Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ :: ৮ আশ্বিন ১৪২৬ :: সময়- ৯ : ৫৬ অপরাহ্ন
Home / ক্যাম্পাস / গৌরবময় ও ঐতিহ্যের ৬৬তম বছরে রাজশশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

গৌরবময় ও ঐতিহ্যের ৬৬তম বছরে রাজশশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাবি প্রতিনিধি: ‘শিক্ষা, শান্তি, প্রগতির ধারা আজও আমাদের সাথী, অবিরাম এই চলার ছন্দে আমরা আলোর জ্ঞাতি’র এই স্লোগানকে সামনে রেখে নানা অয়োজনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

শনিবার (৬জুলাই) সকাল ১০টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশন, পতাকা উত্তোলন, শোভাযাত্রা, বৃক্ষরোপণসহ নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে দিবসটিকে বরণ করে নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এ দিন সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসন ভবনের সামনে বেলুন, ফেস্টুন ও কবুতর অবমুক্ত করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান।

‘গৌরবের ৬৬ বছর’ শীর্ষক কর্মসূচির উদ্বোধন শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অংশগ্রহণে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রশাসন ভবনের সামনে এসে শেষ হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. আব্দুস সোবহান বলেন, ‘এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহু শিক্ষার্থী বের হয়েছেন যারা দেশ বিদেশে অনেক বড় অবস্থানে আছেন। তারা দেশের জন্য কাজ করছেন। আমরা আশা করি, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় হবে বাংলাদেশের পথিকৃত বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয় হবে দেশের শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয়। এখান থেকে বিশ্বমানের নাগরিক বের হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় চত্তর যত বেশি নান্দনিক আর সুন্দর হবে শিক্ষার্থীদের মন ততো সুন্দর হবে। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা স্থাপনা আর সৌন্দর্য্য বৃদ্ধির কাজ চলছে। শিক্ষার্থীদের আবাসিক সমস্যা দূর করার জন্য ১০তলা বিশিষ্ট দুইটি আবাসিক হল নির্মাণ করা হচ্ছে।’

উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নতি ঘটাতে হলে বর্তমান সরকারের গৃহিত ভিশন ২০৪১ এবং ডেলটা প্লানের সাথে তাল মিলিয়ে পরিকল্পনা গ্রহন করতে হবে। এ লক্ষ্যে আমরা ৫০ বছর মেয়াদী মাস্টার প্লান গ্রহন করেছি। তিনি সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতায় এসব কার্যক্রম বাস্তবায়নের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।’

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন কমিটির সদস্য-সচিব ছাত্র-উপদেষ্টা অধ্যাপক লায়লা আরজুমান বানুর সঞ্চালনায় সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এম এ বারী, সিন্ডিকেট সদস্য, অনুষদ অধিকর্তা, হল প্রাধ্যক্ষ, বিভাগীয় সভাপতি, প্রক্টর অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকারসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচিতে আরো রয়েছে, বিকেল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ কামাল স্টেডিয়ামে খেলাধুলা ও বিকাল সাড়ে ৫টায় শহীদ মিনার মুক্তমঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

উল্লেখ্য ১৯৫৩ সালের আজকের এই দিনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো বিশ^বিদ্যালয়টি। রাজশাহী কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অধ্যাপক ইতরাত হোসেন জুবেরীকে প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য নিয়োগ করে বিশ্ববিদ্যালয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে। ১৬১ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়।  বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ৯টি অনুষদের আওতায় ৫৮টি বিভাগ ও ৬টি গবেষনা ইনস্টিটিউট রয়েছে। প্রায় ৩৮ হাজার ২৩০জন হাজার শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছেন। বিদেশী শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৪ জন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful