Templates by BIGtheme NET
আজ- বুধবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২০ :: ১৩ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৮ : ০০ অপরাহ্ন
Home / উত্তরবাংলা স্পেশাল / জনবল সংকট, অনিয়ম, দুর্নীতি: দিনাজপুর ডায়াবেটিক হাসপাতলে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত

জনবল সংকট, অনিয়ম, দুর্নীতি: দিনাজপুর ডায়াবেটিক হাসপাতলে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত

Diabet Hospital copyদিনাজপুর প্রতিনিধি: নানা অনিয়ম, দুর্নীতি, ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের অত্যাচার, জনবল সংকট, স্টাফদের খারাপ আচরণের কারণে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম দিনাজপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালে প্রশাসনিক অবকাঠামো ভেঙ্গে পড়েছে। এসবের কারণে দিন দিন ভোগান্তি বাড়ছে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের। ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের অত্যাচারে রোগীদের প্রাণ উষ্ঠাগত। সর্বপরি উপঢৌকনের বিনিময়ে ভূয়া ও নিম্নমানের ঔষধ লিখছেন চিকিৎসকরা। এই অভিযোগ করেছেন কয়েকজন সচেতন রোগী।

ডায়াবেটিক হাসপাতালে সূত্র জানা গেছে, দিনাজপুর উপশহরে অবস্থিত দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ডায়াবেটিক হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা ৫৮ হাজার ছুঁইছুঁই, এখানে দৈনিক চিকিৎসা নিতে আসা রোগীর সংখ্যা প্রায় ৪ শতাধিক। প্রতিদিন এই বিপুল সংখ্যক রোগীদের চিকিৎসা দেওয়ার মত জনবল নাই।

অভিযোগে জানা গেছে, রক্ত-প্রসাব পরীক্ষা ও ডাক্তারের সাক্ষাৎ, রির্পোট নিতে একজন রোগীকে ব্যয় করতে হয় প্রায় ৬ ঘন্টা। রোগীদের বসার স্থানে বসে থাকতে দেখা যায় ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের। ডাক্তারের বদলে চেম্বারে পিয়ন, দারোয়ান ও এটেন্ডেন্সেরা কাজ করে। এই ভাবে ডাক্তারদের চাটুুকদারি করে নিম্নমানের ঔষধ ব্যবস্থাপত্রে লিখিয়ে নেন। ফলে এ ধরনের নিম্নমানের ঔষধ খেয়ে রোগীরা তাড়াতাড়ি আরোগ্য লাভে ব্যর্থ হন।

অভিযোগ উঠেছে, এ কারণে হাসপাতালের ভর্তি রোগীদের দীর্ঘদিন ধরে ভর্তি থাকলেও কোন লাভ হয়না। শুধুমাত্র রোগী ও রোগীর আত্মীয়-স্বজনদের কাছ হাসপাতালের স্টাফরা বিভিন্ন অজুহাতে মোটা অংকের টাকা নিয়ে নেয়। আবার ইসিজি, রক্তের নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা, আল্ট্রাসনোগ্রাম, এনডোসকপিসহ নানা পরীক্ষা ও সেবার মূল্য এখানে দ্বিগুণেরও বেশি। কাজেই দিনাজপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালটি সেবার পরিবর্তে এখন বাণিজ্যিক কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। হাসপাতালের মাসিক আয় ৫০ লাখ টাকারও বেশি হলেও স্টাফদের নিয়মিত বেতন দেওয়া হয় না। এখানে সেবা নিতে আসা রোগীরাও সবরকম সুবিধা থেকে বঞ্চিত। হাসপাতাল অভ্যন্তরে একটি উন্নতমানের ক্যান্টিন থাকলেও চড়া দামের কারণে সেখানে মানুষ যায় না। স্টাফদের পরামর্শে ও যোগসাজেশে হাসপাতালের বাইরে নর্দমার উপর অবস্থিত বিভিন্ন নিম্নমানের হোটেল থেকে উচ্চমূল্যে নিম্নমানের খাবার কিনে খায়।

দিনাজপুর ডায়াবেটিক হাসপাতলের চিকিৎসাকে সেবার মূল্য ও কার্যক্রমকে সত্যিকারের সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার জন্য বর্তমান কমিটি ও প্রশাসনসহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর পদক্ষেপ গ্রহণ করবে, এমনটি প্রত্যাশা দিনাজপুরবাসীর।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful