Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২০ :: ৯ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৪ : ০৮ পুর্বাহ্ন
Home / আলোচিত / সাড়ে তিন মাসেও উদ্ধার হয়নি রংপুরের স্কুল ছাত্রী শারমিন

সাড়ে তিন মাসেও উদ্ধার হয়নি রংপুরের স্কুল ছাত্রী শারমিন

image_39971_0পীরগঞ্জ প্রতিনিধি: পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এপিএস নামধারী জুয়েল বাহিনীর দ্বারা অপহৃত রংপুরের পীরগঞ্জের স্কুল ছাত্রী শারমিন (২৫) অপহরণের সাড়ে তিনমাসেও উদ্ধার হয় নি। মেয়েকে না পেয়ে পরিবারের সবাই যখন দিশেহারা ঠিক তখনই অপহরণ মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে জুয়েল মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দিচ্ছে।

পুলিশ সুপারের সাথে দেখা করে বিষয়টি জানিয়ে মেয়েকে উদ্ধার এবং পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবী করেছেন অপহৃতার পরিবার।

পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর ৬ মে প্রধানমন্ত্রীর শশুড়বাড়ি রংপুরের পীরগঞ্জের লালদীঘি ফতেহপুর গ্রামের লুৎফর রহমান মন্ডলের কণ্যা শারমিন আখতারকে স্থানীয় পল্লী বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের কাছ থেকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে যায়, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পিএস নামধারী পরশুরাম এলাকার আমজাদ হোসেনের ছেলে জুয়েলের (৪০) নেতৃত্বে কাওসার আলী, শাহ আব্দুলণ হামিদসহ অন্যান্যরা।

এ সময় শারমিন কোচিং থেকে বাড়িতে ফিরছিল। এরপর অপহরণকারীরা শারমিনকে জুয়েলের নিজস্ব আস্তানায় রেখে শ্লীলতাহানিসহ পাশবিক নির্যাতন করে। পরে জুয়েল কৌশলে মেয়েটির সাথে কায়সারের বিয়ে হয়েছে বলে প্রচারণা চালায়। মেয়েটি রংপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে জিপিএ ৩ দশমিক ৮৮ পায়। অপহরণের ৫ দিন পর ফলাফল হয়। এ ঘটনায় শারমিনের পিতা বাদী হয়ে মেয়েকে উদ্ধার এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে পীরগঞ্জ থানায় প্রথমে সাধারণ ডায়েরী ও পরে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। কিন্তু সাড়ে তিনমাসেও শারমীনকে উদ্ধার করতে পারে নি পুলিশ।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, জুয়েল প্রভাবশালী এবং সরকারের ঘনিষ্ট হওয়ায় শারমিনকে অপহরণের পর তার উপর পাশবিক নির্যাতন কায়সার নামের এক যুবকের ওপর দায়ভার চাপিয়ে নিজেরা আড়ালে থাকতে চাইছে। এজন্য তারা  পুলিশের ওপর কর্তাদের দিয়ে তদন্ত কর্মকর্তাসহ অন্যদের দ্রুত চার্জশিট তৈরি করে কায়সারের নাম রেখে অন্যদের নাম বাদ দেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে দেনদরবার চালাচ্ছে।

শারমিনের পিতা লুৎফর রহমান মন্ডল জানান, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এপিএস পরিচয়দানকারী জুয়েলসহ অন্যান্য অভিযুক্ত আসামীরা হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে এসে মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দিচ্ছেন। মামলা তুলে না নিলে মেয়েকে এবং পরিবারেরে সবাইকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছেন।

তিনি বলেন, একদিকে মেয়েকে না পাওয়ার শোক, অন্যদিকে অভিযুক্তদের হুমকি ধামকিতে বড় অসহায় জীবন যাপন করছি।

অপহৃতা শারমিনের বোন র‌্যালী বেগম জানান, বোনকে উদ্ধার এবং আমাদের পরিবারের সবার নিরাপত্বার নিশ্চিত করার দাবী জানিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর পুলিশ সুপারের সাথে বাবাসহ দেখা করে আবেদন জানিয়ে এসেছি।

তিনি জানান, সাড়ে তিনমাসেও আমার বোনকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। বরং পুলিশই আমাদেরকে খোঁজ পেলে জানাতে বলছে। বিষয়টি আমাদের কাছে রহস্যজনক।

তিনি জানান, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এপিএস পরিচয়দানকারী জুয়েল এতটাই প্রভাবশারী যে সে ওই এলাকা থেকে কোটি কোটি টাকা চাকুরী দেয়ার নামে হাতিয়ে নিয়েছে। কেউ তার বিরুদ্ধে কিছুই বলতে পারছে না।

এ ব্যপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পীরগঞ্জ থানার এসআই সাকিউল ইসলাম জানান, ভিকটিমকে উদ্ধারের জন্য চেষ্টা অব্যাহত আছে। জুয়েলের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট জায়গায় চিঠি পাঠিয়েছি। এখনও তার জবাব আসেনি। অভিযুক্ত সবাইকেই চার্জশিটের আওতায় আনা হবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful