Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ::৫ আশ্বিন ১৪২৮ :: সময়- ২ : ০২ পুর্বাহ্ন
Home / রংপুর / রংপুর মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশের সাফল্যের আরো ১ বছর

রংপুর মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশের সাফল্যের আরো ১ বছর

মমিনুল ইসলাম রিপন: করোনাকালে জীবন ঝুঁকি নিয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালন করে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। গত এক বছর যানজট নিরসনে কার্যকর ভূমিকা রাখা, সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী লকডাউনে সড়কে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ, সরকারী বিধি নিষেধ ভঙ্গ করে পরিবহন পরিচালনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ছিল ট্রাফিক বিভাগ।

রংপুর মেট্রোপলিটন ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বিগত সময়ে সড়কে নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে যানবাহন চলাচল করায় প্রতিনিয়ত যানজটে পড়তে হতো নগরবাসীকে। গত এক বছরে উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ মেনহাজুল আলমের নেতৃত্বে রংপুর ট্রাফিক বিভাগ সড়কে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করায় স্বস্তি ফিরেছে নগরবাসীর মনে। একজন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, ২ জন সহকারী পুলিশ কমিশনার, ৪ জন ট্রাফিক ইনচার্জ, ১০ জন সার্জেন্ট, ৩ জন টিএসআই, ১১ জন এটিএসআই ও ৮০ জন কনস্টেবলসহ মোট ১১২ জন জনবল নিয়ে ট্রাফিক বিভাগ কাজ করে যাচ্ছে। করোনাকালীন সময়ে ট্রাফিক বিভাগের পক্ষ থেকে ৩০ হাজার মাস্ক বিতরণ, গাড়ীর চালক-হেল্পার ও জনসাধারণকে করোনা সম্পর্কে সচেতন করার জন্য ৮০ হাজার লিফলেট বিতরণ, রাস্তা ও ফুটপাত দখলমুক্ত করে জনগণ ও যানবাহন চলাচল সুগম করা, নগরীর যানবাহন পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা, বিভিন্ন স্কুল-কলেজে ট্রাফিক আইন ও রাস্তা ব্যবহারের নিয়ম-কানুন সম্পর্কে প্রায় ৮০টি সচেতনতামূলক সেমিনার করা, মেডিকেল মোড়ে অবৈধ বাসস্ট্যান্ড উচ্ছেদ করা হয়েছে, নগরীর বিভিন্ন স্থানে নো পার্কিং রোড বসানো হয়েছে, পায়রা চত্ত্বরে সিটি কর্পোরেশনের সাথে আলোচনা করে রাস্তা প্রশস্ত করে যানবাহন চলাচলের ব্যবস্থা করা, বাংলাদেশ ব্যাংক মোড় , লালবাগ মোড়, মর্ডাণ মোড় এবং সাতমাথা মোড় থেকে অবৈধ বাড়ী উচ্ছেদ, নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে ট্রাফিক সচেতনতামূলক সাইনবোর্ড লাগানো, নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থান সিটি বাজারের সামনে অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়েছে। ২০২০ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে চলতি বছরের ৩১ আগস্ট পর্যন্ত রংপুর মেট্রোপলিটন ট্রাফিক বিভাগ সড়ক পরিবহন আইনে ৩৪ হাজার ৯৯২টি মামলা এবং ৩ হাজার ৭২৯টি বিভিন্ন ধরনের যানবাহন আটক করে সড়ক পরিবহন আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। গত এক বছরে সরকারী কোষাগারে ৬ কোটি ১২ লাখ ৭ হাজার ৫৩৭ টাকা জমা করেছে।

মেট্রোপলিটন পুলিশ ট্রাফিক বিভাগের পুলিশ পরিদর্শক (শহর ও যানবাহন) দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমরা উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশ মোতাবেক নগরীর যানবাহন নিয়ন্ত্রণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। নগরবাসীদের সহযোগিতায় অচিরেই একটি যানজটমুক্ত নগরে পরিণত হবে রংপুর সিটি কর্পোরেশন।

মেট্রোপলিটন পুলিশ ট্রাফিক বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মেনহাজুল আলম বলেন, ট্রাফিক বিভাগের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে নগরীতে যানজট হওয়ার মূল কারণগুলো চিহ্নিত করি। এরপর স্থানীয় ব্যবসায়ী, অবৈধ দখলদার, সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনাসহ অবাধে যানচলাচলের ব্যবস্থা করেছি। নগরীর যানজট নিরসনে নানাবিধ উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হয়েছে। আগামীতে নগরবাসী যেন যানজট মুক্তভাবে চলাচল করতে পারে সেলক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful