Templates by BIGtheme NET
আজ- মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০ :: ৫ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৪ : ১৫ পুর্বাহ্ন
Home / স্পোর্টস / ডাচরা সেমি-ফাইনালে

ডাচরা সেমি-ফাইনালে

স্পোর্টস  ডেস্ক, উত্তরবাংলা : বার বার মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে ভাগ্যদেবী; কিন্তু টাইব্রেকারের নিজেদের ভাগ্য নিজেরাই গড়ে নিয়েছে নেদাল্যান্ডস। গোলশূন্য ম্যাচ শেষে পেনাল্টি শুটআউটে কোস্টা রিকাকে ৪–৩ গোলে হারিয়ে ব্রাজিল বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে উঠে গেছে লুই ফন গালের দল।

পেনাল্টি শুটআউট শুরুর আগে নিয়মিত গোলরক্ষক ইয়াসপার সিলেসেনকে বদলে টিম ক্রুলকে নামান ফন গাল। নিউক্যাসল গোলরক্ষক দারুণ সফল। ব্রায়ান রুইসের দ্বিতীয় শটটি ঠেকানোর পর মিচেল উমানার পঞ্চম শটটি ঠেকিয়ে দলকে শেষ চারে পৌঁছে দেন ক্রুল।

তিনবার গোলপোস্ট গোলবঞ্চিত করে ডাচদের। নির্ধারিত সময়ের পর অতিরিক্ত সময়েও গোলশূন্য সমতা থাকায় উচ্ছ্বসিত হয়েছিলেন কোস্টা রিকার কোচ হোর্হে লুই পিন্তো। কিন্তু ডাচদের বিশেষজ্ঞ গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় কোয়ার্টার-ফাইনালেই রূপকথার ইতি টানতে হলো কোস্টা রিকাকে।

বুধবার সাও পাওলোয় আর্জেন্টিনার বিপক্ষে সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হবে নেদারল্যান্ডস।

শনিবার সালভাদরের আরেনা ফন্তে নোভায় ২২তম মিনিটে প্রথম পরিষ্কার সুযোগটি পায় নেদারল্যান্ডস। ডির্ক কুইটের কাছ থেকে বল পান মেমফিস ডিপাই। তিনি বল বাড়ান রবিন ফন পের্সিকে। কিন্তু সরাসরি কেইলর নাভাসের দিকে মেরে সুযোগ নষ্ট করেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা।

আট মিনিট পর আবার সুযোগ আসে ডাচদের সামনে। ফন পের্সির দারুণ একটি পাস ডি বক্সের ভেতর থেকে নাভাসের দিকে মেরে দলকে হতাশায় পোড়ান ডিপাই।

প্রথমার্ধের খেলা শেষ হওয়ার ছয় মিনিট আগে ভেসলি স্নেইডারের ফ্রি-কিক ঠেকিয়ে আবারো কোস্টা রিকার ত্রাতা নাভাস।

৮৩তম মিনিটে স্নেইডারের ফ্রি-কিক থেকে এগিয়ে যেতে পারতো নেদারল্যান্ডস। এবার ক্রসবারে লেগে বাইরে গেলে হতাশায় পুড়তে হয় গালাতাসারাইয়ের এই প্লেমেকারকে। দুই মিনিট পর ফন পের্সির শট ব্যর্থ করে দেন লেভান্তে গোলরক্ষক।

নির্ধারিত সময়ের এক মিনিট আগে চমৎকার একটি ক্রস দিয়েছিলেন স্নেইডার। ফন পের্সি মাথা না পা ছোঁয়াবেন –এই দ্বিধায় গোলের সহজতম সুযোগটি হারান তিনি।

যোগ করা সময়ে ফন পের্সিকে হতাশ করেন ইয়েলতসিন তেহেদা। ডাচ অধিনায়কের শট কোস্টা রিকার মিডফিল্ডার ফেরান প্রায় গোললাইন থেকে। বল ক্রসবারে লেগে ফিরলে নেদারল্যান্ডসের আরেকটি সুযোগ হাতছাড়া হয়ে যায়।

পরের মিনিটে কোস্টা রিকার ডি বক্সে জটলা থেকে গোলের দারুণ সুযোগ আসে ডাচদের সামনে। তিনজন খেলোয়াড় বলে পা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হলে খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে।

১০৫ মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ পায় কোস্টা রিকা। মারকো উরেনার কাছ থেকে ডি বক্সে বল পান ক্রিস্তিয়ান বোলানোস। কিন্তু ডিফেন্ডারকে এড়িয়ে শট নিতে পারেননি তিনি।

পরের মিনিটে আরেকটি সুযোগ আসে মধ্য আমেরিকার দেশটির সামনে। ডি বক্স থেকে উরেনার শট কোনোমতে ঠেকান ইয়াসপার সিলেসেন।

১১৯তম মিনিটে আরেকবার স্নেইডারকে হতাশ করে ক্রসবার। ডি বক্সের বাইরে থেকে তার শটটি নাভাসকে পরাস্ত করলেও ক্রসবারে লেগে বাইরে চলে যায়।

টাইব্রেকারে কোস্টা রিকার প্রথম শট থেকে গোল করেন সেলসো বোর্হেস। ঠিক দিকে ঝাঁপিয়েও তাকে ফেরাতে পারেননি ক্রুল। তবে রুইসের পরের শটটি ঠিকই ফেরান তিনি। এরপর ঠিক দিকে ঝাঁপালেও ঠেকাতে পারেননি জিয়ানকারলো গনসালেস আর ক্রিস্তিয়ান বোলানোসকে। কিন্তু শেষ শট নেয়া উমানাকে ব্যর্থ করে কোস্টা রিকার বিদায় নিশ্চিত করেন ক্রুল।

নেদারল্যান্ডসের পক্ষে শট নেন ফন পের্সি, রবেন, স্নেইডার আর কুইট। চারজনই কোস্টা রিকার মূল ভরসা নাভাসকে ফাঁকি দিয়ে বল জালে জড়ান।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful