Templates by BIGtheme NET
আজ- মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০ :: ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ :: সময়- ২ : ৫০ পুর্বাহ্ন
Home / টপ নিউজ / রেল নেটওর্য়াকের আওতায় ডোমার ও পঞ্চগড়ে রেল জংশন তৈরী হবে

রেল নেটওর্য়াকের আওতায় ডোমার ও পঞ্চগড়ে রেল জংশন তৈরী হবে

ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়॥ পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা থেকে পঞ্চগড়ের ময়দানদিঘি, বোদা ও দেবীগঞ্জ উপজেলা হয়ে নীলফামারীর ডোমার রেলষ্টেশন পর্যন্ত এবং নীলফামারীর ডোমার রেলস্টেশন হয়ে লালমনিরহাট জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী রেলস্টেশন পর্যন্ত ডুয়েলগেজ রেলপথ নির্মিত হবে। এতে রংপুরের কাউনিয়া পর্যন্ত রেল সেবাও বৃদ্ধি পাবে।

এই রুটের সাথে সংযোগ দেওয়ার জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হয়ে সোনা মসজিদ ভারতীয় সীমান্ত পর্যন্ত ৩৭ কিলোমিটার নতুন রেলপথ নির্মাণ করা হবে। সেই সঙ্গে নীলফামারীর ডোমার ও পঞ্চগড়ে রেল জংশন তৈরী হবে।
এই সকল ঘিরে বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পসমূহের সম্ভাব্যতা সমীক্ষা শীর্ষক প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। সীমান্তবর্তী রেলপথের উন্নয়নে তিস্তা নদীর ওপর নতুন রেলওয়ে সেতু নির্মাণের জন্য সম্ভাব্যতা সমিক্ষা, নকশা ও টেন্ডার ডকুমেন্ট তৈরির কাজ করা হচ্ছে। এছাড়া শুরু করা হচ্ছে প্রয়োজনীয় সার্ভে, মাটি পরীক্ষা ও ট্রাফিক সার্ভের কাজ। সমীক্ষা প্রকল্পটি সরকারের ৯ কোটি ৯১ লাখ টাকা অর্থায়নে ২০১৮ সাল থেকে বাস্তবায়িত হচ্ছে। ২০২১ সালের জুন মাসে সমীক্ষার শেষ হলেই মূল প্রকল্পের কাজ শুরু হবে। প্রকল্পটি চলতি অর্থবছরে সম্পন্ন করার জন্য ৫ কোটি ৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
রেলের একটি সুত্র মতে, রেলে ডুয়েলগেজের নতুন রেলপথ স্থাপনের পাশাপাশি তিস্তা রেলসেতুর সমান্তরালে একটি নতুন রেলসেতু নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এতে গুরুত্বপুর্ণ বেশ কিছু উপজেলা নিরাপদ ও দ্রত রেল চলাচলের নেটওর্য়াকের আওতায় নিয়ে আসা হবে।
সুত্র মতে, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায় ২১৭.৭৮ একর জমিতে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে। চলতি বছরের ২৪ আগস্ট বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর ও দলিল সম্পাদন করে স্বাক্ষর করেন পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন ও বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চলের সহকারী ব্যবস্থাপক একেএম আনোয়ার।

এ ছাড়া পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর ও নীলফামারীর চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রেলপথকে বেজ করে রেলের নতুন নেটওর্য়াক সংযুক্ত করা হবে।

নীলফামারীর ডোমার উপজেলার চিলাহাটি রেলষ্টেশনের সঙ্গে ভারতের হলদিবাড়ি রেলপথ নির্মান শেষের দিকে। এই রেলপথটি চলতি বছরের ১৬ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্ধোধনের কথা রয়েছে। এর সঙ্গে রেলপথে সংযুক্ত হবে নীলফামারীর উত্তরা ইপিজেড। এতে ব্যবসা-বাণিজ্য প্রসারে ভারত হয়ে নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে সহজ রেল সংযোগ স্থাপন হবে। ভারত, নেপাল, ভুটান,চিন ও বাংলাদেশের মধ্যে আমদানি-রফতানির জন্য পঞ্চগড় জেলার বাংলাবান্ধা স্থল বন্দর ও নীলফামারীর চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রেলপথ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। যা ৫টি বন্ধু-প্রতিম দেশকে একই সূত্রে আবদ্ধ করতে পারে।

বাংলাদেশ রেলওয়ের পরিচালক মোহাম্মদ আবু জাফর মিয়া গনমাধ্যমকে বলেন, “তিস্তায় সমান্তরাল তৃতীয় বৃহত্তম রেলসেতু নির্মিত হবে। দীর্ঘদিনের পুরনো এ সেতুটি বর্তমানে জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। এছাড়া বাংলাবান্ধা ও সোনামসজিদ স্থলবন্দরকে নতুন রেলপথে যুক্ত করা হবে। ফিজিবিলিটি স্টাডি কাজ প্রায় শেষের দিকে। এর পরেই মূল প্রকল্প গ্রহণ করা হবে। আশা করি ২০২১ সালের জুন মাসে কাজ শেষ হবে। ”পাশাপাশি নীলফামারীর জলঢাকা, ডিমলা, কিশোরীগঞ্জ, অঞ্চলের জনসাধারণের রেল সেবাও বৃদ্ধি পাবে। জলঢাকা হয়ে ডোমার রেলস্টেশন হয়ে ভোটমারী রেলস্টেশন পর্যন্ত ডুয়েলগেজ রেলপথ নির্মিত হবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful