Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯ :: ৬ কার্তিক ১৪২৬ :: সময়- ৫ : ৩৭ পুর্বাহ্ন
Home / নীলফামারী / চরম অব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে সৈয়দপুর থিম পার্কের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

চরম অব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে সৈয়দপুর থিম পার্কের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি ২১ ফেব্রুয়ারি॥ চরম অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খল পরিবেশের মধ্য দিয়ে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত শিশু-কিশোর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হয়েছে। নীলফামারীর সৈয়দপুরের শিশু বিনোদন কেন্দ্র ‘সৈয়দপুর থিম পার্ক’ এর আয়োজনে আজ বৃহস্পতিবার(২১ ফেব্রুয়ারী) সকালে সৈয়দপুর থিম পার্কে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সৈয়দপুরের ৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ আশেপাশের আরও প্রায় ২০টি প্রতিষ্ঠানের মোট ১ হাজার শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে।
প্লে শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র-ছাত্রীরা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে উপস্থিত হয়ে চিত্রাংকনের সুযোগ পায়। সকাল থেকেই থিম পার্র্কের পুরোটা জুড়ে শিক্ষার্থী-অভিভাবক, শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ভীড় জমে যায়। পরে পার্কের সুইমিং পুল ঘিরে চারপাশে শিশুদের খোলা আকাশের নিচে মেঝেতে শুধুমাত্র একটি ডেকোরেশনের পর্দা বিছিয়ে দিয়ে ড্রয়িং করতে দেয়া হয়। একে একে শিশুদের প্রবেশের ফলে সুইমিং পুল এলাকা ভরে গেলে বাকি শিশুদের পাশের র‌্যাসিং কার জোনের কার চালানোর রাস্তার উপর কোন কিছু না বিছিয়েই বসানো হয়। এখানে শিশুরা খোলা আকাশের নিচে প্রখর রৌদ্রের মধ্যে অংকন করতে থাকে।
দীর্ঘ প্রায় ২ ঘন্টা এভাবে রোদের তাপ আর নিচের বিছানাহীন পাকার ঠান্ডায় চরম দূরবস্থার মধ্যেই প্রতিযোগিতার জন্য অংকন করতে বাধ্য হয়। এসময় অনেক শিশু ঘেমে একাকার হয়ে পড়নের সোয়েটার খুলে ফেললেও তাদের পায়ে ঠান্ডা লাগায় অস্বস্থি বোধ করতে থাকে। এমন পরিস্থিতির মধ্যেই শিশুরা তাদের অংকন শেষ করে। প্রথম পর্যায়ে প্রায় ৬ শতাধিক অংশগ্রহণকারী অংকন শেষ করার পর দ্বিতীয় পর্যায়ে আরও প্রায় ৪ শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। এভাবে ১ হাজার শিক্ষার্থীর অংকন প্রতিযোগিতা চলার সময় গরমে অতিষ্ঠ হয়ে ভলেন্টিয়াররা একটু পর পরই ছায়ায় এসে অবস্থান করলেও শিশুদের জন্য কোন রকম ব্যবস্থা না থাকায় অনেকটা দুর্ভোগ পোহাতে হয় তাদের। তাছাড়া অনেক বহিরাগত লোকজনও শিশুদের চিত্রাংকনের স্থানে প্রবেশ করে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করে। সেসাথে অনেক অভিভাবক তাদের শিশুদের সহযোগিতা করার জন্যও সেখানে প্রবেশ করে। এতে অন্য অভিভাবকরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠলে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এসময় কর্তৃপক্ষের কোন নজরদারী না থাকায় পরিস্থিতি আরও বেশি অব্যবস্থাপনার শিকার হয়। তাছাড়া এসময় পার্কের রাইডগুলো বন্ধ না রাখায় শব্দ দূষণের সৃষ্টি হয়। যা শিশুদের অংকনের ক্ষেত্রেও প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। এতে অনেক অভিভাবক রাইডগুলো বন্ধ রাখার জন্য বললে সংশ্লিষ্টরা তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করে বলেও উপস্থিত অভিভাবকরা অভিযোগ করেন।
বিকাল ৩টার দিকে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষণা করা এবং পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম গোলাম কিবরিয়া। বিশেষ অতিথি ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার।
অব্যবস্থাপনার বিষয়ে সৈয়দপুর থিম পার্কের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর আবুল বাশার মোঃ সাঈদ বলেন, আয়োজনটা মূলত আপনাদের জন্যই করা হয়েছে। অব্যবস্থাপনা থাকলেও কোন দূর্ঘটনা তো ঘটেনি। তাতে অসুবিধা কি হয়েছে। প্রতিযোগি শিশুদের মধ্যে তো আমার সন্তানও ছিল। অন্যরা খোলা আকাশের নিচে খালি মেঝেতে বসে ছবি অংকন করলে সমস্যা কি। কেউ তো আর অসুস্থ হয়নি।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful