Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২৩ এপ্রিল, ২০১৮ :: ১০ বৈশাখ ১৪২৫ :: সময়- ৫ : ৪৬ অপরাহ্ন
Home / টপ নিউজ / প্রধানমন্ত্রী ঠাকুরগাঁওয়ে আসছেন তাই!

প্রধানমন্ত্রী ঠাকুরগাঁওয়ে আসছেন তাই!

রবিউল এহ্সান রিপন, ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁও শহরের রাস্তা, স্থাপনা, সরকারী ভবণ গুলো দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে শহরের সৌন্দর্য হারিয়ে গিয়েছিল। বেশিরভাগ ভাঙ্গা সড়ক যাতায়াত করার অযোগ্য হওয়ায় দুর্ভোগ পোহাতে হয় সাধারণ যাত্রীদের। তবে গত কয়েকদিনে ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড় মহাসড়ক ও শহরের প্রধাণ সড়কের চেহারা খুব দ্রুত পাল্টে যেতে শুরু করেছে। সড়কের গর্ত ভরাট, মেরামত ও সৌর্ন্দয্য বর্ধনের কাজ চলছে খুব দ্রুত গতিতে। হঠাৎ কেন এমন পরিবর্তন প্রশ্ন জাগে সাধারণ মানুষের মনে। পরে জানাযায় আগামী ২৯ মার্চ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঠাকুরগাঁও সফর করার কথা রয়েছে।

২৯শে মার্চ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড় মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বিশাল সমাবেশে বক্তব্য দেওয়ার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। তাই প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে শহরের অফিস, আদালত, বিভিন্ন স্থাপনা সংস্কার, রং এর কাজ ও সড়ক মেরামতের ধুম পড়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৭ বছর পর ঠাকুরগাঁওয়ে সফরে আসছেন। তার এই সফরকে কেন্দ্র করে ঠাকুরগাঁওবাসীর মনে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে, চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি। প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে ঠাকুরগাঁও শহর নবরূপে সাজানো হচ্ছে। ওই দিন তিনি ঠাকুরগাঁও বড়মাঠে একটি জনসভায় বক্তব্য দেবেন এবং কয়েকটি স্থাপনার উদ্বোধন ও উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করবেন।

জাতীয় নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে দ্বিতীয় বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার ১৭ বছর পর এই প্রথম ঠাকুরগাঁও সফরে আসছেন তিনি। এর মধ্যে কয়েকবার তাঁর ঠাকুরগাঁও সফরে আসার কথা শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত ঠাকুরগাঁওয়ে আসা হয়নি। শেখ হাসিনা সর্বশেষ ঠাকুরগাঁওয়ে এসেছিলেন ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনের আগে নির্বাচনী প্রচারনায় আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হিসেবে। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে কেন্দ্র করে নানা প্রাপ্তি ও প্রত্যাশায় বুক বেঁধেছে দলমত নির্বিশেষে ঠাকুরগাঁওয়ের সর্বস্থরের মানুষ।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক মো: আখতারুজ্জামান বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে আমরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি। এ লক্ষ্যে প্রশাসন এবং স্থানীয় রাজনৈতিক ও সামাজিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান সমন্বয় করে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সামনে একটি তিলোত্তমা শহর তুলে ধরতে কাজ করছি।

পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদ বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ে সফরকালে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার ব্যাপারে সার্বিক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জহিরুল ইসলাম জানান, ২৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলা সাড়ে ১১টায় ঠাকুরগাঁও বিজিবি সেক্টর মাঠে হেলিকপ্টারে অবতরণ করবেন। ৩টা পর্যন্ত কয়েকটি স্থাপনা উদ্বোধন ও উন্নয়ন কাজের ভিত্তিস্থাপন করবেন। এরপর তিনি বড় মাঠে ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখবেন। বিকেল সাড়ে ৪টায় প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টারে করে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবেন। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে কেন্দ্র করে ঠাকুরগাঁওবাসী ব্যাপক প্রত্যাশায় বুক বেধেঁ রয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ সাদেক কুরাইশী বলেন, আমরা ১৭ বছর পর প্রধানমন্ত্রীকে বরণ করতে ঠাকুরগাঁওয়ে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন করেছি। জনসভায় প্রায় ১০ লাখ মানুষের সমাগমের জন্য নেতাকর্মীরা নিরলস ভাবে কাজ করছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সামনে ঠাকুরগাঁও-ঢাকা আন্ত:নগর ট্রেন, ব্রিটিশ আমলের বিমান বন্দর চালু, কৃষি ভিত্তিক ইপিজেট, একটি পূর্ণাঙ্গ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজ, বন্ধ হওয়া রেশম কারখানাটি পুনরায় চালু ও যানজট নিরসনে বাইপাস সড়কের প্রস্তাবনা তুলে ধরা হবে বলে এই সরকার দলীয় নেতা মতব্যক্ত করেন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful