Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯ :: ৬ কার্তিক ১৪২৬ :: সময়- ৬ : ২০ পুর্বাহ্ন
Home / রংপুর বিভাগ / ভোটদানের প্রথম সুযোগ বিলুপ্ত ছিটমহলের ২২ হাজার ভোটারের

ভোটদানের প্রথম সুযোগ বিলুপ্ত ছিটমহলের ২২ হাজার ভোটারের

জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না, লালমনিরহাট: দীর্ঘ প্রায় সাত দশক পর নাগরিকত্বের স্বীকৃতি পাওয়া ১১১টি ছিটমহলের প্রাপ্তবয়স্করা জীবনের প্রথম সংসদ নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে যাচ্ছেন। এ নিয়ে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা যেমন আছে, তেমনি আছে তাদের নানা প্রত্যাশা।
দীর্ঘ বঞ্চনার অবসান ঘটিয়ে নাগরিক মর্যাদা দেয়ার জন্য বর্তমান সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞ বিলুপ্ত এসব ছিটমহলের বাসিন্দা। ফলে আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে অধিকাংশ ভোট মহাজোটের বাক্সেই যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভোটারদের সঙ্গে কথা বলেও তেমন ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।
বিলুপ্ত ১১১টি ছিটমহলের মধ্যে কুড়িগ্রামে পড়েছে ১২টি। এখানেই রয়েছে বৃহত্তম ছিটমহল দাসিয়ার ছড়া। এখানে মোট ভোটার ৩ হাজার ১৭২ জন। এর মধ্যে অর্ধেকই নারী। ফুলবাড়ী উপজেলার এ ছিটমহল কুড়িগ্রাম-২ আসনের মধ্যে। ২০১৫ সালে ছিটমহল বিনিময়ের পর এখানে রাস্তাঘাটসহ ব্যাপক অবকাঠামোর উন্নয়ন হয়েছে।
আসনটিতে আটজন প্রার্থীর মধ্যে মহাজোটের পনির উদ্দিন আহমেদ (লাঙল) ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে গণফোরাম নেতা আমসা আমিনের (ধানের শীষ) মধ্যেই মূলত প্রতিদ্বন্দিতা হবে। নির্বাচনী প্রচারণায় মহাজোট প্রার্থী উন্নয়ন অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রæতি দিচ্ছেন।
তবে বাংলাদেশ-ভারত ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির (বাংলাদেশ অংশের) সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বলছেন, তারা একটি সুষ্ঠু নির্বাচন চায়। দাসিয়ার ছড়াকে ইউনিয়ন ঘোষণার দাবিও তাদের। পাশাপাশি এখানকার বেকার সমস্যাও অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেখতে হবে বলে জানান তিনি। কুড়িগ্রামের বাকি ১১টি ছিটমহল ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় কুড়িগ্রাম-১ আসনে পড়েছে। এখানে ভোটার সংখ্যা খুবই কম।
এদিকে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম, হাতীবান্ধা ও সদর উপজেলার বিলুপ্ত ৫৯ ছিটমহলের বসবাসরত ভোটাররা ভোটের জন্য আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছেন। তারা এরই মধ্যে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ভোটও দিয়েছেন। তবে জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বেশ রোমাঞ্চিত ‘নতুন ধরনের প্রথম’ ভোটাররা।
লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক সূত্রে জানা গেছে, ৫৫টি বিলুপ্ত ছিটমহলের মধ্যে জনবসতি থাকা ৩৬টি ছিটমহলের ভোটাররা আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটদানের সুযোগ পাচ্ছেন। এখানে মোট ভোটার ৭ হাজার ৭৭২ জন।
একাধিক বিলুপ্ত ছিটমহলের বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তাদের যা কিছু সব শেখ হাসিনার সরকারই দিয়েছে। সেই কৃতজ্ঞতা থেকেই তারা মহাজোটের প্রার্থীকে ভোট দিতে চান। আর বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে এবারই তারা প্রথম ভোট দিতে পারছেন। তারা এ আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করতে পারছেন না।
অন্যদিকে পঞ্চগড়ের বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীও ভোট নিয়ে উদগ্রীব। এখানে পঞ্চগড়-১ আসনের সাতটি ছিটমহলে ভোটার সংখ্যা ১ হাজার ২৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫২৭ জন এবং নারী ভোটার ৪৯৮ জন। পঞ্চগড়-২ আসনের ২৯টি ছিটমহলে ভোটার সংখ্যা ৬ হাজার ২২০। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৩ হাজার ২৭৫ জন এবং নারী ভোটার ২ হাজার ৯৪৫ জন।
উল্লেখ্য, দীর্ঘ ৬৮ বছরের বঞ্চনার পর ২০১৫ সালের ৩১ আগস্ট মধ্যরাতে বাংলাদেশ-ভারত ছিটমহল বিনিময় হয়। এতে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পায় কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, নীলফামারী ও পঞ্চগড় জেলার ১১১টি ছিটমহলের ৩৭ হাজার ২৬৯ জন। এসব ছিটমহলে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে প্রায় ২২ হাজার মানুষ। এর মধ্যে দেশের সর্ববৃহৎ ছিটমহল দাসিয়ার ছড়ায় ভোটার সংখ্যা ৩ হাজার ১৭২ জন। ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে প্রথমবারের মতো ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন ছিটমহলের এ ভোটাররা।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful