Templates by BIGtheme NET
আজ- বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০ :: ১৪ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ১ : ২২ অপরাহ্ন
Home / টপ নিউজ / ফুলবাড়ী কয়লা প্রকল্প নিয়ে নানামুখী তৎপরতা

ফুলবাড়ী কয়লা প্রকল্প নিয়ে নানামুখী তৎপরতা

Fulbari Koyla khoniদিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের ফুলবাড়ী কয়লা প্রকল্প নিয়ে এখন চলছে নানামুখী তৎপরতা। দক্ষিণ দিনাজপুর উন্নয়ন ফোরাম কয়লাখনিসহ ওই অঞ্চলের উন্নয়নের দাবিতে সভা-সমাবেশ অব্যাহত রেখেছে। পাশাপাশি খনিবিরোধীরা তৃণমূল পর্যায়ে কমিটি গঠনের কার্যক্রম শুরু করেছে।

অন্যদিকে এশিয়া এনার্জির মাতৃপ্রতিষ্ঠান যুক্তরাজ্যভিত্তিক জিসিএম রিসোর্সেস অভ্যন্তরীণ সংস্কার ও নতুন করে প্রস্তুতি নেওয়ার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। সরকারি-বেসরকারি সূত্রগুলো থেকে এ খবর জানা গেছে।
ফুলবাড়ী কয়লা প্রকল্প এবং ওই খনি এলাকা দিনাজপুর জেলার চারটি উপজেলায় বিস্তৃত। উপজেলাগুলো হলো ফুলবাড়ী, বিরামপুর, পার্বতীপুর ও নবাবগঞ্জ। এর মধ্যে ফুলবাড়ীকে কেন্দ্র করে শুরু থেকে গড়ে ওঠে খনিবিরোধী আন্দোলন। এখন অন্য তিন উপজেলার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ গণসংগঠনের নেতাদের নেতৃত্বে গড়ে উঠেছে দক্ষিণ দিনাজপুর উন্নয়ন ফোরাম।
ফোরামের মূল দাবি, ওই অঞ্চলের সার্বিক উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান। এর মধ্যে কয়লাখনির উন্নয়ন প্রধান বিষয়। ফোরামের কয়েকজন নেতা প্রথম আলোকে বলেন, তাঁদের বক্তব্য ও দাবির পক্ষে এখন তাঁরা ওই অঞ্চলে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করছেন। এরপর ওই স্বাক্ষরসংবলিত দাবিনামা নিয়ে তাঁরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চান।
স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, উন্নয়ন ফোরামের এই তৎপরতার বিপরীতে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির স্থানীয় নেতারা প্রতিটি উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে কমিটি গঠনের কাজ শুরু করেছেন।
জিসিএম রিসোর্সেস গত ২১ ফেব্রুয়ারি মালয়েশিয়াভিত্তিক বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান মেত্তিজ ক্যাপিটাল লিমিটেডকে ফুলবাড়ী খনি প্রকল্প বাস্তবায়নের বিষয়ে উপদেষ্টা নিয়োগ করে। গত প্রায় তিন মাসেও মেত্তিজ উল্লেখযোগ্য কিছুই করতে পারেনি। এ নিয়ে জিসিএমের মধ্যে হতাশা রয়েছে।
জিসিএম তাদের লন্ডন ও ঢাকা অফিসের বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দিয়েছে। আবার স্থানীয় পর্যায়ে কিছু নতুন লোককে কাজে লাগিয়েছে। তা ছাড়া গত ফেব্রুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত জিসিএমের শেয়ারের দরদামে কিছু উত্থান-পতন হয়েছে।
প্রশ্ন উঠেছে, ফুলবাড়ী কয়লাখনি বাস্তবায়নে মেত্তিজ ক্যাপিটাল কোন যোগ্যতায় জিসিএমের উপদেষ্টা নিযুক্ত হলো? খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাংলাদেশে মেত্তিজের নিজ নামে কোনো বিনিয়োগ বা প্রকল্প নেই। তবে অন্য কয়েকটি কোম্পানির পেছনে থেকে মেত্তিজ এখানে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের কয়েকটি প্রকল্পে বিনিয়োগ করেছে।
মেত্তিজের সঙ্গে জিসিএমের এক বছর মেয়াদি চুক্তি (অ্যাডভাইজারি এগ্রিমেন্ট) হয়েছে। চুক্তির শর্ত হচ্ছে, যদি মেত্তিজ ফুলবাড়ী কয়লাখনি বাস্তবায়নের বিষয়ে কোনো ইতিবাচক অগ্রগতি সাধন করতে সক্ষম হয়, তাহলে জিসিএমের ২৫ লাখ শেয়ারের (প্রতিটি শেয়ারের দাম ৪০ পেনি ধরে) মালিকানা পাবে তারা। আর এক বছরের মধ্যে এ রকম কিছু না হলে চুক্তি বাতিল হয়ে যাবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful