আর্কাইভ  শনিবার ● ২৭ নভেম্বর ২০২১ ● ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   শনিবার ● ২৭ নভেম্বর ২০২১

গাইবান্ধায় আ’লীগের প্রার্থী ও নেতাকর্মীরা এখন একে অপরের প্রতিপক্ষ

শুক্রবার, ১ মার্চ ২০১৯, রাত ০৯:৫০

তোফায়েল হোসেন জাকির: আগামী ১৮ মার্চ পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাাচনে দ্বিতীয় ধাপে গাইবান্ধার ছয়টি উপজেলায় অনুষ্ঠিত হবে ভোটগ্রহন। এ উপলক্ষে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের সময় শেষ হয়েছে। এখন যারা বৈধ প্রার্থী হিসেবে আছেন ইতোমধ্যে তাদের মাঝে প্রতিক বরাদ্দও দেয়া হয়েছে। ছয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিক প্রার্থী থাকলেও পাচঁ উপজেলায় রয়েছে আওয়ামীলীগের দলীয় একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী। ফলে একে অপরের প্রতিপক্ষ হয়ে ভোটের মাঠ চষে বেরাচ্ছেন। এসব প্রার্থীরা হলেন- গাইবান্ধা সদর উপজেলা থেকে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিক প্রার্থী পিয়ারুল ইসলাম। তবে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ঘোড়া প্রতিক নিয়ে ভোটের মাঠে লড়ছেন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা শাহ সারোয়ার কবির। সাদুল্লাপুর উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিক প্রার্থী শাহারিয়া খাঁন বিপ্লব। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মোটরসাইকেল প্রতিক নিয়ে রয়েছেন স্থানীয় যুবলীগ নেতা শাহ মো. ফজলুল হক রানা, ও কাপ পিরিচ প্রতিকে আওয়ামীলীগ নেতা মতিয়ার রহমান সরকার। গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা থেকে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিক প্রার্থী আব্দুল লতিফ প্রধান। তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে দোয়াত কলম প্রতিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ফেরদৌস আলম রাজু, ঘোড়া প্রতিকে মুকিতুর রহমান রাফি, ও আনারস প্রতিকে কৃষকলীগ নেতা জাহিদ চৌধুরী। সাঘাটা উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক প্রার্থী এসএম শামসিল আরেফিন। তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ঘোড়া প্রতিকে লড়ছেন স্থানীয় যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর কবির। ফুলছড়ি উপজেলা থেকে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক প্রার্থী জিএম সেলিম পারভেজ। তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মোটরসাইকেল প্রতিকে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা আবু সাঈদ, দোয়াত কলম প্রতিকে বেলাল হোসেন ইউসুফ ও ঘোড়া প্রতিকে যুবলীগ নেতা হাবিবুর রহমান। পলাশবাড়ী উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক প্রার্থী একেএম মোকছেদ চৌধুরী বিদ্যুৎ। তবে এ উপজেলায় কোনো বিদ্রোহী প্রার্থী নেই। নির্বাচনি এলাকার মাঠ পর্যায়ে ঘুরে জানা গেছে, স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসহযোগি সংঠনের একাধিক নেতা চেয়ারম্যান পদে অংশ নেওয়ায় অনেক নেতাকর্মী বিভক্ত হয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীর সমর্থনে গণসংযোগ চালিয়ে আসছেন। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে ভোটের মাঠে প্রচারণা করতে গিয়ে উভয় পক্ষের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করতে দেখা গেছে।

মন্তব্য করুন


Link copied