Templates by BIGtheme NET
আজ- রবিবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০ :: ১০ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ১০ : ৩৫ অপরাহ্ন
Home / আলোচিত / নমনীয় যতটুকু হওয়ার হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী

নমনীয় যতটুকু হওয়ার হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী

hasinaডেস্ক: আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, নমনীয় যতটুকু হওয়ার দরকার ততটুকু আমরা হয়েছি। আসলে তিনি (বেগম খালেদা জিয়া) নির্বাচন চান না।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর সোহরওয়ার্দী উদ্যানে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি (বেগম জিয়া) আমার বিরুদ্ধে এক ডজন মামলা দিলেন। একদিকে মামলা দিলেন অন্যদিকে যেদিন আমি শোকে কাতর সেদিন তিনি ফুর্তি করেন। এতকিছুর পরেও আমি তাকে বার বার ফোন দিয়েছি। কথা বলতে চেয়েছি। আমি তাকে দাওয়াত দিয়েছি। বলেছি আসুন আলোচনা করি। আমি বললাম, হরতাল দিয়েন না। কারণ ওই দিন জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষা। তিনি বললেন হরতাল দেবেনই। কেক তিনি কাটবেই। তারপরও তিনি হরতাল দিলেন। হরতালে কী হলো, ২০ জন মানুষকে হত্যা করা হলো।

শেখ হাসিনা বলেন, আমার পিতা-মাতা-ভাইদের যারা হত্যা করেছে, তাদের তিনি মদদ দেন। সংসদে আমার ৯০ ভাগ সিট থাকা সত্ত্বেও আমি নিজে তাকে ফোন করলাম রেড টেলিফোন। কিন্তু তাকে পেলাম না। পরে আমার এডিসিকে ফোন করতে বললাম। তিনি যোগাযোগ করলে তাকে জানানো হলো তিনি নাকি রাত ৯টার আগে ফোন রিসিভ করতে পারবেন না। তিনি নাকি রাত ৯টার আগে রেডি হতে পারবেন না।

তিনি বলেন, একটা ফোন রিসিভ করতে রেডি হতে এত সময় লাগে। যদিও আমি তাকে থ্রিজিতে ফোন করিনি, স্কাইপিতেও কথা বলবো না, যে তার চেহারা আমাকে দেখতে হবে। আমি তাকে ফোন করেছি রেড টেলিফোনে। অবশ্য তিনি স্বীকার করেননি তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। জানি না সারা দিনই মানুষ ঘুমায় নাকি। এর জবাব আমি দিতে পারবো না।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা দেশকে দুর্নীতির দেশ থেকে বিশ্বের মাঝে রোল মডেল বানিয়েছি।  বিএনপির সময় মানুষের মধ্যে একটি কথা ছিল- বিএনপির দুই গুণ দুর্নীতি আর মানুষ খুন। আমরা বিদ্যুৎ উৎপাদন করে রেখেছিলাম। আর তারা দুর্নীতি করেছে।

তিনি বলেন, তিনি বঙ্গবন্ধুর খুনিদের মামলার রায়ের দিনে হরতাল ডেকেছিলেন। আজ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হচ্ছে বলে তার মনে বড় ব্যথা। বাংলাদেশের প্রতি তার মায়া নেই। কারণ বাংলাদেশর মাটিতে তার জন্ম হয়নি। তার জন্ম শিলিগুড়ির চা বাগানে। তাই আন্দোলনের নামে বাসে আগুন দিয়ে মানুষ মারছে। আজ বাস, সিএনজি, রিকশায় আগুন দিয়ে মানুষ মারছে। শুধু আগুন দিয়ে মানুষই মারছে তাই নয়। আগুনে দিয়ে পবিত্র কুরআন শরিফ পোড়াচ্ছে। এরা কিভাবে ইসলাম রক্ষার রাজনীতি কথা বলেন ?

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের সময়ে প্রায় ছয় হাজার নির্বাচন হয়েছে, সবগুলো সুষ্ঠু হয়েছে। কিন্তু তাদের সময়ে নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে। মাগুড়ার নির্বাচন কারচুপি করেছে। কিন্তু আমাদের সময়ের সব নির্বাচনে জনগণ তাদের ভোটাধিকার সুষ্ঠুভাবে প্রয়োগ করতে পেরেছ।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful