Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২০ :: ৯ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ২ : ৫৫ অপরাহ্ন
Home / টপ নিউজ / লালমনিরহাট জেলা আ.লীগের সম্মেলে সংঘর্ষের আশঙ্কায় উদ্বিগ্ন নেতাকর্মীরা

লালমনিরহাট জেলা আ.লীগের সম্মেলে সংঘর্ষের আশঙ্কায় উদ্বিগ্ন নেতাকর্মীরা

 স্টাফ রিপোর্টার: দীর্ঘ ৭ বছর পর লালমনিরহাট আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন বুধবার (১১ডিসেম্বর)। এ সম্মেলনকে ঘিরে পুরো জেলা শহরকে সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। টাঙ্গানো হয়ে রাস্তার মোড়ে বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন। প্রস্তুত হয়েছে জেলা পরিষদ অডিটরিয়াম মাঠে সম্মেলনের মঞ্চ।
এদিকে জেলা সম্মেলনকে ঘিরে দুটি পক্ষের দ্বন্দ্ব ইতিমধ্যে স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। ফলে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের আশঙ্কায় উদ্বিগ্ন নেতাকর্মীরা।
জানাগেছে, ২০১৩ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন ও সাধারন সম্পাদক এ্যাড. মতিয়ার রহমান নেতৃত্বে পায়। এর পর টানা ৮ বছর পেড়িয়ে গেলেও কমিটি গঠন কিংবা সম্মেলন হয়নি। তবে এবারের সম্মেলন ঘিরে জেলা আওয়ামী লীগের নেতীবৃন্দ দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে। এর একটি গ্রুপে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতায় রয়েছেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজুল হক ও জেলা আ.লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল হক পাটোয়ারী ভোলা। অপর দিকে সাধারণ সম্পাদক পদে জেলা পরিষদ প্রশাসক এ্যাড. মতিয়ার রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা স্বপন ও জেলা যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট বাদল আশরাফ সাধারন সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতায় করবেন। যে কারণে জেলা আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপ বিভক্ত হওয়ার কারণে সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন স্থানীয় প্রবীণ নেতাকর্মীরা।

তাছাড়া হাতীবান্ধা ও পাটগ্রাম কমিটি গঠন করতে গিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে, যদিও ইত্যিমধ্যে দুটি উপজেলায় সম্মেলনে সম্পূর্ন হয়েছে। এতে হাতীবান্ধা উপজেলা আ.লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে পুনরায় লিয়াকত হোসেন বাচ্চু সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেনের বড় ছেলে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহামুদুল হাসান সোহাগ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। একই দিনে পাটগ্রাম উপজেলা আ.লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে বাবু পূর্ন চন্দ্র রায় সভাপতি ও রুহুল আমিন বাবুল পুনরায় সম্পাদক নির্বাচিত হন।
অন্যদিকে ঝিমিয়ে পড়েছে কালীগঞ্জ ও আদিতমারী উপজেলা। নতুন করে কমিটি গঠন বা বর্ধিত সভার কোনো আয়োজন নেই সরকারি এ দলটির। ১১ ডিসেম্বর জেলা সম্মেলনকে ঘিরে লালমনিরহাট-২ আসনের দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে নেই কোনো উৎসবের আমেজ। ফলে হতাশ আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরা।

লালমনিরহাট জেলা আ’লীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজুল হক বলেন, আওয়ামী লীগ একটি প্রাচীনতম রাজনৈতিক দল। এই দলে কোন দ্বন্দ্ব নেই। নেতাকর্মীরা নেতৃত্ব চাইতেই পারে। প্রতিযোগিতা মানে এই নয় যে সংঘর্ষ হবে। শান্তি পূর্ণভাবে সম্মেলন হবে।
লালমনিরহাট পুলিশ সুপার (পিপিএম) এস.এম রশিদুল হক বলেন, আওয়ামীলীগের সম্মেলন ঘিরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন নিরাপত্তার দায়ীত্বে থাকবে। কোন রকম বিশৃঙ্খলা হতে দেওয়া হবে না।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful