Templates by BIGtheme NET
আজ- রবিবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০ :: ১০ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৫ : ০৩ পুর্বাহ্ন
Home / টপ নিউজ / ঈদ সামনে রেখে রংপুরে বেপরোয়া ছিনতাইকারীরা

ঈদ সামনে রেখে রংপুরে বেপরোয়া ছিনতাইকারীরা

Sintai Logoস্টাফ রিপোর্টার: ঈদকে সামনে রেখে আবাও সক্রিয় হয়েছে উঠেছে ছিনতাইকারীরা। শুধু রাত নয় ভর দুপুরেও খোদ নগরীর প্রাণ কেন্দ্রও অভিনব কায়দায় ছিনতাই শুরু হয়েছে। এ ঘটনায় চরম আতংকে রয়েছে নগরবাসী।

পুলিশ প্রশাসনও বিষয়টি স্বীকার করে বলছে, আমরা প্রতিদিনই অভিযান অব্যাহত রাখছি এবং ছিনতাইকারীদের গ্রেপ্তার করছি। এরই মধ্যে বিভিন্ন পাড়ার ক্রাইমারদের নাম ঠিকানা সংগ্রহ করা হয়েছে। তাদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

জানা গেছে, নগরীর অলিগলি থেকে শুরু করে বিভিন্ন শপিংমল এবং নগরীর প্রধান সড়কের অহরহ ছিনতাইয়ের মত ঘটনা ঘটছে। এ ঘটনা এতই বেড়ে গেছে যে ডাল ভাতের মত অবস্থা। এমন কোন দিন নেই যে দিন নগরীর কোন না কোন এলাকায় ৫/১০টি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে না। দেশীয় অস্ত্র এবং চাকু দিয়ে আক্রমণ করে এসব ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছে, শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে রংপুর থেকে প্রকাশিত দৈনিক প্রথম খবর পত্রিকার সিটি রিপোর্টার সাখাওয়াত হোসেন অফিসের আসার জন্য নগরীর খলিফা পাড়ার বাসা থেকে আসছিল। বাসা থেকে মাত্র দেড়’শ গজ দুরে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা মুখশধারী তিন ছিনতাইকারী তার পথরোধ করে ধরে।

এ সময় রামদা দিতে তার মাথায় আঘাত করে সাথে থাকা মোবাইল সেট, নগর সাড়ে ৪শ’ টাকা এবং ইসলামী ব্যাংকের এটিএম কার্ড ছিনিয়ে নেয়। এর আগে একই এলাকায় বেলা আড়াইটার দিকে আরো তিনটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।
আপেল নামে এক ছাত্র অভিযোগ করে জানান, তিনি বিকাল তিনটার দিকে প্রেসক্লাব থেকে রিক্সা যোগে মেডিকেল মোড়ের দিকে যাচ্ছিলেন। রিক্সাটি নগরীর প্রাণ কেন্দ্র জাহাজ কোম্পানী মোড় আসলে এক যুবক জোড় করে তার রিক্সায় চেপে বসে। পাঁচ গজ যেতে না যেতে রিক্সাতে বসেই চাকু বের করে ভয় দেখায়। পরে রিক্সাটি বেতপট্রি মোড় জেলা আওয়ামী লীগীরে অফিসের কাছে নিয়ে গিয়ে চাকুর মুখে তার সাথে থাকা মোবাইল ফোন এবং নগদ ২শ’ টাকা নিয়ে সটকে পড়ে।

নগরীর শালবন এলাকার বেশ ক’জন ব্যক্তি নাম প্রকাশ না করে, তাদের এলাকার হারাগাছ রোডে ইন্দ্রার মোড় এলাকায় তিন দিনে চারটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। সব ছিনতাই দিনের বেলা ঘটেছে। স্থানীয় একটি চক্র এর সাথে জড়িত। পুলিশ প্রশাসনও বিষয়টি জানে। কিন্তু প্রশাসনের কোন তদারকি নেই।

এদিকে নগরীর প্রতিদিনই ছিনতাই হচ্ছে নগরীর আরকে রোডের নজরুল পাঠাগাড় এলাকায়, টার্মিনাল এলাকা, মুলাটোল পাকার মাথা, মেডিকেল পূর্ব গেট, পার্ক মোড়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় গেট, কারমাইকেল কলেজিয়েট এলাকা, কামাল কাছনা, শিয়ালুর মোড়, বড় পুল, মিস্ত্রিপাড়া কবরস্থান, তুথ ফার্ম, শ্মশ্বান, সাতমাথা, স্টেশন এলাকা, গলাকাটার মোড়, স্টেশন রোড, খোদ ডিসির মোড়, বাংলাদেশ মোড় এলাকা, গুপ্তপাড়া পুরাতন পার্স পোর্ট অফিস সংলগ্ন, নুর পুর এলাকা, গনেষ পুর ছাড়াও নগরীর বিভিন্ন পাড়ায় পাড়ায় শুরু হয়েছে ছিনতাইয়ের ঘটনা।

পুলেশের দেয়া তথ্য মতে গেল এক সপ্তাহে নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অন্তত ২০ জন ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

রংপুর পুলিশ সুপার আব্দুর রাজ্জাক জানান, পুলিশ ছিনতাইকারীদের গ্রেপ্তার করতে মাঠে নেমেছে। মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে ঈদের কেনাকাটা করতে পারে সে জন্য ১৫ রমজান থেকে মাঠে স্পেশাল টিম কাজ করবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful