক্সট মেসেজ করে জানানোর মধ্যে অন্য রকম এক ভালো লাগা কাজ করে। তবে টেক্সটের সুফল পেতে আপনাকে কিছুটা সাবধানী হতে হবে। একটু অসতর্কতা কিংবা সামান্য ভুল হলে হিতে বিপরীত হতে পারে।

লিখতে পারেন যা যা

ছোট কথার ব্যাপকতা : রাজ্যের কাজের কাজি আপনি। মাথা তুলে ফোনে কান ডোবানোর সময় নেই আপনার। সময় নেই টেক্সট মেসেজ করারও। তবু সম্পর্ককে আরও সুসংহত করতে পারেন ছোট বাক্যবিনিময়ের মাধ্যমে। একগাদা কথা না লিখে ছোট্ট করে লিখুন- ‘হাই, কী খবর?’ বলতে পারেন, ‘কেমন যাচ্ছে তোমার দিন?’ কিংবা ‘মিসিং ইউ’র মতো ছোট্ট অথচ ক্ষমতাধর কথা।

দূরত্ব কমাতে : ঘর ছেড়ে হয়তো অনেক দূরে আপনি। কিন্তু মন পড়ে আছে ঘরের প্রিয় মানুষটির কাছে। তাকে খুব দরদ দিয়ে একটা টেক্সট করুন। এতে সেও তার মনের কথা জানাবে। এভাবে ছোট বাক্যবিনিময়ে দূরত্ব কমে আসবে। দু’জনে তখন চলে আসবেন যেন একই ছাদের নিচে!

প্রথম দেখার আগে : পরিচয়টা হতে পারে চলন্ত পথে কিংবা অনলাইনে। অথবা সে হতে পারে আত্মীয়। তবে তার সঙ্গে দেখা করার আগে টেক্সট মেসেজকে গুরুত্ব দিন। গবেষণায় দেখা গেছে, শতকরা ৩২টি প্রেমিক যুগলই প্রথম দেখার আগে দু’জনের মধ্যে টেক্সট মেসেজ আদান-প্রদানে গুরুত্ব দিয়েছেন। তারা মনে করেন, এতে প্রথম দিনটি স্বস্তিতে কাটানোর রসদ পেয়ে যান। কারণ ইতিমধ্যেই টেক্সট মেসেজের মাধ্যমে নিজেদের পছন্দ-অপছন্দ, প্রিয় ব্র্যান্ড, প্রিয় সিনেমা, ভালো লাগার স্থান, শখ- এমন সব বিষয় জেনে গেছেন। এসব তথ্য কাজে লাগিয়ে তারা দিনটা ভালোভাবে কাটাতে পারেন। আপনিও সে পথে হাঁটতে পারেন।

দ্রুত উত্তর : এখন আমরা প্রায় সবাই মোবাইল ফোন সঙ্গে রাখি। তাই মেসেজের উত্তর যথাসময়ে দেওয়ার চেষ্টা করুন। আপনি যদি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মেসেজ ব্যাক না করেন তাহলে আপনাকে ভুল বোঝার আশঙ্কা তৈরি হবে। তাই ব্যস্ত থাকলেও ছোট্ট করে ব্যস্ততার বার্তাটি পৌঁছে দিন তার কাছে। দিনের কাজ শেষে যোগাযোগের প্রতিশ্রুতি দিন।

যা যা এড়িয়ে যাবেন

টেক্সট মেসেজের ক্ষেত্রে কিছু বিষয় আপনাকে একেবারেই এড়িয়ে চলতে হবে। যেমন ধরুন-

অনুমানের দেয়াল : যদি কোনো টেক্সট আপনি বুঝতে না পারেন, অনুমানের ওপর ভিত্তি করে উত্তর দেবেন না। অপেক্ষা করুন তার মুখোমুখি হওয়ার। তারপর তিনি কী বলছেন বা বলতে চাচ্ছেন, তা জেনে নিন। একটি টেক্সট মেসেজের অনেক অর্থ হতে পারে। তাই ভেঙে ফেলুন অনুমানের দেয়াল!

লিলিপুট টেক্সট : টেক্সট মেসেজটি সংক্ষিপ্ত করতে চাইলে ইমো বা ছোট ছোট শব্দ এবং চিহ্ন ব্যবহার করতে পারেন। তবে যাকে টেক্সট পাঠাচ্ছেন, সে এটি বুঝতে পারবে কি-না তা মাথায় রাখুন।

ঠাট্টায় গণ্ডগোল : সম্পর্কের পারদ উপরে ওঠাতে চাইলে একটু হাস্যরস করতেই পারেন। তাই বলে এটা বিরতিহীন সার্ভিসের মতো চালাতে যাবেন না। এতে পেছনের দরজা দিয়ে পালাতে পারে আপনার সম্মান ও বিশ্বস্ততা। অথচ এ দুটো সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

রাগের মাথায় ইতি : কোনো কারণে দিন খারাপ গেলে কিংবা কারও ওপর মেজাজ তিরিক্ষি হয়ে থাকলে টেক্সট না করে চুপচাপ থাকাই ভালো। প্রিয় মানুষটির ওপর মেজাজ বিগড়ালেও টেক্সট মেসেজ করা থেকে বিরত থাকুন। রাগ বা ক্ষোভ টেক্সটে ঝাড়তে যাবেন না। এতে সম্পর্কে লালবাতি জ্বলে উঠতে পারে! বরং মুখোমুখি বসে সমাধান খুঁজুন।

ব্রেকআপেও না : সম্পর্কে একঘেয়ে ভাব চলে এসেছে? একজনকে দেখলে আরেকজনের রগ চটে যায়? দু’জনই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ব্রেকআপ করার? এ অবস্থায়ও টেক্সট মেসেজ পরিহার করুন। সম্পর্ক ভাঙার জন্য টেক্সট গুরুত্বপূর্ণ মনে হলেও এ পথে হাঁটবেন না। কাউকে খারাপ সংবাদ দিতে চাইলেও টেক্সট এড়িয়ে ফোনে কথা বলে জানান।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful