Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২০ :: ৯ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৫ : ৫৩ অপরাহ্ন
Home / নীলফামারী / ঢাকা-মুখি বিলাসবহুল নীলসাগর ট্রেন এবার চলবে সীমান্ত জনপদ চিলাহাটি থেকে

ঢাকা-মুখি বিলাসবহুল নীলসাগর ট্রেন এবার চলবে সীমান্ত জনপদ চিলাহাটি থেকে

nil sagor trainইনজামাম-উল-হক নির্ণয় (নীলফামারী) ও আপেল বসুনিয়া (ডোমার): সৈয়দপুর-ঢাকা পথে চলাচলকারী একমাত্র বিলাসবহুল আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটির গন্তব্য পরিবর্তিত করা হয়েছে। আগামী ১০ জুলাই গ্রীষ্মকালীন সূচিতে (শিডিউল) চলবে ওই ট্রেনটি। আর সেদিন থেকে নীলসাগর ট্রেনটি নতুন গন্তব্য করা হচ্ছে নীলফামারীর চিলাহাটি সীমান্ত জনপদ থেকে ঢাকার পথে ছেড়ে যাবে।
পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে সূত্র জানায়, আগামী ১০ জুলাই থেকে সারাদেশে ট্রেন চলাচলে গ্রীষ্মকালীন সময়সূচী বলবত হচ্ছে। ওই দিনই সৈয়দপুর-ঢাকা পথে চলাচলকারী নীলসাগর আন্তঃনগর ট্রেনটিরও নতুন গন্তব্য নির্ধারিত হয়েছে চিলাহাটি।
সূত্রমতে, আগামী ১০ জুলাই রাত ৯টা ২০ মিনিটে নীলসাগর ট্রেনটি চিলাহাটি থেকে ছেড়ে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশনে পৌঁছাবে পরদিন সকাল ৭.৫০ মিনিটে। একই ট্রেন ওইদিন সকাল ৮.২০ মিনিটে চিলাহাটির উদ্দেশ্যে ছেড়ে বিকাল সাড়ে ৬টায় চিলাহাটি পৌচ্ছবে।
এদিকে রবিবার বিকালে বিলাসবহুল আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটির চিলাহাটি পর্যন্ত পরীক্ষামূলক যাত্রা করা হয়েছে। পশ্চিমাঞ্চল রেলের ঊর্ধ্বতন উপসহকারি প্রকৌশলী তহিদুল ইসলাম জানান নীলসাগরের ১০ বগি ও একটি ইঞ্জিন নিয়ে তিনি ট্রেনটির পরীক্ষামূলক যাত্রা সম্পন্ন করেছেন। তিনি আশা করছেন আগামী ১০ জুলাই থেকে ট্রেনটি চিলাহাটি,ডোমার,নীলফামারী,সৈয়দপুর হয়ে ঢাকা চলাচল করবে।
এদিকে চিলাহাটি থেকে নীলসাগর ট্রেন চালু হচ্ছে এ খবরে ওই এলাকায় আনন্দ বন্যা বইতে শুরু করেছে। চিলাহাটি স্থলবন্দর বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক আবু মুসা মাহমুদুল হক তাঁর প্রতিক্রিয়ায় জানান, চিলাহাটি থেকে সব ট্রেন চালুর ব্যাপারে আমরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে যাচ্ছি। খবরটি নিঃসন্দেহে এ এলাকার মানুষের জন্য আনন্দের। তিনি বলেন, ১০ জুলাই থেকে নীলসাগর ট্রেন চিলাহাটি থেকে চালুর আনন্দে এলাকাবাসী একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উদ্যোগ নিয়েছে। এলাকার সর্বস্তরের মানুষ ওই শোভাযাত্রায় অংশ নেবে।
সূত্র জানায়, নীলফামারী জেলার সীমান্তবর্তী জনপদ চিলাহাটি স্টেশন হতে অতীতে অবিভক্ত ভারতের আসাম বেঙ্গল রেলওয়ে ট্রেন চলতো। ১৯৪৭ সালে দেশ বিভাগের পরও পাকিস্তান সরকারের ট্রানজিট সুবিধা নিয়ে চিলাহাটি-সৈয়দপুর হয়ে ভারতীয় দার্জিলিং মেইল ট্রেনটি কলকাতার শিয়ালদহ পর্যন্ত চলাচল করেছে। পরে ১৯৬৫ সালে পাকিস্তান-ভারত যুদ্ধ চলাকালে চিলাহাটি থেকে ভারতের কুচবিহার জেলার হলদিবাড়ী পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার রেলপথটি অবলুপ্ত করা হয়। ফলে চিলাহাটি রেলওয়ে স্টেশনটি গুরুত্ব হারিয়ে ফেলে।
রেলওয়ে সূত্রমতে, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এলে চিলাহাটি থেকে ঢাকাসহ অন্যান্য গন্তব্যে ট্রেন চালুর প্রতিশ্রুতি দেয়। সেই ধারাবাহিকতায় সৈয়দপুর থেকে চিলাহাটি রেলওয়ে সেকশনে ৫৪ কিলোমিটার রেলপথ উন্নয়ন, চিলাহাটি স্টেশনের সংস্কার, ট্রেনের পরিচ্ছন্ন স্থাপনা (ওয়াশপিট) নির্মাণ কাজ হাতে নেওয়া হয়।
সৈয়দপুর রেলপথ বিভাগের ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী মকবুল হোসেন জানান, সৈয়দপুর চিলাহাটি সেকশনের রেলপথ উন্নয়ন কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। চিলাহাটিতে স্টেশন সংস্কার ও ওয়াশপিট নির্মাণ কাজও শেষ হয়েছে। কাজেই ওই রুটে দূরপাল্লার ট্রেন চলাচল আর কোন ঝুঁকি নেই।
আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক নীলফামারী-২ আসনের সাংসদ আসাদুজ্জামান নুর জানান, নীলসাগর ট্রেনটি চিলাহাটি পর্যন্ত চলাচল শুরু করলে পার্শ্ববর্তী পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও ও লালমনিরহাট জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের যাত্রীরা রেলপথে ঢাকা যাতায়াতের সুযোগ পাবেন। তিনি বলেন, ভবিষ্যতে চিলাহাটি থেকে দেশের বিভিন্ন গন্তব্যের একাধিক ট্রেন চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful