Templates by BIGtheme NET
আজ- বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০ :: ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ :: সময়- ১ : ৩৪ অপরাহ্ন
Home / খোলা কলাম / “পাগলা তুই নাও ডুবাইস না” : প্রসঙ্গ মোদি বিরোধিতা

“পাগলা তুই নাও ডুবাইস না” : প্রসঙ্গ মোদি বিরোধিতা

সাইফুদ্দিন আহমেদ নান্নু

modiবিজেপি ক্ষমতায়,নরেন্দ্র মোদী হবু প্রধানমন্ত্রী । বিজেপি’র ক্ষমতাকালে ভারতের মুসলমান এবং বাংলাদেশ থেকে ভারতে চলে যাওয়া বাঙালীদের সাথে মোদীর আচরন কেমন হবে,বাবরী মসজিদের জায়গায় রাম মন্দির উঠবে কী উঠবে না এমন সম্ভাবনার বিশ্লেষণ এবং মোদী বিরোধিতা করতে গিয়ে আমরা এমনসব চিত্র আঁকছি,বলছি তাতে মনে হচ্ছে আগামীকাল নয়তো পরশুই ভারতে দাঙ্গা শুরু হবে,দলে দলে বাঙালীরা ভারত থেকে বিতাড়িত হয়ে সীমান্ত ক্রস করে বাংলাদেশে ফিরে আসবে। এসব লেখা পড়লে মনে হয় দেশে যেন যুদ্ধ লাগেলাগে আরকি।

আমি বলি কী,ভাইরে,যা এখনও ঘটে নাই,আদৌ ঘটবে কিনা তারও নিশ্চয়তা নাই। অথচ সেটি ঘটবে বলে চিৎকার করে আতঙ্ক ছড়ানো কেন! আমরা কেন ভুলে যাই বিজেপি রামমন্দির বানানোর ওয়াদা করে ক্ষমতায় এসে একবার ভারত শাসন করেছে,কিন্তু রামমন্দির বানায় নাই। ও পথে হাঁটেও নাই। এবারও যে হাঁটবে তারইবা গ্যারান্টি কী?

মাঝখান থেকে আমাদের দেশের ভেতরে থাকা সাম্প্রদায়িক শক্তিগুলোকে “পাগল তুই নাও ডুবাইস না” বলে নাও ডুবানোর কথা মনে করিয়ে দেয়া হচ্ছে কেন?

আমাদের দেশে কিছু গ্রাম্য প্রবাদ আছে, যেমন,
…. “চোরের হাতে খুন্তি দিলে চোর আর সিঁদ কাটে না”
…..“চোরের কাছে সিন্দুকের চাবি বুঝিয়ে দাও ও চোর আর ঐ সিন্দুকে হাত দেবে না”

মোদি ক্ষমতায় যাবার আগে যতই বদ কথাই বলুক এখন তার হাতে ক্ষমতা । ও আর বদ কাম করতে পারবে না। আমাদের দেশে বহু উদাহরণও আছে মানুষ ডাকাতকে ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান বানিয়ে ডাকাতের ডাকাতি বন্ধ করে দিয়েছে।

অতএব মোদির মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক নীতির বিরোধিতা যেন আমরা এমনভাবে করি যাতে দেশ জুড়ে ভীতির জন্ম না হয়। পাগলদের যেন নৌকা ডুবানোর কথা মনে না করাই।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful