Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ১৮ অগাস্ট, ২০১৮ :: ৩ ভাদ্র ১৪২৫ :: সময়- ২ : ৪৪ অপরাহ্ন
Home / নীলফামারী / নীলফামারীতে তিনদিন ব্যাপী জাতীয় নজরুল সম্মেলন শুরু

নীলফামারীতে তিনদিন ব্যাপী জাতীয় নজরুল সম্মেলন শুরু

ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়, নীলফামারী ১৯ এপ্রিল॥ কবি নজরুল ইসলামের পৌত্রী ও নজরুল ইনস্টিটিউটের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য খিলখিল কাজী বলেন, জাতীয় কবি নজরুল ইসলাম আমাদের মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শিখিয়েছেন এবং বলেছিলেন “বল বীর- বল চির উন্নত মম শির, শির নেহারি আমারি নতশির ঐ শিখর হিমাদ্রির! বল বীর-”।
তিনি বলেন, এইযে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর কথা যিনি আমাদের বলে গেছেন তিনি আমাদের অত্যন্ত প্রাণ প্রিয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। তাঁর অজস্র গান কবিতা মুক্তিযুদ্ধে আগুন জ্বালিয়েছিল। শত শত যুবক মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল সেই আহ্বানে। সেই গান কবিতা আমাদেরকে ধারণ করতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে তিনদিন ব্যাপী নীলফামারী জেলায় জাতীয় নজরুল সম্মেলন/২০১৮ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, কাজী নজরুল ইসলাম হচ্ছেন আমাদের এক অহংকার। তিনি ছিলেন একজন বিদ্রোহী কবি। তিনি আমাদের মাথা উচু করে দাঁড়াতে শিখিয়েছেন। আজকে পৃথিবীতে এতো অশান্তি, জাতিগত লড়াই তিনি কখনও এসব চাননি। আজকে মানবতার উপর যে আঘাত আসছে এগুলো থেকে বেড়িয়ে আসতে হলে আমাদের কাজী নজরুল ইসলামকে জানতে হবে, তাকে ধারন করতে হবে। সারা জীবন তিনি মানুষের মুক্তির জয়গান গেয়ে গেছেন। যেখানে পাপ, সহিংসতা, অবিচার, অন্যায়, অসৎ সব কিছুর বিরুদ্ধে তার লিখনি কাজ করেছে। আমরা তার সেই আদ্দশ্যগুলি নতুন প্রজন্মের কাছে পৌছাতে পারি, নতুন প্রজন্ম যেনো তার আদ্দশ্যগুলো জানতে পারে, নিজের হৃদয় ধারণ করতে পারে, সেই মত চলতে পারে। তার সেই কবিতা ও সংগীত নতুন প্রজন্মকে ধারণ করতে হবে। তার কবিতা, সংস্কৃতি, সাহিত্য আমাদের ধারণ করতে হবে এবং তা নিজের জীবনে নিয়মিত চর্চা করতে হবে।

জাতীয় নজরুল ইনস্টিটিউট ও সংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে জেলা প্রশাসন আয়োজিত ওই সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খালেদ রহীমের সভাপতিত্বে বক্তৃতা দেন কবি নজরুল ইনিস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক ভ্ঞূা, ইনিস্টিটিউটের সচিব ও প্রকল্প পরিচালক আব্দুর রহিম, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, নীলফামারী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ দেবীপ্রসাদ রায়, নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুজার রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের জেলা আহ্বায়ক আহসান রহিম প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে সালাউদ্দিন আহমেদের পরিচালনায় দলীয় গান পরিবেশন করেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের শিল্পীবৃন্দরা (নবীন আশা লাগলো যে রে আজ) এবং

অশিত কুমার ধরের পরিচালনায় দলীয় গান পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীবৃন্দরা (দাও শৈষ্য, দাও ধৈর্ষ্য)।

একক সংগীত পরিবেশন করেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের শিল্পী ফাতেমাতুজ জোহরা,

অধ্যাপক ড. নাশিদ কামাল ও জান্নাতুল ইসলাম কবীর। কবিতা আবৃত্তি করেন খিলখিল কাজী ও মাহিদুল ইসলাম এবং

নৃত্য পরিবেশন করেন ওয়ার্দা রিহাব ও তার দল (জয় হোক জয় হোক) এবং স্থানীয় নৃত্য পরিবেশন করেন রাব্বি আল কায়সার রাজু (তোরা সব জয়ের ধ্বনি কর)।

বিকাল সাড়ে ৩টায় দ্বিতীয় অধিবেশনে আলোচনার বিষয় ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও নজরুল’। মুখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি হাবীবুৃল্লাহ সিরাজী। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী সরকোরি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রঢেসর এটিএম মোস্তফা চৌধুরী, সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক বাবুল হোসাইন।
আলোচনা শেষে নজরুল সম্মেলনের রচনা, চিত্রাঙ্গন, কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ শেষে কবি নজরুল ইসলামের জীব-পরিক্রমার উপর তথ্যচিত্র প্রদর্শন।

সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সালাউদ্দিন আহমেদের পরিচালনায় দলীয় সংগীত পরিবেশন করবেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের শিল্পীবৃন্দরা (দুর্গম গিরি) এবং দলীয় সংগীত নীলফামারী।

একক সংগীত পরিবেশন করেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের শিল্পী ফাতেমাতুজ জোহরা, অধ্যাপক ড. নাশিদ কামাল, ইয়াকুব আলী খান, আফসানা রুনা, মিতা চক্রবর্তী, রুমি আজনবী এবং স্থানীয় শিল্পী আসাদুজ্জামান আল আজাদ, ফারহানা ইসলাম ইমু, আনুসুয়া তামান্না টুকটুকি ও তাসনিম ফৌজিয়া ওপেল।
কবিতা আবৃত্তি করেন স্থানীয় আব্দুল বারী এবং দলীয় নৃত্য পরিবেশন করেন শিল্পী ওয়ার্দা রিহাব ও তার দল (বল বীর ও তোরা সব জয়ের ধ্বনি কর) ও স্থানীয় নৃত্য শিল্পী।

এর আগে সম্মেলন উপলক্ষে সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্ত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা

শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

প্রদক্ষিণ শেষে বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

উল্লেখ যে, সম্মেলনের সমাপনী হবে আগামী ২১ এপ্রিল। সমাপনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংষ্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful