Templates by BIGtheme NET
আজ- বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ :: ১৫ আশ্বিন ১৪২৭ :: সময়- ৭ : ৩৬ পুর্বাহ্ন
Home / টপ নিউজ / অনেক আশা নিয়্যা ঝন্টুক ভোট দিচু বাহে

অনেক আশা নিয়্যা ঝন্টুক ভোট দিচু বাহে

ফরহাদুজ্জামান ফারুক: “দেখতে দেখেতে সিটির ভোট শ্যাষ হয়্যা গেল। হামরা গরিব মানুষ। ভোট দেলে কি আর না দেলে কি। তারপরও এবার অনেক আশা নিয়্যা ভোট দিচু বাহে। যদি রংপুরের কাম হয়। মোর মনটায় কওচে, এবার যায় মেয়র হইছে তাক দিয়্যা কাম হইবে বাহে।” এভাবেই প্রত্যাশার কথা শোনালেন রিক্সা চালক আরজ আলী।
রংপুর সিটির বর্ধিত এলাকা কুকরুল আমাশুতে আরজ আলীর বাড়ি। সেখান থেকে প্রতিদিন রংপুর শহরে এসে রিক্সা চালান। সারাদিনে যা রোজগার হয় তাই নিয়ে সন্ধ্যা হলে ঘরে ফেরেন। কোনো রকম সংসার চলে তার। দুই ছেলে আর এক মেয়ে সন্তান থাকলেও তাদের কেউ তার খোঁজ রাখেন বলে জানান।
প্রায় ৫৪ বছর বয়সের বৃদ্ধ আরজ আলী রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে যাদের ভোট দিয়েছেন তাদের মধ্যে শুধু একজন হতে পারেনি। এজন্য তার দুঃখ নেই। আরজ আলী বলেন, “মেয়র হিসাবে যাক চাইচুং, তাকতো পাইচুং বাহে। এটায় আল্লাহর আহো-মত (রহমত)। হামরা জানি কায় কাম করবে, আর কায় না করবে। দেখেন না টাউনোত হাটা যায় না। একটা বড় গাড়ি ঢুকলে পুর‌্যা টাউনোত জাম নাগি যায়। আস্তে আস্তে হামার আস্তাগুলো (রাস্তাগুলো) সরু হয়্যা যাওচে। সেই দুই বছর ধরি শোনোছোং টাউনের বড় বড় দোকান ঘরগুল্যা ভাঙ্গি দেবে। চাইরলেনের আস্তা হইবে। কোটে তার কাম। তিনি বলেন, ঝন্টু সাইব ভালো মানুষ। তায় পারবে আস্তার দুইপাকের বড় বড় দোকান ঘর ভাঙ্গিয়া চাইরলেনের আস্তা বানবার। ওমরা ছাড়া একাম কায়ো করব্যার পাবার নায়। মেলা মাইনষে কওছে নয়া মেয়র সাইব বোলে গ্যাস নিয়্যা আসপে।”

বৃদ্ধ আরজ আলী বলেন, “মুই গরিব মানুষ। মোর কোনো আশা নাই। কিন্তু তারপরও জীবনের শ্যাষ বয়সে এবার একনা আশা করি ভোট দিচুং বাহে। মুই চাং ঝন্টু সাইব রংপুরের উন্নয়ন কাম করুক। হামার গ্রাম এলাকাগুল্যাক উন্নয়ন করুক। কিন্তুক সবার আগোত মেয়রোক টাউনোত আস্তা বড় করা নাগবে। গ্যাস আনা নাগবে। ময়লা ফেলার জন্যে সোগ এলাকায় ভালো ডাস্টবিন আর ড্রেন করি দেওয়া নাগবে। তাহইলে দেখমেন তার পিছনোত সবায় তাকপে। আল্লাহ নয়া মেয়রের হায়াত দারাজ করুক।”
বৃদ্ধ আরজ আলী এই প্রতিবেদকের সাথে ভোট পরবর্তী মনের অভিব্যক্তি ও নির্বাচিত মেয়রের কাছে তার আশা-আকাঙ্খার কথা এভাবেই তুলে ধরেন। রিক্সাযোগে শাপলা চত্বর থেকে মেডিকেল মোড় যাওয়ার পথে দীর্ঘ ১ ঘণ্টার আলাপচারিতায় একথা তার কাছ থেকে বেরিয়ে আসে।
এরকম ১ লক্ষ ৬ হাজার ২শ’ ৫৫ জন ভোটার অনেক আশা নিয়েই ঝন্টুকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। জনগণের নেতা হিসেবে পরিচিত প্রথম নগরপিতা শরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুকে ঘিরে রংপুরের প্রায় ১০ লক্ষ মানুষ এখন উন্নয়নের স্বপ্ন দেখছেন। সেই স্বপ্ন পূরণে কতটুকো সফল হবে অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ প্রথম নগরপিতা। তা দেখার অপেক্ষায় নগরবাসী।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful