Templates by BIGtheme NET
আজ- মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০ :: ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ :: সময়- ৩ : ২২ অপরাহ্ন
Home / আলোচিত / এক স্ত্রীর তিন স্বামী

এক স্ত্রীর তিন স্বামী

Kurigram map রাজীবপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলার খেয়ারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা ইসমেতারা খাতুনকে স্ত্রী হিসেবে দাবি করছে তিন ব্যক্তি।

তিন জনই সরকারি ভাবে নিকাহ রেজিষ্ট্রি করে বিয়ে করেছেন বলেও জানান তারা। গত বুধবার (২১সেপ্টেম্বর) বিকাল ৪টার দিকে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে নিজের স্ত্রী দাবি করে হায়দার আলী নামের এক ইউপি সদস্য ইসমেতারা খাতুনকে জোরকরে তুলে নিয়ে যায় তার বাড়িতে। পরে অবশ্য থানা পুলিশ ওই শিক্ষিকাকে উদ্ধার করে। এখবর পেয়ে ওই শিক্ষিকার আরো দুই স্বামী তাকে নিজেদের স্ত্রী হিসেবে দাবি করে হাজির হয় ইসমেতারার বাড়িতে। মুহুর্তের মধ্যে বিষয়টি সারা এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে।
জানা গেছে, ওই ঘটনার চারদিন আগে গত রবিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) পারিবারিক ভাবে আনুষ্ঠানের মাধ্যে ইসমেতারা খাতুনকে বিয়ে দেয়া হয় পাশ্ববর্তী থানা রাজীবপুর উপজেলার বদরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে। বিয়ের এ খবর পেয়েই হায়দার আলী জোরকরে তুলে নেয়ার ওই ঘটনা ঘটায়।
রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের খেওয়ারচর গ্রামের নির্বাচিত ৯নং ওয়ার্ড সদস্য হায়দার আলী। অভিযোগ প্রসঙ্গে হায়দার আলী বলেন, ‘প্রেম ভালোবাসার সর্ম্পক করে চলতি বছরের ২৩ মার্চ অর্থাৎ রাজীবপুর কাজী অফিসে উপস্থিত হয়ে বিয়ে রেজিষ্ট্রি করেন। তবে বিষয়টি দু’জনের সমঝোতার মাধ্যমে গোপন রাখা হয়েছিল। আমি তার বৈধ স্বামী। আমাকে না জানিয়ে তাকে অন্যত্র বিয়ে দেয়া হয়েছে।’
এদিকে ইসমেতারা খাতুনের ওই দুই স্বামী নিয়ে যখন এলাকায় সমলোচনার সৃষ্টি ঠিক সেই মুহুর্তে গতকাল বৃহষ্পতিবার(২২সেপ্টেম্বর) আব্দুল হাকিম নামের এক ব্যক্তি হাজির হয় ইসমেতারার বাড়িতে। তিনিও তাকে স্ত্রী দাবি করছেন। তাদের মাঝে দুই বছর আগে বিয়ে হয়েছে এমন বিয়ে রেজিষ্ট্রির কাগজপত্রও দেখাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের বিয়ে হয়েছে দুই বছর আগে। এই যে দেখেন বিয়ের নকলপত্র। আমার স্ত্রীকে আমি নিয়ে যেতে এসেছি।’ এ অবস্থায় ইসমেতারা খাতুন আত্মগোপন করেন। কোথাও আছেন তা পরিবারের কোনো সদস্যই বলছেন না।
উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের সায়েদাবাদ গ্রামে ইসমেতারা খাতুনের বাড়ি। তার পিতা আকবর হোসেন বলেন, ‘এর আগে তার দুই বিয়ে হয়েছে কিনা তা আমরা জানি না। পারিবারিক ভাবে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে যে বিয়েছে সেটাই বৈধ। ইসমেতারা দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় আত্মীয়র বাড়িতে আছেন। আত্মীয়র নাম ঠিকানা তিনি জানাতে অস্বীকার করেন।’

ইসমেতারা খাতুনের স্বজন যাদুরচর ইউপি চেয়ারম্যান সবরেশ আলী জানান, রবিবার ইসমেতারা খাতুনকে রাজীবপুরে বিয়ে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনার পর রহায়দার আলী ও আব্দুল হাকিমও নিজেদের স্ত্রী হিসেবে দাবি করছে। এটা সত্য।
অভিযোগ প্রসঙ্গে জানার জন্য ইসমেতারা খাতুনের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ রয়েছে। সে কোথায় আছে কেউ বলছে না। ফলে তার বক্তব্য নেয়া যায়নি। তবে তার পিতা আকবর আলী বলেন, ‘হায়দার আলী আর আব্দুল হাকিম মিথ্যে স্বামীর দাবি করছে। ’

যাদুরচর ইউনিয়নের দায়িত্ব প্রাপ্ত নিকাহ রেজিষ্ট্রার আব্দুস সবুর জানান, নিয়ম অনুসারে প্রথম যে বিয়ে রেজিষ্ট্রি হয়েছে সেটা যদি তালাক প্রাপ্ত না হয় তাহলে পরের বিয়ে রেজিষ্ট্রি একটাও বৈধ হবে না।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful