Templates by BIGtheme NET
আজ- মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ::৬ আশ্বিন ১৪২৮ :: সময়- ৬ : ১০ অপরাহ্ন
Home / নীলফামারী / নীলফামারীতে দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাকা ঘর পাচ্ছে এক হাজার ১০ অসহায় পরিবার

নীলফামারীতে দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাকা ঘর পাচ্ছে এক হাজার ১০ অসহায় পরিবার

স্টাফ রিপোর্টার,নীলফামারী॥ দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাকা ঘর পেতে যাচ্ছে নীলফামারীর অসহায় এক হাজার ১০ পরিবার। এতে ওই সকল পরিবারের মাঝে সাজ সাজ রব পড়েছে। আগামী ২০ জুন রবিবার মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় এই পাকা ঘরগুলো ওই সকল পরিবার পেতে যাচ্ছে।
আজ শুক্রবার(১৮ জুন/২০২১) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফেরান্সের মাধ্যমে সারা দেশের ন্যায় নীলফামারীর নবনির্মিত পাকা ঘরগুলো অসহায় পরিবারগুলোর মাঝে তুলে দিবেন।
তিনি জানান, নীলফামারীর ৬ উপজেলায় দ্বিতীয় পর্যায়ে ১ হাজার ২৫০টি পরিবারের জন্য বরাদ্দ পাওয়া গেছে। এরমধ্যে এক হাজার ১০টি পরিবারকে ঘর, চাবি ও জমি হস্তান্তর করা হবে। এর মধ্যে সদরে ১৫০টি, ডোমারে ২০০টি, ডিমলা ১৫০টি, জলঢাকায় ৩০০টি, কিশোরীগঞ্জে ১৫০টি ও সৈয়দপুরে ৬০টি পরিবার ঘর পাচ্ছে।
তিনি জানান, ইতোমধ্যে ঘর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বন্দোবস্তকৃত ২ শতাংশ খাস জমির কবুলিয়ত ও নামজারী করাসহ আনুষঙ্গিক সকল কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। বরাদ্দকৃত ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, বৃহৎ এ কর্মযজ্ঞে ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধী, বিধবা, স্বামী পরিত্যক্তা ষাটোর্দ্ধ প্রবীণ ব্যক্তিদের তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। খাস জমিতে ব্যারাক নির্মাণের মাধ্যমে ২ শতাংশ খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদান করে একক গৃহ নির্মাণ করা হয়েছে। ৩৯৪বর্গফুটের একক গৃহ নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১লাখ ৯০ হাজার টাকা। আর ১২৫০টি পরিবারের জন্য জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ২১একর ৭০শতাংশ। নির্মিত গৃহসমুহে বিদ্যুৎ সংযোগ ও টিউবওয়েল স্থাপন করা হয়েছে। দুই কবিশিষ্ট সেমি পাকা ঘরে একটি টয়লেট, একটি রান্না ঘর ও ইউটিলিটি স্পেস রয়েছে।
জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, জেলা প্রশাসক আরও জানান, এ জেলায় আরও ২৪০ পরিবার ঘর পাবে আগামী জুলাই মাসে।
সংবাদ সম্মেলন অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপপরিচালক (স্থানীয় সরকার বিভাগ) আব্দুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজহারুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খন্দকার নাহিদ হাসান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মির্জা মুরাদ হাসান বেগ, সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আকতার, রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর(আরডিসি) বেলায়েত হোসেন, নেজারত ডেপুটি কালেক্টর(এনডিসি) জাহাঙ্গীর হোসাইন, ম্যাজিস্ট্রেট জায়িদ ইমরুল মুজাক্কিন, মাসুদুর রহমান প্রমুখ।
উল্লেখ যে, প্রথম পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসাবে চলতি বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারী নীলফামারী জেলায় পাকা ঘর পেয়েছিলেন ৬৩৭ অসহায় পরিবার।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful