আর্কাইভ  রবিবার ● ৫ ডিসেম্বর ২০২১ ● ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   রবিবার ● ৫ ডিসেম্বর ২০২১

চলছে বাস, ফিরেছে স্বস্তি

বুধবার, ১ মার্চ ২০১৭, বিকাল ০৫:১৫

আজ বুধবার দুপুরের পর পরই মতিঝিলে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠকের পর নৌপরিবহনমন্ত্রী ধর্মঘট প্রত্যাহারের অনুরোধ করেন। তিনি পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের মোর্চা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনেরও সভাপতি।

তারপরই বিকেল সোয়া ৩টা থেকে রাজধানীর গুলিস্তান, গাবতলীসহ বিভিন্ন বাসস্ট্যান্ড থেকে গাড়ি ছাড়া শুরু হয়।

গুলিস্তান থেকে মাওয়াগামী ইলিশ পরিবহন, নারায়ণগঞ্জ রুটের বিভিন্ন গাড়ি ও কুমিল্লার দাউদকান্দিগামী গাড়ি ছেড়ে যেতে দেখা যায়। গাড়ি চলাচল শুরু হওয়ায় যাত্রীরা স্বস্তিবোধ করছেন। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন জেলা থেকেও বাস চলাচল শুরু হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে।

ঢাকা জেলা যানবাহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. আশরাফ উদ্দিন বিকেলে রাজধানীর গাবতলীতে বলেন, ‘ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা আসার পর পরই আমরা গাবতলী থেকে যানবাহন চালানো শুরু করেছি। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে শ্রমিকদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। তাদের নিরাপত্তার বিষয়টিও ইউনিয়ন দেখবে।’

বিকেলে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন খুলনা বিভাগীয় কমিটির সভাপতি আজিজুল আলম মিন্টু বলেন, ‘ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে। কিছু গাড়ি চলছে। অল্প সময়ের মধ্যেই গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক হয়ে যাবে।’

ঢাকা থেকে মাওয়াগামী ইলিশ পরিবহনের চালকের সহকারী রোকন বলেন, ‘অবরোধ শেষ, তাই গাড়ি চালাচ্ছি। এখন গাড়ি মাওয়ার উদ্দেশে যাবে।’ তবে এর বেশি কিছু বলতে রাজি হননি তিনি।

হামিদ নামের একজন যাত্রী বলেন, ‘আমি ফরিদপুর যাব। তাই গুলিস্তানে এসেছি। গাড়ি চলছে শুনে শান্তি লাগছে।’

এদিকে গাবতলী থেকেও রাজধানীর অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার পথে যানবাহন চলতে শুরু করেছে। সকাল থেকে যাঁরা বাসস্ট্যান্ডে বসেছিলেন, গাড়ি চলাচল শুরু হওয়ায় তাঁদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। গাবতলী বাসস্ট্যান্ডে দূরপাল্লার গাড়িগুলোর কাউন্টার ধীরে ধীরে খুলছে। ধর্মঘট প্রত্যাহারের পর গাড়ি চলাচল শুরুর প্রথম দিকে সাধারণ কিছু শ্রমিক এসে বাধা দেয়। পরে শ্রমিক নেতারা এসে সাধারণ শ্রমিকদের বুঝিয়ে রাস্তা থেকে সরিয়ে নিয়ে যান।

আমাদের রংপুর মহানগর প্রতিনিধি জানান, ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা আসার পর পরই রংপুরের কামাড়পাড়া ও বাস টার্মিনাল থেকে বিভিন্ন রুটে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।

মন্তব্য করুন


Link copied