Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ২৪ অগাস্ট, ২০১৯ :: ৯ ভাদ্র ১৪২৬ :: সময়- ১০ : ৪৯ পুর্বাহ্ন
Home / জাতীয় / আওয়ামী লীগের নারী এমপি কারা

আওয়ামী লীগের নারী এমপি কারা

 একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য কারা হচ্ছেন তা জানা যাবে আজ শুক্রবার। বিকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলটির স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় সংরক্ষিত এমপিদের তালিকা চূড়ান্ত হবে। এর পর যে কোনো সময় এটি ঘোষণা করা হবে।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটে প্রাপ্ত সংসদীয় আসনের সংখ্যানুপাতে এবার আওয়ামী লীগ পাবে ৪৩টি সংরক্ষিত আসন। প্রতিআসনের বিপরীতে একজন করেই মনোনয়ন দিচ্ছে দলটি। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, এই ৪৩ জনের মধ্যে ৪০ জনই প্রথমবারের মতো মনোনীত হতে চলেছেন। পুরনো এমপিদের মধ্যে সর্বোচ্চ দুই-তিনজনকে দেখা যেতে পারে একাদশ সংসদে।
আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, মনোনয়নের ক্ষেত্রে দলের প্রতি ত্যাগকেই বড় যোগ্যতা হিসেবে দেখা হচ্ছে। কেন্দ্রীয় নেত্রীদের চেয়ে বেশি প্রাধান্য পাচ্ছেন জেলা পর্যায়ের মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগের নেত্রীরা। দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগ করছেন অথচ আলোচনায় নেই, এমন পরিবার থেকেও কয়েকজন আসছেন সংরক্ষিত আসনে। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী মহাজোটের শরিকদের মধ্য থেকেও দুয়েকজনকে এবারও সংরক্ষিত আসনের এমপি বানাবেন জোটনেত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ
কয়েকজন নেতা জানান, পুরনোদের মধ্যে আওয়ামী লীগের নারীবিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা এবারও সংরক্ষিত আসনের এমপি হচ্ছেন। তিনি গত দুই সংসদেও এ আসনের এমপি ছিলেন। গত সংসদের এমপি চট্টগ্রামের ওয়াসেকা আয়শা খান এবারও মনোনয়ন পাচ্ছেন। তার বাবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতিম-লীর সদস্য আতাউর রহমান খান দলের দুঃসময়ের নেতাদের একজন।
আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নারীনেত্রীদের মধ্যে সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন পেতে পারেন আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আহমেদ। তবে বরিশাল থেকে সাবেক সংসদ সদস্য জেবুন্নেসা হিরণের জন্য জোর চেষ্টা চালাচ্ছেন বরিশাল আওয়ামী লীগের একজন প্রভাবশালী নেতা। এ জেলার মনোনয়নের বিষয়টি এখনো সুরাহা হয়নি। নোয়াখালী থেকে মনোনয়ন পেতে যাচ্ছেন মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা ফরিদা খানম সাকী। তার স্বামী নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বেলায়েত হোসেন। কক্সবাজার থেকে কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খান বাহাদুর মোস্তাক আহমেদ চৌধুরীর স্ত্রী কানিজ ফাতেমা মনোনয়ন পেতে পারেন। ঝিনাইদহ থেকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মেরিনা জামান কল্পনাও রয়েছেন বিবেচনায়। তিনি আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতিম-লীর সদস্য কামরুজ্জামানের মেয়ে। জামালপুর থেকে গত দুই সংসদে সংরক্ষিত আসনের এমপি ছিলেন মাহজাবিন খালেদ। এবার তার মনোয়ন পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। সেক্ষেত্রে এ জেলা থেকে এবারও মনোনয়ন দেওয়া হলে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য, সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী মারুফা আক্তার পপির সম্ভাবনা বেশি। নেত্রকোনা থেকে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ফজলুর রহমানের মেয়ে জেলা মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবীবা রহমান শেফালী, রাজশাহী জেলা মহিলা লীগের সভাপতি মর্জিনা পারভীন এবং টাইঙ্গাইল-২ আসনের সাবেক এমপি খন্দকার আসাদুজ্জামানের মেয়ে অপরাজিতা হক, রংপুর থেকে পেতে পারেন জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক রোজি রহমান ও চট্টগ্রাম উত্তর আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি রফিকুল আনোয়ার খানের মেয়ে খাদিজাতুল আনোয়ার সনি মনোনয়ন পেতে পারেন। এ ছাড়া পাকিস্তান গণপরিষদে প্রথম মাতৃভাষা বাংলার দাবি উত্থাপনকারী শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের নাতনি এরমা দত্ত মনোনয়ন পেতে পারেন। এবার বিপুলসংখ্যক শিল্পী-অভিনেত্রী মনোনয়নপ্রত্যাশা করলেও দলটি বেছে নিতে পারে সদ্য একুশে পদকপ্রাপ্ত অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফাকে।
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রাজ্জাক বলেন, সংরক্ষিত আসনে কারা আসছেন এর একটা ইঙ্গিত ইতোমধ্যে আমাদের দলের সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, যারা সংসদে এবং সংসদের বাইরে অবদান রাখতে পারবেন তাদেরই নির্বাচন করা হচ্ছে। আশা করছি বেশ কিছু মেধাবী মুখ আমরা সংরক্ষিত আসনে দেখতে পাব।
এবার সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন এক হাজার ৫১০ জন। ১৫ থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত ফরম বিক্রি করে দলটি। আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতিতে এবার আওয়ামী লীগ ৪৩টি, জাতীয় পার্টি ৪টি, বিএনপি ১টি, অন্যান্য দল ১টি (ওয়ার্কার্স পার্টি) ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জোটভুক্ত হয়ে ১টি সংরক্ষিত আসন পাবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful