Templates by BIGtheme NET
আজ- মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১ :: ৫ মাঘ ১৪২৭ :: সময়- ২ : ৪০ অপরাহ্ন
Home / রংপুর / ‘সকলের সহযোগিতায় আমরা বন্যা কবিলতদের রক্ষা করতে পারবো’

‘সকলের সহযোগিতায় আমরা বন্যা কবিলতদের রক্ষা করতে পারবো’

মমিনুল ইসলাম রিপন: স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, প্রশাসন, সেনাবাহিনী, জনগণের সহযোগিতায় আমরা বন্যা কবিলতদের রক্ষা করতে পারবো। বন্যা পরবর্তীতে যে ক্ষয়ক্ষতি হবে প্রধানমন্ত্রীর নিদের্শনা অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ইতোমধ্যে জিও ব্যাগ, সিসি ব্লক দিয়ে নদী ভাঙ্গন রোধে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। রোববার নোহালী ইউনিয়নের বন্যা কবলিত এলাকায় পরিদর্শনকালে প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

তিনি বলেন, শহর রক্ষায় গঙ্গাচড়ায় নোহালী থেকে মর্ণেয়া পর্যন্ত স্থায়ী বাঁধের জন্য ১২৫ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। যাতে বন্যা ও ভাঙ্গন কবলিত না হয়। পর্যায়ক্রমে টেন্ডারের মাধ্যমে একটির কাজ সম্পন্ন করা হবে। তিনি বলেন, সবাই একযোগে কাজ করছি মানুষজনের দুঃখ কষ্ট লাগবে। যারা পানি বন্দী রয়েছে তাদের জন্য শুকনা খাবার সরবরাহ করা হচ্ছে। সেখানে সেনাবাহিনীর সহায়তাও হচ্ছে। আমরা সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টারে করে গোটা রংপুর বিভাগের বন্যা পরিস্থিতি আমরা পর্যবেক্ষন করবো এবং বন্যা দূর্গতের উদ্ধার তৎপরতা চালাবো।

এদিকে বন্যায় রংপুরের গঙ্গাচড়া, পীরগাছা ও কাউনিয়ায় আরো নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়েছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে প্রায় লক্ষধিক মানুষ। পানির তোড়ে ভেসে গেছে ২শিশু। পানিবন্দি মানুষকে উদ্ধারে নেমে সেনাবাহিনী। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিতে তিস্তার পানি কাউনিয়াপয়েন্টে ছুই ছুই করছে। রাতের মধ্যে বিপদসীমা ৩০ সেন্টিমিটার অতিক্রম করতে পারে বলে পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে। রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলা ৭টি ইউনিয়নের মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে তিস্তা তীরবর্তী নিচু এলাকায় এখন কোমর পানিতে ডুবে গেছে বাড়িঘর। কেউ কেউ আশ্রয় নিয়েছে পার্শ্ববর্তী উচু স্থান ও বাধে। অনেকে বন্যার পানিতে আটকা পড়েছে। আটককৃতদের উদ্ধারে সেনাবাহিনী ও স্থানীয় জনগন কাজ করছেন।সেনা কর্মকর্তারা আটককৃতদের উদ্ধারে স্প্রীট বোড এর মাধ্যমে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছেন এবং তাদের নিরাপদ স্থলে পৌছাতে সহায়ক ভূমিকা রাখছেন।

মর্নেয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোছাদ্দেক আলী আজাদ জানান, পানির তোড়ে ভেসে গেছে দুই শিশু। তবে তিনি তাদের পরিচয় জানাতে পারেননি। তিনি সরকারি ভাবে ত্রাণ বিতরণের দাবি জানিয়েছেন। অপরদিকে কাউনিয়ায় উপজেলায় বেশ কয়েকটি ইউনিয়ন বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে । এতে কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। একই অবস্থা পীরগাছা উপজেলায়ও। সেখানে তিস্তা তীরবর্তী এলাকা পানিতে ডুবে গেছে। বন্যা কবলিত এলাকায় পরিদর্শনকালে প্রতিমন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন রংপুর সেনা নির্বাসের জিওসি মেজর জেনারেল মোঃ মাসুদ রাজ্জাক, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ওয়াহেদুজ্জামান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম, উপজেলা ত্রান কর্মকর্তা বাবুল চন্দ্র রায় ও গঙ্গাচড়া উপজেলা জাপা’র সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য মোঃ সামসুল আলমসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful