Templates by BIGtheme NET
আজ- বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০ :: ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ :: সময়- ৯ : ৫৯ পুর্বাহ্ন
Home / নীলফামারী / হাতী অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবী

হাতী অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবী

unnamed (2)ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়, নীলফামারী ৫ জুন॥ দেশের মানুষ অপহরন ও মুক্তিপনের ঘটনা অহরহ ঘটছে। এবার এবার একটি হাতী কে অপহরন করে মুক্তিপন দাবি করে হাতী নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় নীলফামারীর ডিমলা থানা পুলিশ বুধবার রাতে উপজেলার ঝুনাগাছ চাঁপানী এলাকা থেকে অপহরনহৃত হাতীটি উদ্ধার করেছে। এ সময় হাতী অপহরনকারী হালিম মিয়া পালিয়ে যায়। ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে উদ্ধারকৃত হাতীটিকে এক নজর দেখতে থানায় মানুষজন ভিড় করে।

জানা যায়, হাতিটি বগুড়া জেলার কাহালু উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের সাঈদ সেটের পুত্র নইম উল্ল্যাহ-র। হাতির মালিকের নিকট রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ধরলাকান্দি গ্রামের মৃত্যু জমির উদ্দিনের পুত্র হালিম মিয়া ২০১৩ সালের ৮ সেপ্টেম্বর ১ বছরের জন্য ৩ লাখ টাকার চুক্তিতে সার্কাসের জন্য ভাড়া নেয়। এ জন্য হাতির মালিককে নগদ ১লক্ষ ২৬হাজার টাকা প্রদান করেন এবং অবশিষ্ট টাকা ৪ কিস্তিতে পরিশোধ করার কথা থাকলে হালিম মিয়া হাতিটি অপহরন করে আত্মগোপনে চলে যায় ।

হাতীর মালিক নইমউল্ল্যা জানান এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে বগুড়ার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ”ক” অঞ্চল আদালতে চলতি বছরের ২৮ এপ্রিল একটি মামলা দায়ের করেন । মামলা নম্বর ১২৯ পি/১৪ (কাহালু) । মামলায় তিনি উল্লেখ করেন রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ধরলাকান্দি গ্রামের মৃত্যু জমির উদ্দিনের পুত্র হালিম মিয়া হাতীটি অপহরন করে লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলার পারুলিয়া গ্রামে আতœগোপন করে রয়েছে। অপহরনকারী হাতীটি ফেরত নিতে ৪লাখ টাকা দাবি করে। এ ঘটনায় বগুড়া আদালত হাতীটি উদ্ধারে লালমনিরহাট পুলিশকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের আদেশ প্রদান করে।

হাতীর মালিক বলেন বিষয়টি হাতী অপহরনকারী হালিম মিয়া ঘটনাটি টের পেয়ে বুধবার রাতে তিস্তা ব্যারাজের উপর দিয়ে নীলফামারীর ডিমলা দিয়ে হাতিটি নিয়ে অন্যত্র পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি। এ সময় ডিমলা থানার পুলিশ কে খবর দিলে তারা হাতীটিকে উদ্ধার করে থানায় নেয়। এ সময় হাতী অপহরনকারী হালিম মিয়া(৪৫) পালিয়ে যায়।

ডিমলা থানার ওসি শওকত আলী জানায়, হাতিটি উদ্ধার করা হলেও যেহেতু বগুড়ার আদালত লালমনিরহাট পুলিশ সুপারকে উদ্ধারের নির্দেশ দিয়েছে সে ক্ষেতে হাতিটি লালমনিরহাট পুলিশের কাছে হস্তান্তর করবে। এরপর লালমনিরহাট পুলিশ হাতীটি বগুড়ার আদালতে জমা দিবে। সেখান থেকে হাতীর মালিক হাতীটি গ্রহন করতে পারবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful