Templates by BIGtheme NET
আজ- শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০ :: ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ :: সময়- ৫ : ৫৭ অপরাহ্ন
Home / টপ নিউজ / অন্তঃস্বত্বা গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করে মাদকাসক্ত পাষণ্ড স্বামী ভারতে পালিয়েছে

অন্তঃস্বত্বা গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করে মাদকাসক্ত পাষণ্ড স্বামী ভারতে পালিয়েছে

Lalmonirhat News Picture-6নিয়াজ আহম্মেদ সিপন, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার শ্রীমারপুর ইউনিয়নের খেংটি মাষ্টারপাড়া সীমান্তে ৮ মাসের অন্তঃস্বত্বা গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করেছে আশরাফুল ইসলাম গুল্টু(২৬) নামের এক মাদকাসক্ত পাষণ্ড স্বামী। নিহত ওই গৃহবধূ ঋতু মনি বেগম(২২) মাহি(২) নামের এক সন্তানের জননী এবং তিনি ৮ মাসের অন্তঃস্বত্বা ছিলেন।

রোববার দিবাগত রাতে উপজেলার খেংটি গ্রামের মাষ্টারপাড়া এলাকায় এ লোমহর্ষক ঘটনাটি ঘটে। আজ সোমবার(২-জুন) সকালে এলাকাবাসীর মাধ্যমে নিহতের পরিবার খবর পেলে ঘটনাটি জানিজানি হয়। এদিকে ওই রাতেই আশরাফুল ইসলাম গুল্টু পরিবারের সবাইকে নিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে পালিয়ে গেছে বলে একটি নির্র্ভর যোগ্য স্থানীয় সূত্র। পলাতক গুণ্টু পেশায় ছিলেন ভারতীয় গরু চোরচালানকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য।

নিহতের প্রতিবেশী স্থানীয় লোকজন ও আত্মীয়-স্বজনরা জানায়, গত রোববার দিবাগত সন্ধ্যায় শ্বামী-স্ত্রীর মধ্যে নেশার টাকা নিয়ে কথা কাটিকাটির জের ধরে স্ত্রী ঋতু মনি বেগমকে বেধড়ক মারপিট করে স্বামী আশরাফুল ইসলাম গুল্টু। রাতে আবারও কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে গলায় খামচে ধরে মারপিট করে আশরাফুল। এ সময় অন্তঃস্বত্বা ঋতু মনি বেগম মারা গেলে গোয়াল ঘরের ধরনায় তার লাশ ঝুলিয়ে রাখে পালিয়ে যায় ঘাতক স্বামী। সোমবার সকালে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে নিহতের মা-বাবা খবর পেয়ে লাশ গোয়াল ঘরের ধরনায় ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে পাটগ্রাম থানায় খবর দেন। পরে ওসি আমিরুজ্জামান আমির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট করে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। দুই বছরের শিুশু মাহি হোসেনের কান্নায় গোটা এলাকার বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। এ ঘটনায় নিহতের বাবার বাড়ীর লোকজন কান্নায় বারবার মূর্ছা যাচ্ছিল ঘটনাস্থলে। সেখানে কেউই স্বাভাবিকভাবে কথা বলতে পারছিল না। কারণ এ লোমহর্ষক ঘটনাটির খবর শুনে সবাই বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ে।

ইজমে আজম(৭) নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী শিুশু বলেন, ‘আংকেল ভাবিকে ডাংগে মারচ্ছে ভাইয়া। গুল্টু ভাইয়ার বাবা আছে না, মানে মোত্তালেব বড় আব্বু ভাবিকে খুব আদর করতো। ভাবিও খুব ভালো ছিল জানেন। ভাইয়াকে টাকা না দেয় নাই জন্য খুব মারছে। এতে ভাবি মারা গেছে। পরে সবাই ভারত পালে গেছে।’

Lalmonirhat News Picture-5 (1)পলাতক মাদকাসক্ত আশরাফুল ইসলাম গুল্টুর বন্ধুরা নাম প্রকাশ না করার শর্তে এ প্রতিবেদককে বলেন, গুল্ট ও গুল্টুর পরিবার সীমান্তের ওপারে ভারতে পালিয়ে গেছে। তাদের বাঁচানোর জন্য স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও জামায়াতের কয়েকজন নেতা ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে বিভিন্নভাবে তদবির করছেন। গুল্টুর বন্ধুদেরমতোই এলাকার সাধারন মানুষও মনে করছে এ জঘন্য ঘটনাটির কোনো বিচার হবে না। তবে এলাকার সাধারন মানুষকে ওসি আমিরুজ্জামান আমির সজাগ থাকার অনুরোধ করেছেন। অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে বলেও তিনি নিহতের পরিবারকে আশ্বস্ত করেন।

এদিকে শ্রীরামপুর ইউনিয়ন পরিষদের কোনো ইউপি সদস্যকে সেখানে পাওয়া যায়নি। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল করিম প্রধান ও ১ ওয়ার্ড সদস্য তুহিন হোসেনের সেলফোনে যোগাযোগ করা হলে বন্ধ পাওয়া যায়।

নিহতের মা দাবী করে বলেন, ‘জামাই আশরাফুল ইসলাম গুল্টু মাদকাসক্ত। মেয়ের বিয়ের গত ৪ বছর থেকে প্রায় নির্যাতন করতো তাকে। মাহি হোসেন দুই বছরের একটি ছেলে আছে। মেয়ে দোমাষি( আর এক মাস গেলে) বেড়ালে দ্বিতীয় সন্তান প্রসব করতো। আমার ৮ মাসের অন্তঃস্বত্বা মেয়েকে পিটিয়ে হত্যা করে লাশ গোয়াল ঘরে ঝুলিয়ে রেখে সবাই বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে। আমি মেয়ে হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই।’

এ ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী আশরাফুল আলম গুল্টু(২৬), শ্বাশুড়ী আনোয়ারা বেগম(৪৯), শ্বশুর মোত্তালেব হোসেন(৫২), ননদ রুনি বেগম(২৭), নদদের স্বামী মজিদুল ইসলামও(৩১) পলাতক রয়েছে।

নিহতের বাবা আজিজুল হক কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, ‘আমি কিছু চাই না। আমার মেয়ের হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই। আসামীরা যেখানেই থাকুক পুলিশকে তাদের গ্রেফতার করতেই হবে।’

পাটগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) আমিরুজ্জামান আমির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘আমি নিজেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সুরতহাল রিপোর্ট করেছি। গলায় ও শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। নিহতের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful