Templates by BIGtheme NET
আজ- বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০ :: ৭ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৬ : ৪৫ পুর্বাহ্ন
Home / নীলফামারী / চিলাহাটি -ঢাকা নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচলের দাবিতে মানববন্ধন

চিলাহাটি -ঢাকা নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচলের দাবিতে মানববন্ধন

02.Photo Nilphamari 25.07.2013ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়,নীলফামারী ২৫ জুলাই॥ নীলফামারীর ডোমার উপজেলার চিলাহাটি থেকে ঢাকা চলাচলের জন্য আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি দ্রুত চালুর দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এলাকাবাসির উদ্যোগে বৃহস্পতিবার দুপুরে ডোমার উপজেলা শহরের রেলঘুন্টি মোড়ে দুপুর ১২টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত চলা মানববন্ধনে বক্তৃতা দেন ডোমার উপজেলা নাগরিক কমিটির আহবায়ক আইয়ুব আলী, ব্যবসায়ী নুরুজ্জামান, আতিয়ার রহমান, প্রভাষক মোস্তফা ফিরোজ প্রধান প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, গত ১০ জুলাই ঢাকা থেকে ছেড়ে বিলাশবহুল আন্তঃনগর ওই ট্রেনটি সন্ধ্যা সোয়া ছয়টায় চিলাহাটি পৌঁছে সন্ধ্যা সোয়া নয়টায় সেখান থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করার কথা ছিল। এ বিষয়ে ট্রেনের সময়সূচী ও বরাদ্দকৃত আসনের সংখ্যা ডোমার এবং চিলাহাটি রেলস্টেশনে এসে পৌঁছে। ৯ জুলাই পশ্চিমাঞ্চল রেলের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের একটি টীম রেলপথ ও চিলাহাটি রেলস্টেশনের ওয়াশ পিট পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করে ট্রেন চলাচলের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। কিন্তু সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হলেও ৯ জুলাই রাতে আকস্মিকভাবে চিলাহাটি পর্যন্ত চলাচল স্থগিত হয় ট্রেনটির। ঈদের আগে ট্রেনটি চালু করা না হলে কঠোর আন্দোলনের হুমকিও দেন তাঁরা।

নাগরিক কমিটির আহবায়ক আইয়ুব আলী বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে নীলসাগর ট্রেনটির জন্য আন্দোলন করছি। ট্রেনটি যখন স্বাভাবিক নিয়মে চলাচলের জন্য দিনন ঠিক হলো তখন এটি কেন বন্ধ হলো আমরা তা জানতে চাই।
নীলফামারী ২ আসনের (সদর) সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর এব্যাপারে বলেন, আমি গত বুধবার রেল মন্ত্রী মুজিবুর রহমানের সাথে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন যত দ্রুত সম্ভব ট্রেনটি চালু করা হবে। প্রয়োজনে কোন আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই ট্রেনটি চালু করা হবে।
উল্লেখ যে নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি ২০০৭ সালে ১ ডিসেম্বর থেকে যাত্রা শুরু করে চলাচল করছে নীলফামারী থেকে ঢাকা পর্যন্ত। ট্রেনটির যাত্রাকালে দাবি ওঠে জেলার সীমান্ত এলাকা চিলাহাটি থেকে চলাচলের। এলাকাবাসির দাবির প্রেেিত প্রধানমন্ত্রী হেখহাসিনা প্রতিশ্রুতি দেন ট্রেনটি চিলাহাটি পর্য়ন্ত চলাচলের। কিন্তু রেল পথের দুরাবস্থা এবং সেখানে ওয়াশপিটের অভাবে সে সময়ে সম্ভব হয়ে ওঠেনি চিলাহাটি পর্যন্ত নেয়া। এরপর ২০১০ সালে ২২৬ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্প গ্রহণের পর সৈয়দপুর থেকে চিলাহাটি পর্যন্ত ৫২ দশমিক দুই কিলোটিমার রেলপথ ও নয়টি রেল স্টেশন সংস্কার ও চিলাহাটিতে একটি ওয়াশপিট স্থাপনের পর দ্রুতগামী ট্রেন চলাচলের উপযোগী করা হয়।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful