Templates by BIGtheme NET
আজ- রবিবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০ :: ১০ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৮ : ৩৮ পুর্বাহ্ন
Home / গাইবান্ধা / গাইবান্ধার ৫ টি আসনে জোট-মহাজোটের মাঠদখলের প্রস্তুতি

গাইবান্ধার ৫ টি আসনে জোট-মহাজোটের মাঠদখলের প্রস্তুতি

parlament electionস্টাফ রিপোর্টার: ঘনিয়ে আসছে ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। গাইবান্ধার ৭ উপজেলার ৫টি আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের প্রচার-প্রচারণা এখন তুঙ্গে। সভা-সমাবেশ ও জনসংযোগ অব্যাহত রয়েছে। সম্ভাব্য প্রার্থীদের ছবি সম্বলিত ডিজিটাল পোস্টার-প্যানাফ্লেক্সে-বিলবোর্ডে ছেয়ে গেছে শহর-গ্রামীণ জনপথ। তবে এক্ষেত্রে তরুণরাই এগিয়ে রয়েছেন। নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৫টি আসনে মহাজোট জয় পায়। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ ৩টি আসন ও জাতীয়পার্টি পায় ২টি আসন। নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের অনিয়ম-দুর্নীতি ও নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় চরম আকার ধারণ করে দলীয় কোন্দল। ঈদের পর জোট এবং মহাজোটের মাঠদখলে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে।

এছাড়া দলীয় মনোনয়ন লাভে জোট-মাহাজোটের সম্ভাব্য প্রার্থীদের হাইকমান্ডে চলছে তদবির, লবিং ও গ্রুপিং। তবে মহাজোটের দলীয় কোন্দল নিরসন না হলে ৫ আসনেই ১৮ দলীয় জোটের বিজয় নিশ্চিত।

গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ):  জেলার গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে জাতীয় পার্টির(জাপা) বর্তমান সংসদ সদস্য কর্নেল (অব.) ডা. আবদুল কাদের খান, সুন্দরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা জাপা সভাপতি ওয়াহেদুজ্জামান সরকার বাদশা, ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, আবদুর সরকার ডাবলু ও নওশের আলী এলাকায় প্রচার শুরু করেছেন।

অন্যদিকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন, জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম জিন্নাহ, উপজেলা বিএনপি সভাপতি মোজাহারুল ইসলাম, বাসদের বীরেন চন্দ্র শীল এবং জেলা জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির ও সাবেক এমপি মাওলানা আবদুর আজিজ মনোনয়ন প্রত্যাশী।

গাইবান্ধা-২(সদর): গাইবান্ধা-২(সদর) আসনে আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য মাহবুব আরা বেগম গিনি, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট সৈয়দ শামস-উল আলম হিরু, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক দল থেকে মনোনয়ন চাইবেন।

জেলা বিএনপি সভাপতি আনিসুজ্জামান খান বাবু, সাধারণ সম্পাদক গাওছুল আযম ডলার, বিএনপি নেতা কমোডোর শফিক-উর রহমান, সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের মোর্শেদ হাবীব সোহেল, জেলা জিয়া পরিষদের সদস্য সচিব খন্দকার আহাদ আহমেদ, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট হামিদুল হক ছানা এবং সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি এবং জেলা জাপা সভাপতি আবদুর রশীদ সরকার মনোনয়ন প্রত্যাশায় এলাকায় প্রচার ও জনসংযোগ শুরু করেছেন। এ ছাড়া রয়েছেন আওয়ামী লীগের আমিনুরজামান রিংকু, বর্তমান এমপির ভাই শামসুর রহমান টুটুল।

গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী): গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য ড. টিআইএম ফজলে রাব্বি চৌধুরী, ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী, সাদুল্যাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ডা. ইউনুস আলী সরকার, সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার খান বিপ্লব, সাদুল্যাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যক্ষ জাকারিয়া খন্দকার, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি, জাসদের কেন্দ্রীয় নেতা ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খাদেমুল ইসলাম খুদি, প্রধান মন্ত্রীর ভাসুর পুত্র  ইঞ্জিনিয়ার সাঈদ রেজা শান্ত, মহাজোট থেকে মনোনয়ন চাইবেন।

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক রফিকুল ইসলাম রফিক, ড. মইনুল হাসান সাদিক, বিএনপি নেতা জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট ফরহাদ হোসেন নিয়ন, জামায়াতে ইসলামীর মাওলানা নজরুল ইসলাম ও জাতীয় পার্টি (জেপি) থেকে অ্যাডভোকেট ফজলে করিম আহম্মেদ পলব মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে পোস্টার, ব্যানার টানিয়ে এবং সভা-সমাবেশ করে জনসংযোগ শুরু করেছেন।

গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ): গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য প্রকৌশলী মনোয়ার হোসেন চৌধুরী, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সিদ্দিক হোসেন চৌধুরী।

বিএনপি থেকে সম্ভাব্য প্রার্থী গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা বিএনপি সভাপতি আবদুল মান্নান মন্ডল, বিএনপি নেতা ও সাবেক সংসদ সদস্য শামীম কায়সার লিংকন, এডভোকেট ওবায়দুল হক সরকার, ড্যাব নেতা ডা. ইকবাল হাসান, স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় নেতা আমিনুল ইসলাম। জামায়াতে ইসলামী জেলা আমির ডা. আবদুর রহিম সরকার, জাতীয় পার্টি থেকে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা জাপা সভাপতি ও সাবেক এমপি লুৎফর রহমান চৌধুরী এবং আলী মাহবুব তালুকদার মনোনয়ন চাইবেন।

গাইবান্ধা- ৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা): গাইবান্ধা- ৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে আওয়ামী লীগ থেকে বর্তমান সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহসম্পাদক মাহমুদ হাসান রিপন সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে এলাকায় কাজ করছেন। বিএনপি থেকে হাসান আলী সরকার, সাঘাটা উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আবদুলাহ আকন্দ, সাবেক ছাত্রনেতা মনোনয়ন প্রত্যাশী।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful