Templates by BIGtheme NET
আজ- বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০ :: ১৪ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ১১ : ০১ অপরাহ্ন
Home / বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি / শীত বস্ত্রের যত্ন-আত্তি

শীত বস্ত্রের যত্ন-আত্তি

Untitled-11ক্রমশই জেঁকে বসতে যাচ্ছে শীত। এর মোকাবেলায় দরকার প্রস্তুতি। এরই মাঝে বাজার ভরে উঠেছে শীতের নতুন পণ্যের সমাহারে। নতুন পোশাকের পাশাপাশি, কয়েকবছর ধরে ব্যবহার করা লিনেন বা উলের প্রিয় সোয়েটার, চামড়ার জ্যাকেট, মাফলার, কানটুপি, লেপ, কম্বল বা চাদর- এবারের শীতেও হতে পারে আপনার শীত নিবারণের সঙ্গী। ঘরের তুলে রাখা শীত কাপড় আর অনুষঙ্গগুলোর যত্ন এখনই শুরু করে দিন। কাপড়ের প্রকৃতিভেদে আছে যত্নে ভিন্নতা। আপনার পোশাকের ভিন্নতার ধরন বুঝে যত্ন নিতে চলুন জেনে নেওয়া যাক কিছু কৌশল।

লেদার: লেদারের কাপড় বাড়িতে পরিষ্কার না করে উপযুক্ত লন্ড্রিতে দিয়ে পরিষ্কার করিয়ে নিন। কয়েক বছর পরপর লেদার জামাকাপড়ের ভিতরের লাইনিং বদলানো জরুরি। লেদার যদি খুব পাতলা হয় তা হলে  হোয়াইট টিস্যুর প্যাডিং দিয়ে নিন। ব্লেজার বেশি রোদে দেয়া থেকে বিরত থাকুন।

পশমি কাপড়: পশমি কাপড়ে রং ওঠার সম্ভাবনা থাকলে তা রিঠার পানিতে ধুঁয়ে নিন। ধোয়ার সময় পানিতে সাদা কাপড়ের বেলায় লেবুর রস এবং রঙিন কাপড়ের বেলায় ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এতে কাপড়ের ঔজ্জ্বল্য ঠিক থাকবে। উলের কাপড় ধোয়ার সময় কখনোই ব্রাশ দিয়ে ঘষবেন না। ডিটারজেন্ট পানিতে কাপড় ভিজিয়ে কিছুক্ষণ পর দুই হাত দিয়ে কেচে নিন। এতে কাপড়ের ভেতর জমে থাকা ময়লা দূর হয়ে যাবে। উলের কাপড় ধুঁয়ে পানি নিংড়ানোর জন্য বড় আকৃতির তোয়ালের মধ্যে কাপড়টি জড়িয়ে দুই হাত দিয়ে চেপে পানি নিংড়িয়ে নিন। উল বা পশমি কাপড় এক ঘণ্টার বেশি সময় পানিতে ভিজিয়ে না রাখাই ভালো। উল বা পশমি কাপড় কখনোই কড়া রোদে শুকাতে দেবেন না। হাতমোজা ও মাফলার ধোয়ার সময়ও একই পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

উল কাপড়: উলের কাপড় ধোয়ার জন্য কম ক্ষারযুক্ত সাবান, ডিটারজেন্ট পাউডার ও শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। উলের জামাকাপড় ওয়াশিং মেশিনে ধোবেন না। বরং ঠান্ডা পানিতে অল্প ডিটারজেন্ট দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করুন। উলের কাপড়  ধোয়ার সময় কখনই কাপড় ব্রাশ দিয়ে ঘষবেন না। এতে কাপড় নষ্ট হবার সম্ভাবনা থাকে। কাপড়ে ব্লিচ যত কম ব্যবহার করা যায় তত ভালো। শুধু সাদা কাপড় উজ্জ্বল করার জন্য আর দাগ তুলতে ব্লিচ ব্যবহার করুন। উলের জামা ধুয়ে ভাঁজ না করে ঝুলিয়ে রাখুন। উলের জামাকাপড় বেশি ড্রাই ক্লিনিং না করাই ভালো। ইস্ত্রি করার সময় সোয়েটার বা শাল উলটে নিন। স্টিম দিয়ে ইস্ত্রি করার চেষ্টা করুন, গরম ইস্ত্রি সরাসরি যেন উল স্পর্শ না করে সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। তাছাড়া পশমি বা উলের কাপড় ইস্ত্রি করার সময় এর ওপর সুতির কাপড় বিছিয়ে নিলে কাপড় ইস্ত্রি অনেক সহজ হয়। উলের কাপড় পরার আগে প্রথমেই ব্রাশ দিয়ে ঝেড়ে পরিষ্কার করে নিন।

লিনেন কাপড়: সাদা লিনেন কাপর গরম পানিতে আর রঙিন লিনেন অল্প গরম পানিতে দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করুন। লিনেন কাপড় ওয়াশিং মেশিনে না শুকানোই ভালো। ধোয়া কাপড় একটু ভিজে ভিজে অবস্থায় ইস্ত্রি করে নিতে হয়।

আনুষঙ্গিক যত্ন: কম্বলের রং অনেক সময় জ্বলে যায়, তাই লন্ড্রি থেকেই রং করিয়ে নিতে পারেন। কম্বল ঝাড়ার সময় লোমগুলো যেন উঠে না আসে সে জন্য নরম ব্রাশ ব্যবহার করুন। শীতে লোশন, তেলজাতীয় জিনিসের ব্যবহার বেশি হয়। ফলে কাপড়ে এসবের দাগ বসে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই মাঝেমধ্যে কাপড় ড্রাইওয়াশ করুন। ব্যবহৃত শালগুলোও ড্রাইওয়াশ করে ব্যবহার করুন। ব্যবহার  শেষে শাল ভাজ করে আলমারিতে তুলে রাখুন।

শীতের অন্য অনুষঙ্গের মধ্যে লেপ, কম্বল প্রভৃতির গুরুত্ব বেশি। ঘরে তুলে রাখা লেপের কাভার খুলে, ডিটারজেন্টে ভিজিয়ে এবং সাবান দিয়ে পরিষ্কার করে ব্যবহার উপযোগী করে তুলুন। আর ভারী কাঁথা ব্যবহারের আগে তা অবশ্যই ধুয়ে কড়া রোদে শুকিয়ে নিতে হবে। এতে হাঁপানি রোগীদের শীতকালীন অসুবিধে অনেকটাই দূর হয়ে যাবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful