Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ১৯ অগাস্ট, ২০১৯ :: ৪ ভাদ্র ১৪২৬ :: সময়- ৩ : ৩৩ পুর্বাহ্ন
Home / বগুড়া / বরখাস্ত আতংকে বিএনপি জামায়াতের জনপ্রতিনিধরা

বরখাস্ত আতংকে বিএনপি জামায়াতের জনপ্রতিনিধরা

bograবগুড়া : বগুড়ায় বিএনপি -জামায়াত সমর্থিত উপজেলা চেয়ারম্যান , ভাইস চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, কাউন্সিলর ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানসহ অন্যান্য জনপ্রতিনিধরা বরখাস্ত আতংকে ভূগছেন।

আদালতে চার্জশিট দাখিলের পর জেলায় এ পর্যন্ত ৬ জন উপজেলা চেয়ারম্যান , ৬ জন ভাইস চেয়ারম্যান, একজন পৌর মেয়র ও দুজন ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত (সাসপেন্ড) হয়েছেন। তাদের মধ্যে হাইকোর্টের আদেশে তিনজন উপজেলা চেয়ারম্যান ও তিনজন ভাইস চেয়ারম্যান দায়িত্ব ফিরে পেয়েছেন।

বগুড়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, চলমান সরকার বিরোধী আন্দোলনে নাশকতা , ভাংচুর , অগ্নিসংযোগ , অস্ত্র আইনসহ বিভিন্ন ঘটনায় বগুড়ার বিভিন্ন থানায় ৩৮জন জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। এসব মামলার মধ্যে ১৫টি মামলার চার্জশিট আদালতে দাখিল করেছে পুলিশ। সে কারণে স্থানীয় সরকার বিভাগ তাদেরকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন শেরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা আলহাজ্ব দবিবুর রহমান, নন্দীগ্রামে জামায়াত নেতা নূরুল ইসলাম মন্ডল, শিবগঞ্জে জামায়াত নেতা মাওলানা আ ন ম আলমগীর হোসাইন, দুপচাঁচিয়ায় জামায়াত নেতা আব্দুল গণি মন্ডল , সোনাতলায় বিএনপি নেতা একেএম আহসানুল তৈয়ব জাকির ও গাবতলীতে বিএনপি নেতা মোর্শেদ মিল্টন ।

তাদের মধ্যে হাইকোর্টের আদেশে দায়িত্ব ফিরে পেয়েছেন শেরপুর, নন্দীগ্রাম ও শিবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান। সাসপেন্ড ভাইস চেয়ারম্যানরা হলেন, দুপচাঁচিয়ায় বিএনপি নেতা আব্দুল মোত্তালেব মিন্টু, শেরপুরে বিএনপি নেতা আরিফুর রহমান মিলন, শিবগঞ্জে জামায়াতের আব্দুস সামাদ , আদমদিঘিতে জামায়াতের ইউনুস আলী , শাজাহানপুরে বিএনপির জহুরুল ইসলাম জাহেরুল ও কাহালুতে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাইফুল ইসলাম।

তবে হাইকোর্টে রিটের পর দায়িত্ব ফিরে পেয়েছেন দুপচাঁচিয়া, শেরপুর ও শিবগঞ্জের ভাইস চেয়ারম্যান। এদের মধ্যে কাহালুর ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ মামলা ছাড়া অন্যরা সবাই রাজনৈতিক মামলার আসামী। জেলায় তিনজন পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা হলেও শেরপুরের পৌর মেয়র বিএনপি নেতা স্বাধীন কুমার কুন্ডুর বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিলের পর তাকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।

এ ছাড়া জেলায় ১৮জন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অস্ত্র, নাশকতা, ভাংচুর , দূনীতিসহ বিভিন্ন ধরনের অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে। এদের মধ্যে দুজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিলের কারণে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তারা হলেন , অবৈধ অস্ত্র রাখার অভিযোগে অস্ত্র আইনে শিবগঞ্জ উপজেলার রায় নগর ইউপি চেয়ারম্যান ও জাতীয় পার্টির নেতা ফিরোজ আহমেদ রিজু , নারী ও শিশু নির্যাতন , অর্থ আত্মসাতসহ কয়েকটি মামলার আসামী আওয়ামীলীগ নেতা গাবতলী উপজেলার কাগইল ইউপি চেয়ারম্যান শফি আহমেদ স্বপন। হাইকোর্টে রিটের পর দায়িত্ব ফিরে পেয়েছেন রায়নগরের ইউপি চেয়ারম্যান। এ ছাড়া বগুড়া পৌরসভা সহ বিভিন্ন পৌরসভার বেশ কয়েকজন কাউন্সিলরের বিররুদ্ধে মামলা রয়েছে। তবে এখনও কেউ বরখাস্ত হননি।

বগুড়া জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন জানান, অন্যায়ভাবে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে। বিএনপির সমর্থিত জনপ্রতিনিধিদের অযথা মামলা দিয়ে সরকার তাদেরকে বরখাস্ত করছে। এতে করে বিএনপি সমর্থিত জনপ্রতিনিধিরা বরখাস্ত আতঙ্কে রয়েছেন ।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা বরখাস্তের পর ভারপ্রাপ্ত হিসেবে এসব উপজেলা , পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ চলছে। এর ফলে সার্বিক কর্মকান্ডে নানা সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। এতে হয়রানির শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

বগুড়া জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর আব্দুল হক জানান. এ সরকারের প্রতিহিংসার শিকার হয়ে বগুড়ায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান- ভাইস চেয়ারম্যান এবং পৌরসভার মেয়র পদে ২০ জন জামায়াত সমর্থিত জনপ্রতিনিধিকে বিভিন্ন মামলার চার্জশিট দিয়ে এবং গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়ে বরখাস্ত করা হয়েছে। এদিকে যে সব জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে তারা বরখাস্ত আতংকে রয়েছেন। একারণে অনেকে অফিস করতে পারেন না। তারা কেউ কেউ গ্রেফতার এড়াতে গা ঢাকা দিয়েছেন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful