আর্কাইভ  রবিবার ● ৫ ডিসেম্বর ২০২১ ● ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   রবিবার ● ৫ ডিসেম্বর ২০২১

পীরগঞ্জে ফেসবুকে ষ্টাটাস দেবার ঘটনায় আরও দুই জনের স্বীকারোক্তি

বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, সকাল ০৯:০৬

মমিনুল ইসলাম রিপন: ফেসবুকে অবমাননাকর ছবি পোষ্ট দেবার ঘটনায় প্রধান আসামী পরেশ চন্দ্রের দুই সহযোগী আল আমিন ও উজ্জল বুধবার রাতে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান করেছে। রংপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ফজলে এলাহি খানের আদালতে এ জবানবন্দি দেন । জবানবন্দিতে ফেস বুকে অবমাননাকর ষ্টাটাস দেবার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন বলে জানা গেছে। কোর্ট সিএসআই . এ.এস আই শহিদুল ইসলাম জবানবন্দি দেবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে ফেস বুকে অবমাননাকর ষ্টাটাস প্রদান করার বিষয়টি স্বীকার করে প্রধান আসামী পরেশ চন্দ্র আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান করার সময় সহযোগী হিসেবে আল আমিন ও উজ্জলের নাম উল্লেখ করে।এর পরেই পীরগজ্ঞ থানা পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে দিনাজপুর পুলিশের সহায়তায় কোহারোল এলাকা থেকে ওই দুইজনকে গ্রেফতার করে। বুধবার বিকেলে তাদের দুজনকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় পরেশের সহযোগী হিসেবে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠায়। আসামী আল আমিন ও উজ্জল ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়ায় রংপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ফজলে এলাহী খানের আদালতে হাজির করা হয় সেখানেই তারা দুজন স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান করেন। জবানবন্দি গ্রহন শেষে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন। এদিকে পীরগজ্ঞ থানার ওসি সরেস চন্দ্র জানান আসামী পরেশের বিরুদ্ধে আগেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয় সে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়ে তার সহযোগী হিসেবে আল আমিন ও উজ্জলের নাম উল্লেখ করায় তাদেরকেও একই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়। এ ছাড়াও আরো ৯জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এ নিয়ে মোট গ্রেফতারের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৩ জনে।

মন্তব্য করুন


Link copied