Templates by BIGtheme NET
আজ- রবিবার, ১ নভেম্বর, ২০২০ :: ১৭ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৬ : ৪৬ পুর্বাহ্ন
Home / টপ নিউজ / সীমান্ত দিয়ে বানের পানির মত আসছে জীবন নাশক ভয়াবহ মাদক-অস্ত্র ও ভারতীয় কাপড়

সীমান্ত দিয়ে বানের পানির মত আসছে জীবন নাশক ভয়াবহ মাদক-অস্ত্র ও ভারতীয় কাপড়

madok_drug_border_bd (1)_35061কুরবান আলী, দিনাজপুর ॥ দিনাজপুর সীমান্ত এলাকা দিয়ে বানের পানির মত আসছে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার জীবন বিনষ্টকারী ভয়াবহ মাদক, অস্ত্র ও বিভিন্ন রকম কাপড়। সীমান্ত রক্ষাকারী বাহিনী বিজিবি‘র টহল দিন দিন মন্থর গতি হয়ে আসছে। ফলে চোরাকারবারীর ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা আগের চেয়ে বর্তমান জোরদার করেছে।

অন্য দিকে ঈদকে সামনে রেখে চোরাকারবারীরা সীমান্তের ওপারে ঢুকে ভারতীয় চোরাকারবারীদের সাথে সক্ষতা গড়ে তুলে আনছে যুব সমাজকে নষ্ট করার জন্য মাদক, কাপড়সহ বিভিন্ন প্রকার আগ্নিঅস্ত্র। এদিকে জয়পুরহাট সীমান্ত এলাকার কয়াকড়িয়া, আটাপাড়া, হিলি, বাসুদেবপুর সীমান্ত এলাকা দিয়ে যেভাবে চোরাকারবারীরা তৎপর হয়ে চোরাচালান করছে এখনি তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা না নিলে তারা আরও ভয়ংকর রূপ ধারণ করবে। ঐ এলাকা দিয়ে বেশিরভাগ মাদক ও অস্ত্র আসছে। দিনাজপুরের ঘাসুড়িয়া, মংলা, কাটলা, দেশমা সীমান্ত দিয়ে অনুরূপ চোরাচালান অব্যাহত রয়েছে। ভারত থেকে যে সব পণ্য আসছে তার মধ্যে ফেন্সিডিল, প্যাথেডিন ট্যাবলেট, ভায়গ্রা, সেনেগ্রাসহ বিভিন্ন প্রকার যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও ইনজেকশন আসছে। আর ঈদকে সামনে রেখে বানের পানির মত আসছে ভারতীয় কাপড়।

এছাড়া কসমেটিক্স, মোটর সাইকেলের পার্স, জিরা, গরু, ইমিটেশন, ষ্টীল সামগ্রী। চোরাকারবারীর ব্যবসায়ীরা এই রুটকে ব্যবহার করে তারা তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। ৪০ বিজিবি ফুলবাড়ী সীমান্ত এলাকায় বিজিবি’র সদস্যরা আগে যেভাবে টহল দিয়ে ভারতীয় মালামাল আটক করতো বর্তমানে তা ঝিমিয়ে পড়েছে। এ কারণে চোরাকারবারীর ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। তারা বিভিন্ন যানবাহনে করে ভারতীয় মালামাল নিয়ে যাচ্ছে। ফলে সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান বন্ধকল্পে এখনই ব্যবস্থা না নিলে চোরাকারবারীরা আরও বেপরোয়া হয়ে উঠবে।

বর্তমান এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, পূর্বের চেয়ে বর্তমানে প্রায় ২০ হাজার চোরাকারবারী তাদের ব্যবসা করছে। বেশিরভাগ যুবক যুবতী ও উঠতি বয়সের যুবকেরা তারা ফেন্সিডিল ও অন্যান্য মাদক বহনে নিজস্ব মোটর সাইকেল ব্যবহার করছে। আর রুটে রুটে পুলিশকে ম্যানেজ করে তারা মালামালগুলো দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাচ্ছে। গত ২০১৩ সালে হিলি ও বিরামপুর সীমান্ত এলাকা দিয়ে ৪টি অত্যাধুনিক পিস্তল উদ্ধার হয়। প্রশাসনের কাছে ৪টি পিস্তল উদ্ধার হলেও প্রশাসনের নজর এড়িয়ে চলে যাচ্ছে একাধিক মাদক ও অস্ত্র। চলতি বছরের ২৯ জুন সীমান্ত ঘেষা ফুলবাড়ী সংলগ্ন কয়লা খনি এলাকায় অত্যাধুনিক ২টি পিস্তলসহ ২জনকে আটক করেন পুলিশ। আটককৃতরা হলেন, পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার সবুজপাড়া গ্রামের মহসিন আলীর পুত্র মমিনুল ইসলাম (৩০) একই উপজেলার বানিয়াপাড়া গ্রামের নজির উদ্দিনের পুত্র ফারুক হোসেন (Crime range২৫)কে পুলিশ আটক করে।

হাকিমপুর উপজেলায় ডিবি পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ৩০ জুন সোমবার গভীর রাতে ২টি অত্যাধুনিক বিদেশী পিস্তল ১২ রাউন্ড গুলি ৪টি ম্যাগজিন ও হিরোহোন্ডা মোটর সাইকেলসহ দিনাজপুরের ডিবি পুলিশের এসআই মোঃ বজলুর রশিদের নেতৃত্বে একটি টিম বিরামপুর উপজেলার কাটলা বিজুল বাজার থেকে ৩জনকে আটক করেন। আটককৃতরা হলেন, হাকিমপুর উপজেলার মকবুল হোসেনের পুত্র মঞ্জুরুল আলম (৩৫), অস্ত্র ক্রেতা নওগা জেলার আত্রাই থানার শিবপুর গ্রামের মৃত: আজিমুদ্দিনের পুত্র আশরাফ আলী (২৫) ও একই জেলার রাণীনগর গ্রামের ইয়ার উদ্দিনের পুত্র মিলন (২০)। এই এলাকা অস্ত্র ব্যবসায়ীদের একটি নিরাপদ রুট হিসেবে দাড়িয়েছে। এদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলার সাহস পান না। কারণ স্থানীয় রাজনৈতিক দলের প্রভাব অস্ত্র ব্যবসায়ীদের কালো টাকা ও সন্ত্রাসীদের সহযোগিতা রয়েছে। এ ব্যাপারে বিভিন্ন রাজনৈতিক মহল আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এব্যাপারে ফুলবাড়ী ৪০ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্নেল জাহিদুর রশিদের মোবাইলে (০১৭৬৯৬—২০) যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful