Templates by BIGtheme NET
আজ- মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০ :: ৫ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৩ : ৫৭ পুর্বাহ্ন
Home / নীলফামারী / কিশোরগঞ্জে বিদ্যুতের মিসড কল : ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ

কিশোরগঞ্জে বিদ্যুতের মিসড কল : ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ

কিশোরগঞ্জ ফিরে এসে আপেল বসুনীয়া : নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার পাওয়ার ডেভলোপমেন্ট বোর্ড (পিডিবি) বিদ্যুতের চরম লোড শেডিং এ ও মিসড কলের কারণে কয়েক দিন ধরে অব্যাহত ভ্যাপসা গরমে জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। প্রচণ্ড খরতাপে হাঁপিয়ে উঠেছে মানুষ পশু পাখিসহ সকল প্রাণী। ছড়িয়ে পড়েছে জন্ডিস ও ভাইরাস জনিত জ্বর। প্রচণ্ড গরম ও ঘন ঘন বৈদ্যুতিক লোড শেডিং এর কারণে জন জীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। রাতে গরমের কারণে মানুষ ঘুমাতে পারছে না। প্রতিনিয়ত সংবাদ কর্মীরা সংবাদ পাঠাতে হিমশিম খাচ্ছে বিদ্যুতের কারণে। ফলে এলাকার নানাবিধ সমস্যা,উন্নয়ন,সম্ভাবনা,শিক্ষা,চিকিৎসাসহ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেশের বিভিন্ন স্থানে আদান-প্রদান করতে পারছে না সংবাদ কর্মীরা। অতিরিক্ত গরমের কারণে দেখা দিচ্ছে সর্দি,কাশি,শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগ। সবচেয়ে বেশী সমস্যা হচ্ছে বয়স্ক ও শিশুদের। শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া বিঘ্নিœত হচ্ছে। তাছাড়া অনেক নারী ও পুরুষের শরীরে দেখা দিয়েছে ফোসকা ও ঘামাচি। উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ডায়রিয়া ও জ্বরের রোগীর ভিড় জমছে। প্রয়োজন ছাড়া মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে না। ফলে ব্যবসা বাণিজ্যে মন্দাভাব দেখা দিয়েছে। অসহায় হয়ে পড়েছে খেটে খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষগুলো। কম্পিউটার ও ফটোষ্ট্যাট ব্যবসায়ীরা পড়েছে বিপাকে। কম্পিউটার ও ফটোষ্ট্যাট ব্যবসায়ী হামিদিয়া লাইব্রেরীর মালিক,হানিছুল ইসলাম জানান,বিদ্যুতের অসহনীয় লোডশেডিং ও বার বার বিদ্যুৎ আসা যাওয়ার ফলে পিসি কম্পিউটার অকেজো হয়েছে। ষ্টুডিও ব্যবসায়ী মতিন,বিলু,ও গ্রেনেড বাবু একই ভাবে বলেন,সামান্য সময় বিদ্যুৎ থাকলেও ভোল্টেজ কম থাকার কারণে এবং  বিদ্যুৎ বার বার আসা যাওয়ার ফলে কম্পিউটারের মূল্যবান যন্ত্রাংশ পুরে যায়। ফলে গ্রাহকদের সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয়। গরমের কারণে দুপুর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বেশীর ভাগ দোকানদার দোকান পাট বন্ধ করে দিচ্ছেন দোকানীরা। দোকানীরা জানান,দুপুর হলে অসহ্য গরমে দোকানে বসা যায় না। গরম বাড়ার সাথে সাথে বিদ্যুতের ভেলকিবাজিও বেড়েছে। কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. দিদার রসূল বলেন,গরমের কারণে হাসপাতালে ডায়রিয়া ও জ্বরের রোগীর চাপ বেড়েছে। প্রতিদিন আউটডোর থেকে শতাধিক রোগী চিকিৎসা নিতে আসছে। এদের বেশীর ভাগই হচ্ছে বয়স্ক ও শিশু। এ ব্যাপারে পিডিবি’র জলঢাকা আবাসিক প্রকৌশলীর সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,বিভিন্ন জায়গায় বিদ্যুতের তারে ফল্ট থাকার কারণে ভোল্টেজ কম থাকে। এখানে আমার করার কিছু নাই।

কিশোরগঞ্জে বিদ্যুতের মিসড কল : ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful