Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯ :: ৬ কার্তিক ১৪২৬ :: সময়- ৬ : ১৩ পুর্বাহ্ন
Home / দিনাজপুর / উত্তপ্ত দিনাজপুর

উত্তপ্ত দিনাজপুর

শাহ্ আলম শাহী,স্টাফ রিপোর্টার,দিনাজপুর থেকেঃ আইনজীবীদের সাথে ডিসি অফিসের কর্মচারীদের সৃষ্ট ঘটনায় দিনাজপুর উত্তপ্ত হয়ে উেেছ।  মুখো-মুখি অবস্থান নিয়েছে ডিসি অফিসের কর্মচারীরা। ডিসি অফিসের কর্মচারীরা বৃহস্পতিবার থেকে কর্মবিরতি পালনের পাশাপশি বিক্ষোভ,মানবন্ধন অব্যাহত রেখেছে। তাদের সাথে দিনাজপুরের বিভিন্ন দপ্তরের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির সরকারি কর্মচারীরা একাত্ত¡তা প্রকাশ করেছেন।
অন্যদিকে আইনজীবীদের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে কঠোর কর্মসূচী প্রদানের হুমকি দিয়েছে দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি। মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্য এর আগে ৭২ ঘন্টার পর আবারো ৪২ ঘন্টার আল্টিমেটার দিয়েছে তারা। আইনজীবীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত সৃষ্ট ঘটনা সুরাহার জন্য তারা জেলা প্রশাসনের সাথে কোন বৈঠকে বসবেনা। এছাড়াও সৃষ্ট ঘটনাকে কেন্দ্র করে পৃথক ৩টি কমিটি গঠনও করেছে আইনজীবীরা।মঙ্গলবার দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত সাড়ে ৪ ঘন্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি।
আইনজীবীর হাতে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের দু’কর্মচারী প্রহৃত হওয়ার জেরে মঙ্গলবারও তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীরা কর্মবিরতিসহ বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হওয়ায় তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীরা কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ সমাবেশ অব্যাহত রাখবে বলে জানিয়েছে। এর কর্মসূচীতে দিনাজপুরের বিভিন্ন দপ্তরের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির সরকারি কর্মচারীরা একাত্ততা প্রকাশ করেছেন।
৩য় শ্রেণি সরকারি কর্মচারী সমিতি দিনাজপুর কালেক্টরেট শাখার সভাপতি মোঃ আবু তাহের এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মোঃ এনায়েত কাদের এর সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণি কর্মচারী সমিতি দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি মোঃ আব্দুর রহিম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ ফরিদ হোসেন, ৪র্থ শ্রেণি সরকারি কর্মচারী সমিতি দিনাজপুর কালেক্টরেট শাখার সভাপতি মোঃ শুকুর আলী, সাধারণ সম্পদাক মোঃ মোজাহারুল ইসলাম, চতুর্থ শ্রেণি সরকারি কর্মচারী সমিতির জেনারেল হাসপাতাল শাখার সভাপতি মোঃ আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাসুদ মিয়া প্রমুখ।
দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেটর অফিস সহকারী কাম টাইপিস্ট মো. আমিনুর রহমান ও পিয়ন আব্দুস সালামকে পেটানোর অভিযোগে বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় কোতোয়ালি থানায় দ্রæত বিচার আইনে মামলা দায়ের হয় ।
এ মামলার বাদী হয়েছেন,দিনাজপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের কর্মচারী আমিনুর রহমান। কোতোয়ালি থানার ওসি রেদওয়ানুর রহিম জানান, দ্রুত বিচার আইনে ৭ জন আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং ১৫৩। এসআই রুহুল আমিনকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিযুক্ত করা হয়েছে।
মামলার এজাহারে অভিযোগ করা হয়েছে, গত বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ২টায় দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুজ্জামানের অফিস সহকারী কাম টাইপিস্ট মো. আমিনুর রহমানের কক্ষে ৭ আইনজীবী মাহফুজুর রহমান খান বিপুল, রবিউল আলম রবি, মো. ফিবেল, মো. সাদিক আলম বিন নায়ের, মো. সুমন সরকার খোকা, মো. রঞ্জু এবং মো. খোকনসহ অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জন প্রবেশ করেন।এ সময় আইনজীবীদের সঙ্গে সহকারী আমিনুর ও পিয়ন আব্দুস সালামের সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে দুই কর্মচারীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন ওই সাত আইনজীবীরা।
সাত আইনজীবী আমিনুর ও সালামকে কিলঘুষি, লাথি, চড়-থাপ্পড় মারার একপর্যায়ে উভয়ে মেঝেতে পড়ে গেলে সে অবস্থায়ও বেদম পেটান।তাদের আর্তনাদে আশপাশের রুমের কর্মচারীরা ছুটে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যান।গুরুতর আহত অবস্থায় সহকর্মীরা আমিনুর ও সালামকে দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।ঘটনার খবর পেয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুজ্জামান এজলাস থেকে নেমে এসে আহত ২ কর্মচারীকে দেখে দ্রæত হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।ঘটনার পর দিনাজপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীরা কাজকর্ম বন্ধ করে হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ-সমাবেশ অব্যাহত রেখেছে ।
এদিকে আইনজীবীদের পক্ষে দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি’র যুগ্ম সম্পাদক সারোয়ার আহম্মেদ বাবু জানান,২৩শে মে বুধবার বিকাল আনুমানিক ৪টার সময়, এ্যাডভোকেট রবিউল আলম তার মোটরসাইকেলযোগে ডিসি অফিসের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় দিনাজপুর শহরে বৃষ্টিপাত শুরু হয়। সেসময় বৃষ্টিতে ভিজে যাওয়া থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য এডঃ রবিউল আলম ডিসি অফিসের গাড়ি রাখার পেছনে ছাদের নিচে অবস্থান নেন। এসময় ডিসি অফিসের কর্মচারী সালাম এ্যাডভোকেট রবিউলকে ধমক দিয়ে পেছন থেকে সরে দাঁড়াতে বলেন। এড রবিউল নিজের আইনজীবী পরিচয় প্রদান করেন। কিন্তু কর্মচারী সালাম এড রবিউলকে বলেন সরে না গেলে গাড়ি দিয়ে চাপা দিবে। এড রবিউল আলম নিজের মানসম্মান রক্ষার্থে সেইখান থেকে কিছু না বলে চলে যান।
পরের দিন ২৪শে মে বৃহস্পতিবার দুপুর আনুমানিক ১টার সময় এড রবিউল তার কাজে ডিসি অফিসে গেলে কর্মচারী সালামের সাথে দেখা হয়। সালাম তাকে দেখা মাত্র কটূক্তি করা শুরু করলে এড রবিউল প্রতিবাদ করেন। তখন ডিসি অফিসের এডিএম এর সিএ আনিসুর রহমান সহ ১২/১৩ জন স্টাফ দৌঁড়ে আসে এবং এড রবিউলকে ঘেরাও করে অপমানজনক কথা বার্তা বলতে থাকে। এ সময় এড রবিউল দিনাজপুরের এডিএম সাহেবকে এই বিষয়ে জানালে এডিএম বলেন, যে তিনি ব্যস্ত, কাজ করে বিষয়টি দেখবেন বলে এড রবিউলকে জানান। এড রবিউল তখন বের হয়ে আসতে থাকা অবস্থায় আবার সালাম, আনিসুর সহ ডিসি অফিসের ১২/১৩ জন স্টাফ এড রবিউলকে ঘিরে ধরে অবরুদ্ধ করে এবং আনিসুর রহমান বলে যে এডিএম ছেড়ে দিয়েছে তো কি হয়েছে, আমরা তোকে আটকে রাখার ক্ষমতা রাখি বলে আইনজীবীকে লাঞ্ছিত করতে থাকে। এইরূপ হইচই দেখে অন্যান্য আইনজীবীরা এড রবিউলকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে আসলে স্টাফরা আইনজীবীদের সাথে চরম বাকবিতন্ডা ও দুর্ব্যবহার করে। আইনজীবীরা স্টাফদের প্রবল শারীরিক আক্রমণের সম্মুখে অবরুদ্ধ এড রবিউলকে স্টাফদের কবজা থেকে উদ্ধার করে জেলা আইনজীবী সমিতিতে নিয়ে আসে। আইনজীবীরা ডিসি অফিসের স্টাফদের কাউকে আক্রমন না করলেও তারা উদ্ধারকারী আইনজীবীদের মাদকসেবী, জঙ্গি ও নাশকতাকারী দাবী করে বিচারের দাবী ডিসি অফিস থেকে বের হয়ে মিছিল করে ও শ্লোগান দিতে থাকে।
এ ঘটনার পর দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে তাদের দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার আহবান জানিয়ে আল্টিমেটাম দেয়। সমিটি’র সভাপতি এ্যাড. নুরুজ্জামান জাহানী ও সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মো. তৌহিদুল ইসলাম সরকার স্বাক্ষরিত এক প্রতিবাদ লিপিতে জানানো হয়েছে,একটি ছোট্ট ঘটনাকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশাল ঘটনায় রুপান্তর করার অপচেষ্টা আসলে দূরভিসন্ধিমূলক। যা সচেতন কোন মানুষের কাম্য নয়। একটি ভূল বুঝাবুঝি আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান সম্ভব থাকলেও জেলা প্রশাসন সম্পূর্ণ হটকারীমূলকভাবে বিজ্ঞ ৭ আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। শুধু তাই নয়, পত্রিকাগুলোতে অসত্য তথ্য পরিবেশন করে সংবাদ প্রকাশ করছে।
মঙ্গলবার ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম অতিবাহিত হওয়ার পর সুষ্ঠ সমাধান না হওয়ায় দুপুর ২ টা থেকে সন্ধা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত সাড়ে ৪ ঘন্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠক শেষে আবারো ৪২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেয় দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি। আইনজীবীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত সৃষ্ট ঘটনা সুরাহার জন্য তারা জেলা প্রশাসনের সাথে কোন বৈঠকে বসবেনা। এছাড়াও সৃষ্ট ঘটনাকে কেন্দ্র করে পৃথক ৩টি কমিটি গঠনও করেছে আইনজীবীরা।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful