Templates by BIGtheme NET
আজ- শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০ :: ১৯ আষাঢ় ১৪২৭ :: সময়- ২ : ০৭ পুর্বাহ্ন
Home / কুড়িগ্রাম / রাজাকার পুত্র পেলেন জে. ওসমানী পদক! সাধারণ মানুষের মাঝে ক্ষোভ

রাজাকার পুত্র পেলেন জে. ওসমানী পদক! সাধারণ মানুষের মাঝে ক্ষোভ

whatনাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: স্বাধীনতার মাসে ৭১ এ তৎকালীন কুড়িগ্রাম মহকুমা শান্তি কমিটির সেক্রেটারীর ছেলেকে মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জেনারেল ওসমানী পদক ও মাদার তেরেসা সাইনিং পারসোনালিটি এ্যাওয়ার্ড দেয়ায় নাগেশ্বরীতে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের মানুষের মধ্যে বিরুপ প্রতিক্রিয়া ও ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। পদক ফেরত নেয়ার দাবী জানিয়েছেন তারা।
মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষণ উদ্যোগ’ শেকড় সভাপতি মনোয়ার হোসেন সিদ্দিকী বলেন ভিতরবন্ধ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমিনুল হক খন্দকার বাচ্চুর বাবা শামছুল হক খন্দকার ৭১ এ কুড়িগ্রাম মহকুমা শান্তি কমিটির সেক্রেটারী ছিলেন। তার নের্তৃত্বে ১৯৭১ সালের ২৭ মে পাকিবাহিনী নাগেশ্বরীতে প্রবেশ করে হত্যা, ধর্ষন, লুন্ঠন ও অগ্নিসংযোগ চালায়। ৭৫ পরবর্তী সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি করে ভিতরবন্দ জমিদার বিমলেন্দু রায় বাহাদুর চৌধুরীর বাড়ি ও সম্পদ অবৈধ দখলে নেন। পরবর্তীতে জমিদার বাড়ী ভেঙ্গে তৈরী করেন খন্দকার বাড়ী। অথচ সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার ভূমিকার রাখার স্বীকৃতি স্বরূপ জীবনের জন্য জীবন ফাউন্ডেশন গত ৫মার্চ মাদার তেরেসা সাইনিং পারসোনালিটি এ্যাওয়ার্ড ও স্বাধীন বাংলা সংসদ ২১মার্চ সন্ধ্যায় ঢাকায় স্কাইমুন চাইনিজ রেষ্টুরেন্টের হল রুমে সেই রাজাকারপুত্র চেয়ারম্যান আমিনুল হক খন্দকারকে বিভিন্ন সামাজিক ও উন্নয়নমুলক কর্মকান্ডের মাধ্যমে দেশ গঠনে বিশেষ অবদান রাখায় জেনারেল ওসমানী স্মৃতি স্বর্ণ পদক ও সনদ প্রদান করেছে।

বাংলা একাডেমীর মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস রচনা প্রকল্পের রংপুর অঞ্চলের গবেষক ও কুড়িগ্রাম জেলা সরকারী কৌসুলী (পিপি) এ্যাডভোকেট আব্রাহাম লিংকন বলেন, রাজাকার শামছুল হক খন্দকারের পরিবারটি মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী ও সংখ্যালঘুদের সম্পদ আত্মসাৎকারী হিসেবে কুখ্যাত। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী War Cirminals list of Bangladesh Libaration War 1971  তালিকায় ৭০৬ নং শামছুল হক খন্দকার, পিতা: কোব্বাত আলীকে দালাল আইনে গ্রেফতার করা হয়। মামলা নিষ্পত্তি না হলেও ১৯৭৩ সালের ৩০ নভেম্বর শেখ মুজিব সাধারন ক্ষমা ঘোষনা করলে আইনের ফাঁক গলিয়ে তিনি বেরিয়ে আসেন। সে পরিবারের সন্তান ভিতরবন্দ ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল হক খন্দকার বাচ্চুকে মাদার তেরেসা সাইনিং পারসোনালিটি এ্যাওয়ার্ড ও মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জেনারেল ওসমানী পদক দেয়ায় আমরা বিস্মিত।
দ্রুত পদক ফিরিয়ে নেয়ার দাবী জানিয়ে সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু বকর সরকার, মুক্তিযুদ্ধের শহীদ স্মৃতি পাঠাগার নাগেশ্বরী শাখা সভাপতি জোবায়ের সিদ্দিকী স্বপন, প্রতীক সভাপতি আখতারুজ্জামান পাভেলসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন রাজাকার পরিবারটি মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী বিভিন্ন সময়ে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি করে করে ফাঁয়দা লুটছে। তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তার মদদে ভিতরবন্দ ইউনিয়নে স্বধীনতা বিরোধীরা সক্রিয় হয়ে উঠেছে। সম্প্রতি তাদের উদ্যোগে হেফাজতে ইসলামের ১০০১ সদস্যের কমিটি গঠন করে এলাকায় রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টি করার অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান আমিনুল হক খন্দকারের সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি পরে বলবেন বলে ফোন রেখে দেন। পরবর্তীতে কথা বলা যায়নি।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful