Templates by BIGtheme NET
আজ- বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০ :: ১৪ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ১ : ৪৯ অপরাহ্ন
Home / কুড়িগ্রাম / বৃক্ষ ছায়ায় সমৃদ্ধ গ্রাম গড়তে চায় বয়োবৃদ্ধ ওসমান গণি

বৃক্ষ ছায়ায় সমৃদ্ধ গ্রাম গড়তে চায় বয়োবৃদ্ধ ওসমান গণি

Osman Goni.2কচাকাটা,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: “বিশিষ্ট সমাজ সেবক” কথাটি আজকাল সস্তার দরে বিকয় বলে প্রায়শ: দেখা যায় ফুল নেতা থেকে হাফ নেতা সহ নেতা হওয়ার স্বপ্নে বিভোর সকল মানুষের নামের পাশে পদবী হিসেবে। আর নেতা নেতৃদের সমাজসেবার অন্তরালে কি কর্ম ঘটমান তা আমাদের দেশের আমজনতার অজানা নেই।

কিন্তু এমন কিছু মানুষ আছে যারা সমাজের বিভিন্ন স্তরে বিনিময়হীন ও বিরামহীন কাজ করে করে নিজেদের জীবন ক্ষয়েছেন তাদের কথা কেউ মনে রাখে না বলেই আলোচনায় উঠে আসেনা তারা।

এমনি এক অজানা অখ্যাত সমাজসেবক বয়োবৃদ্ধ ওসমান গণি যার সেবায় বিমুগ্ধ নিভৃত পল্লীর নারী পুরুষ শিশু যুবা সবাই। বৃক্ষের ছায়ায় নিজ গ্রামকে সকল দিক থেকে সমৃদ্ধ করতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

ষাট পেরুনো ওসমান গণি কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের কুটিবামনডাঙ্গা গ্রামের মৃত্যু আলহাজ্ব হোসেন আলী ব্যাপারীর সন্তান । গ্রামটির তিন পাশদিয়ে বয়ে গেছে প্রমত্ততা দুধকুমার নদ, যোগাযোগ ব্যবস্থা নাই বললেই চলে একমাত্র একটি নবনির্মিত কাঁচা রাস্তা। এ বিরান ভূমিটি পুরোপুরি চরাঞ্চল লোকজনের চলাচল একেবারে নগণ্য।

এই নিভৃত পল্লীতে বসে ওসমান গণি স্বপ্ন দেখে শহরে নয় গ্রামে অনেক কিছু করার আছে। সেই স্বপ্ন থেকে ১৯৯৮ সাল থেকে শুরু করেন গ্রাম উন্নয়নের কাজ । নিজ অর্থে নিজের জমিতে স্থাপন করেন মসজিদ। সংস্কার শুরু করেন রাস্তা ঘাট । কোথাও রাস্তা ভেঙ্গে গেলে পারলে নিজে অথবা নিজ খরচে চলে মেরামতের দৌড়ঝাঁপ। মানুষের বিপদ হলে সবার আগে ছুটে যান তিনি সহযোগিতার হাতবাড়িয়ে। গ্রামের শিশুরা যাতে একটু বিনোদন পায় তার জন্য নিজ বাড়িটিকে পার্ক হিসেবে গড়ে তুলতে চান তিনি। কিছুটা হলেও সফলও হয়েছেন ।

নিজ বাড়িটির চারপাশে লাগিয়েছেন বিভিন্ন ফলজ ও বনজ বৃক্ষ। তার মাঝে স্থাপন করেছেন ইট সুড়কি দিয়ে বসার বেঞ্চ। ঠিক শিশু পার্কের আদলে তৈরি করছেন তার বাড়িটি উদ্দেশ্য একটাই যাতে মানুষের উপকার হয়। শুধু মানুষ নয় তার পার্কের উপকার গ্রহণ করছে পাখিরাও বিভিন্ন প্রজাতির পাখিরা বাসা বেঁধেছে গাছের ডালে ডালে। যেন তাদের অভয়াশ্রম।
বাড়ির ভিতর বাহির পুরটাই ছায়াঘেরা দূর থেকে বোঝার উপায় নেই এখানে একটি বাড়ি আছে, মনে হয় বন তাই তার বাড়ির নামটিও অদ্ভুত- মায়াবন খামার বাড়ি।

শুধু নিছক বিনোদন ও বিপদে পাশে দাঁড়ানোই নয়, গ্রামের সকলকেই পরামর্শ দেন বেশী বেশি গাছ লাগানোর এবং প্রতিটি বাড়ি একটি করে খামার বাড়ি হিসেবে গড়ে তুলতে উৎসাহ প্রদান করছেন সকলকে। যাতে নিজের উৎপাদনে সবাই সাবলস্বী হয়।

ব্যক্তিগত জীবনে ওসমান গনি দুই সন্তানের জনক। সন্তানরা নিজ নিজ কর্মে প্রতিষ্ঠিত। স্ত্রী কহিনুর বেগম প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা। নিজে বিএ পাশ করলেও কৃষিকাজই তার পছন্দের তাই চাকুরী করা হয়নি । স্বাধীনতা যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করলেও মেলেনি মুক্তিযোদ্ধার সনদ তবে সেটা নিয় তার দুঃখ নেই। কারণ সনদ দিয়েই শুধু যোদ্ধা পরিমাপ করা যায়না প্রকৃত যোদ্ধারা এখনো যুদ্ধ করছে সমাজ নিয়ে, দেশ নিয়ে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful