Templates by BIGtheme NET
আজ- বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০ :: ৭ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৪ : ১৫ পুর্বাহ্ন
Home / টপ নিউজ / রংপুর মেডিকেলে রেডিওলোজি বিভাগ চলছে ধার করা টেকনোলজিস্ট দিয়ে

রংপুর মেডিকেলে রেডিওলোজি বিভাগ চলছে ধার করা টেকনোলজিস্ট দিয়ে

RNP Medical Getস্টাফ রিপোর্টার: রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রেডিওলোজি, ইমেজিং ও সিটি স্ক্যান বিভাগটি চলছে ধার করা টেকনোলজিস্ট দিয়ে। ফলে একদিকে যেমন রোগীরা পাচ্ছেনা কাঙ্খিত সেবা, অন্যদিকে স্বল্প জনবল দিয়ে বিপুল সংখ্যক রোগীর সেবা প্রদানে হিমসিম খেতে হচ্ছে সেখানকার কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের। দীর্ঘ দিন ধরে সেখানে এই অবস্থা বিরাজ করলেও কবে এর সমাধান হবে তা কেউ বলতে পারছেনা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, এই এলাকার মানুষের উন্নত চিকিৎসা সেবা দেওয়ার লক্ষে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল তৈরি করা হয়। প্রথমে ৬০০ শয্যার ব্যবস্থা থাকলেও বিপুল জনগোষ্ঠির স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য বেড সংখ্যা বাড়িয়ে ১০০০ হাজারে উন্নিত করা হয়। সে তুলনায় বাড়ানো হয়নি হাসপাতালের রেডিওলোজি ও ইমেজিং বিভাগের জনবল। ফলে ২০ বছর আগে নিয়োগ করা ৯ জন এবং ডেপুটিশনে আনা ৩ টেকনোলজিস্ট দিয়েই চলছে এই বিভাগটি।

সংশ্লিষ্ট বিভাগ জানিয়েছে, এ বিভাগে প্রতিদিন প্রায় ২ হাজার মানুষের এক্স-রে সেবা দান করা হয়।

হাসপাতালের রেডিওলোজি বিভাগের টেকনোলজিস্টরা জানান, হাপাতালে বেডের সংখ্যা বাড়ানোর সাথে সাথে বাড়ানো হয়েছে এখানকার যন্ত্রপাতি, তাছাড়া নতুন করে সংযোজিত হয়েছে সিটি স্ক্যান, এমআরআই। কিন্তু এতো কিছু বাড়ানোর পরো বাড়েনি টেকনোলজিস্ট সংখ্যা। যদিও পরিচালক ডেপুটিশনে ৩ জন টেকনোলজিস্ট এনেছেন। কিন্তু সেটা সংখ্যার তুলনায় খুবই অপ্রতুল। এ ছাড়াও আমরা প্রতিনিয়ত আলট্্রাভায়োলেট রশ্মিতে পুড়ে রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছি। সরকার আগে আমাদের ইউজার ফি (ঝুঁকি ফি) দিতো, এখন সেটাও বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে এক প্রকার মানবেতরভাবে জীবনযাপন করতে হচ্ছে আমাদের।

রেডিওলোজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক ডা. আলতাব হোসেন বলেন, হাসপাতালে বেড সংখ্যা ১০০০ এ উন্নীত করার পর এবং নতুন করে সিটি স্ক্যান ও এমআরআই চালু করার পর রেডিওলজিবিভাগে টেকনোলজিস্টের চাহিদা দাঁড়িয়েছে কমপক্ষে ২৫ জন। সে যায়গায় এখানে টেকনোলজিস্ট আছে ডেপুটেসনসহ সর্বসাকুল্যে ১২ জন। এই ১২ জন টেকনোলজিস্ট প্রতিদিন প্রায় দেড় থেকে দুই হাজার রোগীকে সেবা প্রদান করে যাচ্ছে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. গোলাম মোস্তফা বলেন, আমি স্বাস্থ্য পরিচালকের নিকট প্রতি মাসেই টেকনোলজিস্টদের চাহিদার কথা উল্লেখ করে চিঠি পাঠিয়ে আসছি। কিন্তু সেখান থেকে কোনো সদুত্তর পাচ্ছিনা। আশা করছি খুব শিঘ্রই এ সমস্যার সমাধান করা হবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful