Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ :: ৮ আশ্বিন ১৪২৬ :: সময়- ১০ : ১৬ অপরাহ্ন
Home / রংপুর / রংপুরে পানিবন্দি এলাকা পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক

রংপুরে পানিবন্দি এলাকা পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক

বাবুল মিয়া, গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি: উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল ও গত কয়েকদিন থেকে অব্যাহত ভারি বৃষ্টিতে তিস্তা নদীতে সৃষ্টি হয়েছে বন্যার। বর্তমানে তিস্তার পানি ডালিয়া পয়েন্টে বিপদ সীমার ১০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এতে উপজেলার তিস্তা নদী বিধৌত ৭টি ইউনিয়নের প্রায় ৫ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে হাজার হাজার একর ফসলী জমি, রাস্তাঘাটসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ ও মন্দির। পানিবন্দি পরিবারগুলো রান্না না করতে পেরে শুকনো খাবার খেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

এছাড়াও গবাদী পশু নিয়ে চরম দুর্ভোগে রয়েছে তারা। জানা যায় গত মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পেতে থাকে। বর্তমানে উপজেলার লক্ষীটারী ইউনিয়নের চর ইচলি, শংকরদহ, বাগেরহাট, জয়রাম ওঝা, চল্লিশশাল, কোলকোন্দ ইউনিয়নের চর মটুকপুর, চিলাখাল, বিনবিনা গঙ্গাচড়া সদরের ধামুর, মর্ণেয়া ইউনিয়নের ছোট রুপাই, রামদেব, কামদেব, নরসিংহ, নীলারপাড়, আলমবিদিতর ইউনিয়নের হাজীপাড়া, ব্যাঙপাড়া, নোহালী ইউনিয়নের মিনাবাজার, চর বাগডহড়া ও চর নোহালী গ্রামের প্রায় ৫ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এখন পর্যন্ত প্রশাসনের পক্ষ থেকে পানিবন্দি পরিবারগুলোকে সহযোগীতা করা হয়নি। এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার রংপুর জেলা প্রশাসক মোঃ আসিব আহসান পানিবন্দি লক্ষীটারী ইউনিয়নের চর ইচলি ও বাগেরহাট গ্রাম পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি পানিবন্দি লোকজনের সাথে কথা বলে তাদেরকে দ্রুতই প্রয়োজনীয় সহযোগীতার আশ্বাস দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গঙ্গাচড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসলীমা বেগম, গঙ্গাচড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মশিউর রহমান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকতা, লক্ষীটারী ইউ.পি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল হাদী প্রমুখ। পানিবন্দি লোকজনকে সহযোগীতার বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা বলেন শুকনো খাবার পর্যাপ্ত রয়েছে, তালিকা পেলে সরবরাহ করা হবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful