Templates by BIGtheme NET
আজ- বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০ :: ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ :: সময়- ১১ : ৩৩ অপরাহ্ন
Home / উত্তরবাংলা স্পেশাল / চাকুরীর নামে প্রতারণার ফাঁদে ৮০০ নিরীহ যুবক

চাকুরীর নামে প্রতারণার ফাঁদে ৮০০ নিরীহ যুবক

froadইনজামাম-উল-হক নির্ণয়, নীলফামারী ৯ জুন॥ পদ্মা সেতু প্রকল্পের নদী শাসনে ও টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে প্রস্তাবিত বিমানবন্দর নির্মানে শ্রমিকের চাকুরী দেয়ার নাম করে রাজ এগ্রো প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীর নীলফামারীর সৈয়দপুরের ৮০০ যুবকের কাছ থেকে প্রায় দুই কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সূত্র মতে, রাজ এগ্রো (রাজ গ্রুপ) প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীর ওইসব প্রতিষ্ঠানে চাকুরী দেয়ার নামে প্রতিজন যুবকের কাছ থেকে ২৬ হাজার করে নিয়েছে। আর এ জন্য সৈয়দপুর শহরের বিসিক শিল্প নগরী এলাকায় অহিদুল হাজীর ভবন ভাড়া নিয়ে প্রায় ছয় মাস ধরে শ্রমিক নিয়োগের জন্য একটি অফিস চালিয়ে আসছে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের নদী শাসন ও ঘাটাইল বিমানবন্দরে অদক্ষ যুবকদের ২০ হাজার এবং দক্ষ যুবকদের ৪০ হাজার টাকা বেতন প্রদানের প্রচারনা চালিয়ে ওইসব যুবকদের প্রলোভনের ফাঁদে ফেলে এ টাকা রাজ গ্রুপ হাতিয়ে নেয়।

ওই সব কাজের জন্য আবেদনকারী যুবক কাশেম, মোস্তাফিজ, আব্দুল মজিদ, শহিদার রহমান, জাকারিয়াসহ একাধিক চাকরী প্রার্থী যুবক অভিযোগ করে জানান, তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে সৈয়দপুর শাখা অফিসে দায়িত্বরত পরিচালক এম এ বারী ২৬ হাজার টাকা করে নিয়েছে। এর মধ্যে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের নামে ১০ হাজার, ঠিকাদার কোম্পানীর নামে ১০ হাজার, স্বাস্থ্য পরীক্ষার নামে পাঁচ হাজার এবং যাতায়াত খরচের জন্য এক হাজার টাকা নেয়া হয়।

অভিযোগকারী ওইসব যুবকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকার ধানমন্ডিস্থ সানলাইট ডায়াগোনস্টিক সেন্টারে সম্প্রতি নিয়ে যাওয়া হয়। কথা ছিল স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে তাদের চাকরীতে নিয়োগ দেয়া হবে। কিন্তু সৈয়দপুর অফিসের পরিচালক এম এ বারী তাদের চাকরীতে যোগদান না করিয়ে পুনরায় সৈয়দপুরে ফিরিয়ে আনেন। পরে এসব যুবকদের মনে সন্দেহ সৃষ্টি হলে তারা কোম্পানীর প্রধান কার্যালয় নতুন ধানমন্ডির ৯নং নম্বর সড়কের এ ব্লকের ৭৩ নম্বর বাসায় খোঁজ নিয়ে জানতে পারে সেখানে রাজ এগ্রো (রাজ গ্রুপ) প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীর প্রধান কার্যালয় নেই।

এ খবর ফাঁস হয়ে গেলে প্রতারিত যুবকরা টাকা ফেরত পেতে সৈয়দপুর অফিসে ধর্ণা দিতে থাকে। কিন্তু স্থানীয় অফিসের পরিচালক এম এ বারী ১৫ জুনের মধ্যে প্রতারিত যুবকদের চাকরী দেয়ার কথা বলে আশ্বস্থ করছে।

সোমবার সৈয়দপুর অফিসের সামনে প্রতারিত যুবকরা তাদের টাকা ফেরতের জন্য ভিড় করে। তাদের কথা মোটা বেতনের চাকরীর আশায় তারা বাড়ির গরু, ছাগল, মায়ের গয়না বিক্রি করে ওই কোম্পানীর কথিত পরিচালক এম এ বারীর হাতে টাকা তুলে দিয়েছেন। দীর্ঘ ছয় মাস ধরে তারা চাকরীর আশায় ঘুরছেন, অথচ তাদের চাকরী দেয়া হচ্ছে না। এজন্য তারা টাকা ফেরত পেতে দাবি করছেন। কিন্তু কর্তৃপক্ষ তাদের কোন কথা কানে নিচ্ছেন না। ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের রাজ এগ্রো (রাজ গ্রুপ) প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীর প্রধান কার্যালয়ের ঠিকানার ০১৯৪৩০৩৩২১৩ নম্বরের সেলফোনে যোগাযোগ করলে অপর প্রান্ত থেকে উত্তর আসে ওই ঠিকানার কার্যালয়টি প্রায় তিন বছর আগে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। প্রতারিত যুবকদের ধারনা রাতের আধারে সৈয়দপুর অফিসের কর্মকর্তারা পালিয়ে যাবে।

চাকরী দেয়ার নামে ২৬ হাজার টাকা নেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে সৈয়দপুর অফিসের রাজ এগ্রো (রাজ গ্রুপ) প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানীর পরিচালক এম এ বারী চাকরী প্রত্যাশিতদের কাছ থেকে মাত্র ছয় হাজার টাকা নেয়া হয়েছে বলে স্বীকার করেন। তিনি জানান, নির্মাণ কাজের মূল ঠিকাদার মোনায়েম গ্রুপ শ্রমিক নিয়োগে জড়িত। আমরা তাদের হয়ে শ্রমিক সরবরাহ করছি। এ কাজের বৈধতা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি এর অনুকূলে কোন প্রমাণপত্র দেখাতে পারেননি।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সহিদার রহমান জানান, মৌখিক অভিযোগ শুনেছি কিন্তু লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি। সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শফিকুল ইসলামও একই কথা বললেন মমৌখিকভাবে এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তবে অভিযোগকারীরা লিখিত অভিযোগ দিলে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful