Templates by BIGtheme NET
আজ- বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০ :: ১৪ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৪ : ৪২ পুর্বাহ্ন
Home / আলোচিত / বিক্ষোভে উত্তাল রংপুর; অচল করে দেয়ার হুমকি

বিক্ষোভে উত্তাল রংপুর; অচল করে দেয়ার হুমকি

Rangpur Photo (2) (BNP Bikhove )09-11-2013ফরহাদুজ্জামান পারুক, রংপুর প্রতিনিধি: দুই মৃত নেতা, সভাপতি সেক্রেটারীসহ যুবদল নেতাদের নামে মামলা প্রত্যাহার এবং শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে শনিবার দুপুরে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠে রংপুর। বিক্ষোভ শেষে সমাবেশে বিএনপির জেলা আহবায়ক মোজাফ্ফর হোসেন বলেন, ইনু ঢোকা খুটি। সেই খুটি সরে গেলে উপরের ঘর আর থাকবে না। খোলস ছেড়ে বাইরে আসুন। দেখুন কতটি ভোট আপনি পাবেন। নেতাকর্মীদের গ্রেফতার, হয়রানী বন্ধ করা না হলে রংপুর অচল করে দেয়া হবে।

দুপুরে নগরীর গ্রান্ড হোটেল মোড় থেকে পৃথক পৃথক ভাবে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দল বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে। এতে মিছিলে মুহুমুর্হ সরকার বিরোধী শ্লোগানে উত্তাল হয়ে উঠে রংপুর। পরে সব মিছিল পায়রা চত্বরে একত্রিত হয়ে সমাবেশ করে। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফ্ফর হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক সামসুজ্জামান সামু, শহিদুল ইসলাম মিজু, সুলতানুল আলম বুলবুল, জেলা যুবদল সহ-সভাপতি নাজমুল আলম নাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক সামসুল হক ঝন্টু, ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মাহফুজ উন নবী ডন, স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক আব্দুস সালাম, ছাত্রদল সম্পাদক মনিরুজ্জামান হিজবুল, কৃষক দলের সভাপতি হাজী আবু তাহের, অধ্যাপক মোজাফ্ফর হোসেন, গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা ৮৪ ঘন্টার হরতাল সর্বাত্মকভাবে পালনের আহবান জানিয়ে বলেন পুলিশ ৪৬ জন যুবদল নেতার নাম উল্লেখ করে মামলা করেছে। এরমধ্যে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত জেলা যুবদলের সহ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মিলনকে ১৪ নম্বর এবং জেলা সদস্য হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত আপেল মাহমুদকে ৪১ নম্বর আসামী করেছে। মৃত ব্যাক্তির নামে আসামী করার মধ্য দিয়ে পুলিশ প্রমাণ করেছে বিএনপি হলেই তার নামে মামলা । তাকে গ্রেফতার । সে মারা যাক, পঙ্গু হোক আর বিদেশে থাকুক। এই অত্যাচার চলতে দেয়া হবে না।

জেলা যুবদলের সহ সভাপতি নাজমুল ইসলাম নাজু জানান, শীর্ষনেতাদের গ্রেফতারের পর থেকেই শুক্রবার রাতে যুবদলের নেতাকর্মীদের বাসাবাড়ির সামনে অবস্থান নেয় পুলিশ। জুম্মাপাড়ায় জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন আলমগীরের বাসায় পুলিশ তল্লাশী চালায়। পুলিশের এই অবস্থান ও তল্লাশীতে এলাকায় এবং পরিবারের মধ্যে আতংক ও ভীতি ছড়িয়ে পড়ে। তিনি বলেন, গ্রেফতার তল্লাশী টহল দিয়ে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন থেকে নেতাকর্মীদের নিবৃত করা যাবে না। আন্দোলন আরও জোড়দার হবে।

জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সামসুজ্জামান সামু জানান, শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতারের মাধ্যমে প্রমাণ হয়ে গেছে সরকারের পতনের শেষ সীমান্তে এসে পৌছেছে। এখন শুধু অপেক্ষার পালা। আন্দোলনের মাধ্যমেই অবৈধ সরকারের পতন ঘটাবো। তিনি আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে টহল ও তল্লাশীর নামে জনমনে ভীতি সঞ্চার না করার আহবান জানান।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful