আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ২৬ অক্টোবর ২০২১ ● ১১ কার্তিক ১৪২৮
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ২৬ অক্টোবর ২০২১

ভালোবাসলে যে সাতটি ছোট ছাড় দিতেই হয়

বৃহস্পতিবার, ২৯ মে ২০১৪, রাত ১০:৫১

love romantic girlআপনি ব্যক্তিগত জীবনে আগে যেভাবেই চলেন না কেন, ভালোবাসলে তার অনেক কিছুই পাল্টে যায়। বহু বিষয়ে দিতে হয় ছাড়। কাউকে ভালোবাসলে তার অনেক ত্রুটি ও ভুলকে অতি তুচ্ছ বলেই মনে হবে। এক্ষেত্রে ভালোবাসাটাই বড় হয়ে দেখা দেবে। এ ধরনের সাতটি বিষয় নিয়েই এ লেখা।

১. নাক ডাকা ছোটবেলা থেকেই আপনি কোনো শব্দের মাঝে ঘুমাতে পারেন না। কানের কাছে কারো নাক ডাকার শব্দ তো নয়ই। কিন্তু এটা ভালোবাসা বলে কথা। আপনার ভালোবাসার সঙ্গী যদি নাকও ডাকে, সে শব্দ আপনার সহ্য হয়ে যাবে।

২. খাবার ভাগাভাগি আপনি আইসক্রিম খেতে ভালোবাসেন। আর এতোদিন আইসক্রিমের পুরোটা নিজেই খেতেন, কারো সঙ্গে ভাগাভাগি করতে আপনি রাজি ছিলেন না। কিন্তু ভালোবাসায় পতিত হয়ে আপনি সেই আইসক্রিমও ভাগ করে খাওয়া শুরু করলেন। এমনকি লোভের বসে আপনার সঙ্গী বেশিরভাগটা খেয়ে ফেললেও তা হাসিমুখে মেনে নিবেন।

৩. অপছন্দের টিভি শো

আপনার টিভি দেখার অভ্যাস অন্যদের তুলনায় আলাদা বলেই মনে করেন। এ কারণে টিভির রিমোট কন্ট্রোল নিজের বাগে রাখার অভ্যাস রয়েছে। কিন্তু ভালোবাসায় পতিত হয়ে আপনি সেই অভ্যাসটিও হারাতে পারেন। এরপর আপনার সঙ্গীর পাল্লায় পড়ে যাবতীয় অপছন্দের টিভি অনুষ্ঠান গোলগোল চোখ করে দেখতে হয় আপনাকে।

৪. সবখানে চুল আপনি সব সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে ভালোবাসেন। এতোদিন আপনি আলগা চুল থেকে দূরে থাকতেন। তাই আপনার আশপাশে কোনো চুল দেখা যেত না। কিন্তু আপনার সঙ্গীর সঙ্গে ভালোবাসার পর তার চুল আপনার গা সওয়া হয়ে গেছে। চারপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাড়তি চুল হাসিমুখে পরিষ্কার করতে আপনি বিরক্ত হন না।

৫. সঙ্গীর গান আপনি বড় শিল্পীদের গান শুনতে ভালোবাসেন। আর আনাড়ি গলার কারো গান অপছন্দ করেন। কিন্তু এটি সব সময় একই থাকে না। আপনার সঙ্গীর গান বলে কথা। ভালোবাসার টানে তার গানও ভালো লাগতে পারে।

৬. বাথরুমে বাজে অভ্যাস বাথরুমের সিট, টয়লেট পেপার, সাবান ইত্যাদি অগোছালো করে রাখা আপনি একেবারেই দেখতে পারেন না। কিন্তু ভালোবাসার পাল্লায় পড়ে আপনার সে বিষয়গুলোও গা সওয়া হয়ে যাবে।

৭. অযাচিত ব্যাঘাত আপনি অত্যন্ত মনযোগ দিয়ে কোনো একটি কাজ করছেন, এ সময় আপনার ভালোবাসার সঙ্গী এসে একটা অপ্রয়োজনীয় গল্প বলা শুরু করলো। অন্য কেউ হলে আপনি এ ব্যাপারটি একেবারেই সহ্য করতেন না। কিন্তু আপনার ভালোবাসা বলে কথা। কাজে ব্যাঘাত ঘটিয়েও সঙ্গীর কথা শুনতে আপত্তি করবেন না আপনি।

মন্তব্য করুন


Link copied