Templates by BIGtheme NET
আজ- রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯ :: ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ :: সময়- ১২ : ৫৩ অপরাহ্ন
Home / রংপুর / রংপুর মেডিকেলের ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি স্থগিত

রংপুর মেডিকেলের ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি স্থগিত

মমিনুল ইসলাম রিপন: কর্মস্থলে নিরাপত্তাসহ ৫ দফা দাবীতে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি স্থগিত করেছে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বৈঠক করে দাবীগুলো মেনে নেবার আশ্বাস দিলে তারা এ সিদ্ধান্ত নেয়।
ইন্টার্ণ চিকিৎসক পরিষদ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রোগীর স্বজন দ্বারা ইন্টার্ণ চিকিৎসকদের লাঞ্ছিত করা ও ইন্টার্ন চিকিৎসকের কক্ষে আসবাবপত্র তছনছ করার প্রতিবাদে নিরাপত্তাসহ ৫ দফা দাবীতে মঙ্গলবার সকাল থেকে কর্মবিরতি শুরু করে ইন্টার্ণ চিকিৎসক পরিষদ। এতে করে হাসপাতালে রোগীরা পড়েন চরম বিপাকে। কাঙ্খিত সেবা না পেয়ে অনেক রোগী হাসপাতাল ছেড়ে নগরীর অন্য চিকিৎসা কেন্দ্রে চলে যান। এছাড়া রোগীদের সেবা দিতে হাসপাতালের মিড লেভেলের চিকিৎসকদের উপর চাপ বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
এনিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালের কনফারেন্স রুমে ইন্টার্ণ চিকিৎসকদের সাথে বৈঠকে বসেন হাসপাতাল পরিচালক ডাঃ অজয় কুমার রায়, ইন্টার্ণ চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ডাঃ মোঃ আব্দুল হাই সিদ্দিকী সোহাগ, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের জেলা ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ডাঃ সারোয়াত হোসেন চন্দন, বিএমএ’র রংপুর জেলার সেন্ট্রাল কাউন্সিলর ডাঃ জামাল উদ্দিন মিন্টু। বৈঠকে হাসপাতাল ক্যাম্পাসে পুলিশ বক্স স্থাপন, হৃদরোগ বিভাগের ওই আনসারকে বদলী করা, ইন্টার্ণ চিকিৎসককে লাঞ্ছিতকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করা এবং অন্যান্য দাবীপূরণের ফলপ্রসু আলোচনার প্রেক্ষিতে কর্মবিরতি তুলে নেয়া হয়।
ইন্টার্ণ চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ডাঃ মোঃ আব্দুল হাই সিদ্দিকী সোহাগ বলেন, আমাদের দাবীর প্রেক্ষিতে ক্যাম্পাসে পুলিশ বক্স স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া সহকর্মীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় আমরা দোষীদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি। সেটির কোন অগ্রগতি যদি সন্তোষজনক না হয় তবে আবার আমরা কর্মবিরতিতে যাব। এছাড়া ইন্টার্ন হোস্টেল থেকে হাসপাতাল আসার রাস্তাটিতে আনসার নিয়োগ করার আশ্বাস দিয়েছেন হাসপাতাল পরিচালক। আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্ম দিবস থেকে হাসপাতালে রোগীদের সাথে ২ জন করে স্বজনদের পাশ দেয়া হবে। পাশ অনুযায়ী তারা রোগী কাছে থাকতে পারবেন। এতে করে হাসপাতালে মানুষের চাপ করবে এবং এ ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটবে না।
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ অজয় কুমার রায় বলেন, ইন্টার্ন চিকিৎসকদের সাথে সৌহায্যপূর্ণ পরিবেশে আলোচনা করা হয়েছে। তারা সার্বিক দিক বিবেচনা করে তাদের আন্দোলন স্থগিত করেছে। ক্রমান্বয়ে তাদের দাবীগুলো মানা হবে।
উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার ভোরে রহিমা খাতুন (৯৫) নামে এক বৃদ্ধা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলে রোগীর স্বজন দ্বারা ইন্টার্ণ চিকিৎসকরা লাঞ্ছিত হয়। সেই সাথে তাদের আসবাবপত্র তছনছ করে। এরই প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকালে হাসপাতাল পরিচালক কার্যালয় ঘেরাও করে ২৪ ঘন্টার মধ্যে পুলিশ বক্স স্থাপন, দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ, জরুরি বিভাগে নিরাপত্তা বাড়ানো, হোস্টেলে নিরাপত্তা ও চিকিৎসা বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করাসহ ৫ দফা দাবীতে স্মারকলিপি দেন তারা এবং দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করার ঘোষনা দেন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful