Templates by BIGtheme NET
আজ- বুধবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ :: ৩০ কার্তিক ১৪২৫ :: সময়- ৪ : ০৯ পুর্বাহ্ন
Home / রংপুর / রংপুর চিড়িয়াখানা: এখনও শিশুরা খোঁজে ইরাবতিকে

রংপুর চিড়িয়াখানা: এখনও শিশুরা খোঁজে ইরাবতিকে

 রবিউল ইসলাম দুখু: মিঠাপুকুর উপজেলার চাকরিজীবী আলম চৌধুরী তার ৫ বছরের ছেলে রিয়াদ মিয়াকে নিয়ে রংপুর চিড়িয়াখানায় যান। প্রথমেই ছেলেকে নিয়ে ছুটেন ডলফিনের দিকে। লেকের কাছে গিয়ে দেখেন স্বচ্ছ পানি আছে, আছে মাছ, নেই ডলফিন।
তারাগঞ্জের ওলিয়ার রহমান তার ৬ বছরের ভাগ্নিœ তিন্নিকে নিয়ে ডলফিন দেখতে যান। তিনিও চিড়িয়াখানার প্রবেশদ্বার পার হয়েই ডলফিনের লেকের কাছে যান ভাগ্নিকে নিয়ে।
এই দুই শিশুর মত আরো অনেক শিশুই এখনও ডলফিনের খোঁজে চিড়িয়াখানায় ছুটে বাবা -মার সাথে।
চিড়িয়াখানা সূত্রে জানা যায়, দুই সপ্তাহ আগে সকালে ডলফিনের খাবার ( মাছ) দেয়ার জন্য যান। এসময় দেখেন ডলফিনটি পানির ওপরে ভেসে উঠেছে। ওপরে উঠানোর পর দেখেন মারা গেছে। পরে মৃত ডলফিনটি চিড়িয়াখানার ভেতরে গর্ত করে পুুঁতে রাখেন।
কর্মচারী নজরুল ইসলাম জানান, ধরার পর দীর্র্ঘ সময় পানির ওপর থাকার কারনে এবং আঘাত পাওয়ার কারনেই রক্ষা করা গেল না ডলফিনটিকে। তিনি আরো জানান, ডলফিনটি নিয়ে আসার পর দর্শনার্থীর ঢল নেমেছিল।
গত একমাস আগে কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাটের ছিনাই ইউনিয়নের বড়গ্রাম এলাকায় জেলেদের জালে আড়াই মণ ওজনের ডলফিনটি উঠে আসে। জেলেরা একটু বেশি আয়ের আশায় ডলফিনটি বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয়। বিক্রির উদ্দেশ্যে জাল থেকে তুলে ভ্যানগাড়িতে উঠিয়ে রশি দিয়ে বাঁধা হয় ডলফিনটি। কিছু দূর যাওয়ার পর এটি নজরে আসে কয়েকজন যুবকের। ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে তারা কিনে নেয় সেই ডলফিন। তারা সেটি ছিনাই বাজারে নিয়ে যায়। ধরলায় ধরা পড়া ডলফিন বাজারে প্রদর্শিত হচ্ছে এমন খবরে ছুটে যান রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাশেদুল হক প্রধান। পরে তিনি যোগাযোগ করেন রংপুর চিড়িয়াখানায় । গাড়ি ও জনবল নিয়ে চলে যান চিড়িয়াখানার লোকজন।
রংপুর চিড়িয়য়াখানর জ্যু অফিসার ডা: এইচ এম শাহাদাৎ শাহিন জানান, দীর্ঘক্ষণ পানির বাইরে থাকা এবং ভ্যান গাড়িতে করে বেঁধে পরিবহনের ফলে ডলফিনটি দুর্বল হয়ে পড়েছিল। সর্বোচ্চ চেষ্টায় এটিকে বাঁচানোর চেষ্টা করা হয়েছিল।
এছাড়াও ডলফিনটি গর্র্ভবতী ছিল। গর্ভবতী থাকা অবস্থায় পেটে আঘাত পাওয়ার কারনে ধরার কিছুক্ষণের মধ্যে বাচ্চা মারা যায়। সেই অবস্থায় নিয়ে আসা হয চিড়িয়াখানায়। তার পরেও বাঁচিয়ে রাখার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা করা হয়। অবশেষে গত দুই সপ্তাহ আগে মারা যায় বিলুুপ্ত প্রায় ডলফিনটি।
উল্লেখ্য-এই চিড়িয়াখানায় সিংহ, রয়েল বেঙ্গল টাইগার,চিতা বাঘ, জলহস্তি, হয়েনা, কাল ভাল্লুক, বানর বেনবু, হরিণ, ময়না, টিয়া, কাঠবিড়ালী, বিদেশী কুকুর, ঘোড়া, গাধা,ঈগল, শকুন, সারস, বক, ঘড়িয়াল এবং অজগরসহ ২৬ প্রজাতির পাখ-পাখালির রয়েছে। সর্বশেষ এই ডলফিনটি নিয়ে আসা হয়েছিল।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful